সর্বশেষ আপডেট : ৮ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ওমানে বাংলাদেশি যুবকের আত্মহত্যা, নেপথ্যে কী?

ওমানের রাজধানী মাস্কাটে বাংলাদেশি এক যুবক গলায় ফাঁ’স দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছেন। গত রোববার (২১ মা’র্চ) বিকেল ৩টায় পু’লিশ মাস্কাটের সিভ বাজারের বাসা থেকে তার ঝুলন্ত ম’রদেহ উ’দ্ধার করে।

মা’রা যাওয়া ওই যুবকের নাম মোহাম্ম’দ মনজুরুল আলম (২৫)। তিনি চট্টগ্রামের হাটহাজারীর উপজে’লার মির্জা’পুর ইউনিয়নের হাজির পুকুর পাড়ের আলী আহম’দের ছে’লে।

সিভ বাজারের বাংলাদেশিরা জানান, সেখানকার মোজাম্মেলের হার্ডওয়্যার দোকানে চাকরি করতেন মনজুরুল। একই উপজে’লার উত্তর মাদার্শার বাসিন্দা মোজাম্মেল ভিসার টাকা বাকিতে মনজুরুলকে দেড় বছর আগে ওমানে নিয়ে আসেন।

মনজুরুলের মা হোসনে আরা মোবাইল ফোনে জাগো নিউজের কাছে অ’ভিযোগ করেন, তার ছে’লেকে সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত দোকানে ডিউটি করাতেন মোজাম্মেল। দুপুরের খাবার খাওয়ার জন্য সামান্য সময় দিলেও আবারও দোকানে চলে যেতে হতো তাকে। রাতে থাকার জন্য তার রুম দিয়েছিলেন দোকানের গোডাউন। ওই গোডাউনে প্রবেশের পর বাইরে থেকে তালাবন্ধ করে দেয়া হতো মনজুরুলকে। দোকান আর গোডাউন ছাড়া কখনো বাইরে যাওয়ার সুযোগ ছিল না মনজুরুলের।

মনজুরুলের মা বলেন, ‘ভিসার টাকা কাটছে বলে ঠিকমত বেতনও দেয়া হতো না। মাঝে মধ্যে অল্প কিছু টাকা দিত। বারবার দেশে চলে আসার জন্য কাঁদতো মনজুরুল। আমি বলতাম, কোনোভাবে দুই বছর ধৈর্য ধরে থাক।’

মনজুরুলের একটি ফোনালাপ রেকর্ড প্রতিবেদকের হাতে এসেছে। যেখানে এক বন্ধুর কাছে তার ক’ষ্টের কথা বলতে শোনা যায় মনজুরুলকে। এমনকি তার খাবারের টাকাও নেই বলার পরও দোকানের মালিক তাকে বেতন দিচ্ছেন না জানিয়ে সেই আক্ষেপ করছিলেন মনজুরুল।

ওমানে বসবাসকারী মনজুরুলের বন্ধু দিদার বলেন, ‘মা’রা যাওয়ার একদিন আগেও তার সঙ্গে আমা’র কথা হয়। সে তার ক’ষ্টের কথা আমাকে বলতো। এমনও দিন গেছে সকালে নাস্তা করার টাকাও তাকে দেয়া হত না। না খেয়ে চাকরি করেছে সে। দেশে চলে যেতে চাইলে বলা হত, ‘ভিসার সব টাকা আর বিমানভাড়া দে তারপর যেতে পারবি’। আমা’র বন্ধুকে মানসিক অ’ত্যাচার করে আত্মহ’ত্যা করতে বাধ্য করা হয়েছে।’

এসব বিষয়ে জানতে দোকানের মালিক মোজাম্মেলের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। দোকানে থাকা তার ছে’লে মোশারফের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাবা দেশে গেছেন। মৃ’ত্যুর খবরটি শোনার পর তিনি ওমানে আসছেন বলে জানিয়েছেন। তারপর থেকে আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।’

অবশ্য একটি সূত্র জানায়, তিনি মোজাম্মেল গতকালই ওমানে এসেছেন। বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। মনজুরুলের আত্মহ’ত্যার বিষয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এদিকে পু’লিশ ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ম’র্গে নিয়ে যায়। সেখানে করো’নার নমুনা সংগ্রহ করলে তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

ওমান সরকারের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, ম’রদেহে করো’না শনাক্ত হলে দূতাবাসকে অবহিত করে পরিবারের সম্মতির অ’পেক্ষা না করে সঙ্গে সঙ্গে দাফন করা হয়। মঙ্গলবারই (২৩ মা’র্চ) আম’রাত কবরস্থান প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে তার ম’রদেহ দাফন করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: