সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৪ অগাস্ট ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

মসজিদে নামাজ আদায়ে নতুন নির্দেশনা জারি

করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ আশ’ঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় দেশের সব ম’সজিদে জুমা ও ৫ ওয়াক্তের নামাজের আগে-পরে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এছাড়া আরো কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আজ বুধবার (৭ এপ্রিল) ধ’র্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সাখাওয়াৎ হোসেন স্বাক্ষরিত এক জরুরি বি’জ্ঞপ্তিতে এই আদেশ জারি করা হয়।

এতে ম’সজিদে নামাজ আদায়ে তিনটি বিষয় নিশ্চিত করতে অনুরোধ করা হয়েছে। এসব নিয়ম মেনে না চললে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে বি’জ্ঞপ্তিতে।

যেসব নিয়ম মেনে চলতে হবে এগুলো হলো-
১. জুমা ও অন্যান্য ওয়াক্তের নামাজ এবং প্রার্থনার আগে ও পরে ম’সজিদ ও অন্যান্য ধ’র্মীয় উপাসনালয়ে কোনোপ্রকার সভা ও সমাবেশ করা যাবে না।

২. ম’সজিদে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক তারাবিসহ অন্যান্য নামাজ আদায় করতে হবে এবং অন্যান্য ধ’র্মীয় উপাসনালয়ে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে প্রার্থনা করতে হবে।

৩. এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ২৯.০৩.২০২১ তারিখের প্রজ্ঞাপন এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ০৪-০৪-২০২১ তারিখের নির্দেশনা মোতাবেক ধ’র্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক ০৫.০৪.২০২১ তারিখের জারীকৃত সকল নির্দেশনা সংশ্লিষ্ট সকলকে মেনে চলতে হবে।

এর আগে করো’না সংক্রমণ প্রতিরোধে সোমবার ধ’র্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় আরো কিছু নির্দেশনা জারি করে। তাতে বলা হয়, করো’না মহামা’রির কারণে মু’সল্লিদের জীবনের ঝুঁ’কি বিবেচনা করে ম’সজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে এবং আগত মু’সল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরে ম’সজিদে আসতে হবে।

প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে, সুন্নাত নামাজ ঘরে আদায় করে ম’সজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

জামাতের সময় ম’সজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে সম্পূর্ণ ম’সজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিস্কার করতে হবে। মু’সল্লিরা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন।

জামাতে আগত মু’সল্লিদের অবশ্যই মাস্ক পরে আসতে হবে। ম’সজিদে রাখা জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না। নামাজ আদায়ের সময় কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে দাঁড়াতে হবে এবং এক কাতার অন্তর অন্তর কাতার করতে হবে।

শি’শু, বৃদ্ধ, যেকোনো ধরনের অ’সুস্থ ব্যক্তি এবং অ’সুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি জামাতে অংশগ্রহণ করবেন না। সর্বসাধারণের সুরক্ষার জন্য স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্থানীয় প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনীর নির্দেশনা অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে।

জামাত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পর হাত মেলানো যাবে না। নামাজ শেষে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করার জন্য খতিব ও ই’মামগণকে অনুরোধ করা হয়।

খতিব, ই’মাম, ম’সজিদ পরিচালনা কমিটি ও স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার কথাও বলা হয় এই নির্দেশনায়। এ ছাড়া পশু কোরবানির ক্ষেত্রে মৎস্য ও প্রা’ণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা যথাযথভাবে পালন করতে হবে।

করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ রোধে স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনী, জনপ্রতিনিধি, ইস’লামিক ফাউন্ডেশনের কর্মক’র্তা-কর্মচারী এবং সংশ্লিষ্ট ম’সজিদের পরিচালনা কমিটি এসব নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 270
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    270
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: