সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

লন্ডনে পড়াশোনা করা তরুণ দেশে গরুর খামারি

লন্ডনের সিটি ইউনিভা’র্সিটিতে বিবিএ করছেন তরুণ উদ্যোক্তা ওয়াসিফ আহমেদ। দেশে বাইরে পড়াশোনা করেও দেশে নিজ উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন গরুর খামা’র। প্রথমে দু’টি গরু দিয়ে শুরু করা এই খামা’রে এখন শতাধিক গরু রয়েছে। বর্তমানে দেশের সর্ব কনিষ্ঠ খামা’রি উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন ওয়াসিফ আহমেদ সালাম।

তরুণ এ উদ্যোক্তা বলেন, ‘বাবাকে ব্যবসা করতে দেখতাম ছোটবেলা থেকে। তিনি আমাদের জন্য ও মানুষের জন্য অনেক পরিশ্রম করতেন। এখনও পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। দাদাও ব্যবসা করতেন। বাবা একজন সফল ব্যবসায়ী, ব্যবসাখাতে দেশকে এগিয়ে নিতে এবং ৪০ হাজার শ্রমিককে সামাল দিতে যেই পরিশ্রমটা করেন সেই পরিশ্রমই আমা’র অনুপ্রেরণা হয়ে দাড়াঁয়।’
এ তরুণের শৈশব কাটে চট্টগ্রাম শহরে। এসএসসি ও এইচএসসির গন্ডি শেষ করে এরপর পাড়ি জমান লন্ডন সিটিতে। সেখান থেকে উচ্চডিগ্রি নেওয়াকালীন খামা’রি উদ্যোক্তা হবার ব্যতিক্রমী ভাবনা আসে। দেশে এসেই ওয়াসিফ আহমেদ ছোটবেলায় জমানো ঈদের সেলামি দিয়ে কেনেন দু’টি গরু। চট্টগ্রামের সুনামধন্য পরিবারের বেড়ে ওঠা ওয়াসিফের এ কা’ণ্ড দেখে বিস্মিত হতেন অনেকেই! বাইরের দেশ উচ্চশিক্ষা নিয়ে এখন কী’ না দেশে গরুর খামা’রে ঝুঁকবেন তিনি। ব্যাপারটি অনেকের কাছেই কঠিন এবং হাসির খোরাক হলেও ওয়াসিফের মনের সাধকে কেউ ঠেকাতে পারেনি।

শৈশবে স্বপ্ন দেখতেন ক্রিকেটার হওয়ার। ইচ্ছে ছিল ক্রীড়াঙ্গনে দেশকে নেতৃত্ব দেবেন। এখন ব্যবসাখাতেই দেশকে নেতৃত্ব দেয়ার স্বপ্ন এই তরুণের। ১৯ বছর বয়সী এই তরুণ চট্টগ্রাম শহরের হাটহাজারী উপজে’লার নন্দীর হাটে নিজের প্রচেষ্টায় গড়ে তুলেছেন এশিয়ান এগ্রো নামে একটি গরুর খামা’র।আলাপচারিতায় তিনি জানান, নিজের জমানো টাকা ছিল সেই টাকা দিয়ে শখের বসে ২০১৬ সালে দু’টি গরু কেনেন। এরপর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি, পরের বছর সেই দুটি গরুর থেকে ১০টি গরুতে রূপান্তর করেন। ২০১৮ সালে খাম’রে ৮০টা গরু হয়।তিনি বলেন, ‘এ ব্যবসায় সফল হতে থাকি আর গরুর সংখ্যাও বাড়তে থাকে। এখন দেশের বৃহৎ গরুর খামা’র হয়েছে। প্রতি বছর ঈদুল আজহার সময় ঘনিয়ে আসলে বেড়ে যায় ব্যস্ততা।’

দেশের নামকরা শিল্প পরিবারের ছোট ছে’লে গরুর ব্যবসায় নামা’র পর পরিবারের প্রতিক্রিয়া কী’ ছিল? জানতে চাইলে ওয়াসিফ আহমেদ একটু হেসে বলেন, আমা’র ব্যবসায়ী পরিবার। তাই জন্ম থেকেই দেখতাম দদা-বাবাদের অফিসে ছোটোখাটো গরু-ছাগলকে লালন পালন করতো। ঠিক তখন থেকেই আমা’র শখ হয়ে উঠেছিল আমিও একটা ফার্ম করবো। যেহেতু নিজ প্রচেষ্টায় শুরু করেছিলাম পরিবার বেশ ভালো’ভাবেই নিয়েছে, মা বাবা আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়েছে। পরিবার থেকে কোনো বিরোপ মন্তব্য শুনতে হয়নি।

তবে আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে খা’রাপ মন্তব্য শুনতে হয়েছে। তারা আমাকে গরু ওয়ালা বলতো, রাখাল বলে ডাকতো।
গরুর খামা’রের পাশাপশি ওয়াসিফ আহমেদ নিজের প্রচেষ্টায় গড়ে তোলেছেন আরও কিছু ব্যবসা। ২০১৭ সাল থেকে শুরু করেন পাঞ্জাবীর ব্যবসা। ২০২০ সালে করো’না পরিস্থিতি মা’থায় রেখে অনলাইনে পিজ্জা ডেলিভা’রির একটি ব্যবসা চালু করেন। যেটা রাত তিনটা পর্যন্ত চট্টগ্রাম শহরে ডেলিভা’রি দেয় এবং ২০২০ সালেই কনক্রিট ব্লক এর ফ্যাক্টরি চালু করেন তিনি।ব্যবসাকে আকঁড়ে ধরেই বাকী’টা জীবন কা’টানোর ইচ্ছে এখন এই তরুণ উদ্যোক্তার। ওয়াসিফ আহমেদ বলেন, ব্যবসাখাতে আমা’র যে সফলতা এসেছে এটা আমা’র জন্য একটা শিক্ষামাত্র, এই শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে আমি আমা’র ব্যবসাগুলো বড় করবো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: