সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ১৮ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

‘করোনায় কাম হারাইছি, দুই দিন না খাইয়া চুরি করছি’

‘করো’নায় কা’ম হারাইছি, দুই দিন যাবৎ কিছুই খাই নাই—তাই চু’রি করছি। ’ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লে মানিব্যাগ চু’রির অ’ভিযোগে আ’ট’ক জুয়েল (২২) নামে এক যুবক পু’লিশ সদস্যদের কাছে এ কথা বলেন।

সোমবার (৬ জুলাই) দুপুরের দিকে হাসপাতা’লের নতুন ভবনের অষ্টম তলা থেকে এক রোগীর মানিব্যাগ চু’রির অ’ভিযোগে জুয়েলকে আ’ট’ক করেন আনসার সদস্যরা।

আ’ট’কের পর কয়েকজন আনসার সদস্য তার হাত বেঁধে গলায় ‘আমি চো’র, আমাকে চিনে রাখু’ন’ লেখা একটি কাগজের প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে পুরো হাসপাতা’লে ঘোরান।

এক পর্যায়ে আ’ট’ক জুয়েলকে ওই অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পু’লিশ ক্যাম্পে নেওয়া হয়। তখন তিনি পু’লিশ সদস্যদের বলেন—‘করো’নার সময় আমি কা’ম হারাইছি, দুই দিন যাবত তেমন কিছু খাই নাই। তাই চু’রি করতে হাসপাতা’লে আসছি’।

আ’ট’ক জুয়েলের কথা শুনে সঙ্গে সঙ্গে পু’লিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া তার হাতের বাঁধন খুলে তাকে খাবার খেতে দেন।

বাংলানিউজকে আ’ট’ক জুয়েল জানান, তার বাড়ি বরিশালের কাউখালী উপজে’লার। তিনি গু’লিস্তানের ফুটপাতে হোটেলে ভাত রান্নার কাজ করতেন। করো’নাকালে সেই হোটেল বন্ধ হয়ে গেছে। তার হাতে কোনো কাজ নেই। গত দুই দিন যাবত তেমন কিছুই খেতে পাননি তিনি। তাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে গিয়েছিলেন খাবারের সন্ধানে।

পরে নতুন ভবনে এক রোগীর পাশে মানিব্যাগ পড়ে থাকতে দেখে, সেটি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধ’রা পড়েন জুয়েল।

এ ব্যাপারে কথা হয় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসারের প্লাটুন কমান্ডার (পিসি) আব্দুল আউয়ালের সঙ্গে। তিনি জানান, বাদী জুয়েলকে ধরিয়ে দিয়েছেন মানিব্যাগ চু’রির অ’প’রাধে। একটি কাগজে চো’র লিখে জুয়েলের গলায় ঝুলিয়ে হাসপাতা’লে ঘোরানো হয়েছে। যেন সবাই তাকে চিনে রাখেন।

এক প্রশ্নের জবাবে প্লাটুন কমান্ডার বলেন, হাসপাতা’লে প্রায়ই রোগীদের টাকা-পয়সা চু’রি হয়ে যায়। সতর্কতার জন্য ওই জুয়েলের গলায় লেখাটি ঝুলিয়ে হাসপাতা’লে ঘোরানো হয়েছে।

হাসপাতা’লের নতুন ভবনের রোগী তাইজুল ইস’লাম হৃদয় বলেন, আমি হাসপাতা’লের বিছানায় চাদর মুড়ি দিয়ে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ দেখতে পাই আমা’র মানিব্যাগটা নিয়ে ওই যুবক নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। তখন তাকে ধরে ফেলি।

ঢাকা মহানগর পু’লিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান ঘটনার বিস্তারিত শুনে বলেন, ঘটনাটি সংস্থার নিজস্ব ব্যাপার। তবে যুবকের গলায় চো’র লিখে পুরো হাসপাতা’লে ঘোরানো—এটা আইনে নেই।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 20
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    20
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: