সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ইস’রাইলের বি’রুদ্ধে অবরোধ দাবি, অ’স্ত্র বিক্রি বন্ধের দাবি বৃটিশ লেবার পার্টির

গাজায় ইস’রাইলের নৃ’শংসতার বি’রুদ্ধে বৃটেনের হাউজ অব কমন্সে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিরোধী লেবার দল। নেতারা ফিলি’স্তিনের কাছে বৃটিশ অ’স্ত্র বিক্রি বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ইস’রাইলের সরকারের বি’রুদ্ধে অবরোধ দেয়ার দাবি তোলা হয়েছে। ইস’রাইল-ফিলি’স্তিন নিয়ে মুখ খুলেছেন বিরোধী লেবার দলের সাবেক নেতা জেরেমি করবিন।

তিনি হাউজ অব কমন্সে জানতে চেয়েছেন- ইস’রাইলের সঙ্গে বৃটেনের সাম’রিক স’ম্পর্কের প্রকৃতি কি রকম। একই সঙ্গে জানতে চেয়েছেন ইস’রাইলের কাছে বৃটেন যেসব অ’স্ত্র বিক্রি করেছে, গাজায় বো’মা হা’মলায় তা ব্যবহার করা হয়েছে কিনা। তার দলের অন্য নেতারা ইস’রাইলের বি’রুদ্ধে অবরোধ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, ইস’রাইল বার বার আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে। তাই ইস’রাইলের কাছে বৃটেনের অ’স্ত্র বিক্রি বন্ধের এখনই উত্তম সময়। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মেইল।

উল্লেখ্য, ১১ দিনের যু’দ্ধে নির্বিচারে গাজায় বো’মা হা’মলা করে কমপক্ষে ২২৭ জনকে হ’ত্যা করেছে ইস’রাইল। পক্ষান্তরে হামাসের রকেট হা’মলায় ১২ ইস’রাইলি নি’হত হয়েছে। ইস’রাইলের অ’ভিযোগ, হামাসের রকেট হা’মলার জবাবে তারা বিমান হা’মলা করেছে। কিন্তু ঘটনার সূত্রপাত আল আকসা ম’সজিদে নামাজ আদায় করতে যাওয়া মু’সলিম’দের সঙ্গে ইস’রাইলি পু’লিশের সং’ঘর্ষ, জেরুজালেমে ফিলি’স্তিনিদের অধিকার লঙ্ঘনকে কেন্দ্র করে। এক পর্যায়ে ইস’রাইল উন্মত্তের মতো বো’মা হা’মলা শুরু করে গাজায়। বৃহস্পতিবার এই যু’দ্ধ বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ইস’রাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে ফোন করেন যু’ক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। কিন্তু তার আহ্বানে কাঁধ ঝাঁকিয়েছেন নেতানিয়াহু। তিনি হা’মলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।

এ অবস্থায় জেরেমি করবিন বলেছেন, ওই অঞ্চলজুড়ে মৃ’ত্যুর ভ’য়াবহতা, ধ্বংসযজ্ঞ এবং প্রা’ণহানী এখন ভীতিকর পরিস্থিতিতে পৌঁছেছে। গাজায় যেসব ভবনকে টার্গেট করে বো’মা হা’মলা হয়েছে, পশ্চিম তীরের সরু এলাকায় যে বো’মা হা’মলা হয়েছে, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিষ্ঠানকে যেভাবে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে তা জঘন্য। এ সময় তিনি ফরেন অফিস মিনিস্টার জেমস ক্লেভা’রলির কাছে জানতে চান, মন্ত্রী কি ইস’রাইলের সঙ্গে বৃটেনের সাম’রিক স’ম্পর্কের ধরন ব্যাখ্যা করবেন এবং এই সহযোগিতা কি পর্যায়ে আছে। তিনি কি হাউজ অব কমন্সে বলবেন, ইস’রাইলের কাছে বৃটেন যে অ’স্ত্রশস্ত্র বিক্রি করেছে, সেগুলোই গাজায় বো’মা হা’মলায় ব্যবহার হচ্ছে কিনা? অথবা যেসব ড্রোন সরবরাহ দেয়া হয়েছে, তা ব্যবহার করে পশ্চিমতীর এবং গাজায় নজরদারিতে ব্যবহার হচ্ছে কিনা। এসব হা’মলায় ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে বেসাম’রিক মানুষের জীবন, হ’ত্যা করা হচ্ছে এত্ত এত্ত মানুষকে।

জবাবে জেমস ক্লেভা’রলি বলেন, বৃটেনের অ’স্ত্র বিক্রির লাইসেন্স আছে। যেসব অ’স্ত্র বিক্রি করা হয়েছে তা নিয়ম মেনেই করা হয়েছে। এ সময় ফিলি’স্তিনি বংশোদ্ভূত বৃটিশ লেবারেল ডেমোক্রেট দলীয় এমপি লায়লা মোরান হাউজ অব কমন্সে বলেন, ‘ফিলি’স্তিনি ৬৩টি শি’শুকে গাজায় হ’ত্যা করা হয়েছে। এ কথা বলতে গিয়ে আমা’র হৃদয় ভেঙে যাচ্ছে। আমাদের প্রয়োজন একটি যু’দ্ধবিরতি। এই সুযোগটি ফ্রান্সের জন্য ছেড়ে দেয়া ঠিক হবে না বৃটেনের। বৃটিশ সরকার তার ঐতিহাসিক দায়িত্ব সঙ্কুচিত করেছে। এই দায়িত্বকে সমৃদ্ধ করার সময় এসেছে এখন।

ফিলি’স্তিনিদের বি’রুদ্ধে যু’দ্ধ বন্ধে চূড়ান্তভাবে বৃটিশ সরকার ব্যবস্থা নেয়ার আগে আর কত ফিলি’স্তিনি শি’শুকে লা’শ হতে হবে, আর কত ফিলি’স্তিনি বাড়ি মাটির সঙ্গে মিশে যাবে, আর কত ফিলি’স্তিনি স্কুল-হাসপাতাল বো’মা দিয়ে উড়িয়ে দেয়া হবে? এ প্রশ্ন রেখে বক্তব্য রাখেন লিডস ইস্ট থেকে নির্বাচিত লেবার দলের এমপি রিচার্ড বার্গন। ক্ষোভঝরা কণ্ঠে তিনি বলেন, এখনই সময় ইস’রাইলের কাছে বৃটেনের সব রকম অ’স্ত্র বিক্রি বন্ধ করা। তিনি আরো বলেন, ইস’রাইল বার বার আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে। তাই এখনই সময় তার বি’রুদ্ধে অবরোধ দেয়ার। ফিলি’স্তিনিদের যেহেতু টিকে থাকার অধিকার আছে, তাই এখনই সময় ফিলি’স্তিনকে একটি রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 55
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    55
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: