সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৯ মে ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

করোনার ভয়কে উপেক্ষা মাকে ফেরানোর ব্যর্থ চেষ্টা

ভা’রতের উত্তর প্রদেশের মহারাজ শেহেলদেব মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের দৃশ্য। একটি স্ট্রেচারে নিষ্প্রা’ণ মায়ের দেহে প্রা’ণ ফেরানোর আপ্রা’ণ চেষ্টা করছেন দুই বোন। মায়ের মুখের সঙ্গে মুখ লাগিয়ে শ্বা’স-প্রশ্বা’স সচল করার চেষ্টা করছেন তারা। এ দৃশ্য ভিডিওতে ধারণ করার পর তা শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাই’রাল হয়ে যায়। ভিডিওতে

আশপাশের মানুষকে অক্সিজেন সঙ্কট এবং হাসপাতা’লে জনবলের অভাব আছে বলে অ’ভিযোগ করতে শোনা যায়। এ খবর দিয়েছে সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআই। যদি কোনো ব্যক্তির ফুসফুস অকেজো হয়ে যায়, তিনি অচেতন হয়ে পড়েন তখন তার দেহে কৃত্রিশ শ্বা’সপ্রশ্বা’সের জন্য মুখে মুখ লাগিয়ে ফুসফুসে বাতাস প্রবেশ করানো হয়। এতে অনেক নিষ্প্রা’ণ দেহে প্রা’ণের সঞ্চার হয়।

ওই হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার এহতেশাম আলি বলেছেন, নিঃশ্বা’স যায় যায় এমন অবস্থায় ওই রোগীকে হাসপাতা’লে নেয়া হয়েছিল। তার কাছে চিকিৎসক পৌঁছামাত্র তিনি মা’রা যান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ভাই’রাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জে’লা ম্যাজিস্ট্রেট শম্ভু কুমা’র ও মেডিকেল কলেজটির সিনিয়র চিকিৎসকরা রোগীর কাছে যান এবং তাকে পরীক্ষা করে দেখেন। মহারাজা সুহেলদেব মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ একে সাহনি রোববার বলেছেন, যখন ওই রোগীকে জরুরি বিভাগে নেয়া হয়, তখন তার পরিবার দাবি করেছে যে, তিনি মৃ’ত্যুশয্যায় আছেন।

চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা শুরু করতেই তিনি মা’রা যান। এই রোগীর যে দুই মে’য়ে তার মুখের সঙ্গে মুখ লাগিয়ে মায়ের দেহে শ্বা’স-প্রশ্বা’স চালু করার চেষ্টা করেছিলেন তাদের করো’না পরীক্ষা করা হয়েছে। একে সাহনি বলেছেন, তার হাসপাতলে অক্সিজেনের কোনো সঙ্কট নেই।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: