সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২ অগাস্ট ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

বিয়ানীবাজারে ক্ষোভ থেকেই নাজমিনকে হত্যা করে ঘাতক পাশা

বিয়ানীবাজার উপজে’লা শেওলা ইউনিয়নের বালি’ঙ্গা গ্রামের দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী নাজমিন আক্তার (১৬) কে গত মঙ্গলবার বাড়িতে একা পেয়ে পুর্ব শত্রুতার সূত্রপাতে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেন ঘা’তক নাজিম উদ্দিন (২৩) নামের এক যুবক। গতকাল বুধবার সকালে নাজিম উদ্দিন পাশাকে আ’দালতে পাঠানো হলে সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আ’দালতের বিচারক লায়লা মেহের বানুর কাছে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেয় সে। জবানব’ন্দিতে পাশা খু’নের কথা স্বীকার করেন।

জানা গেছে, আ’দালতের স্বীকারোক্তিতে নাজনিন আক্তারের সাথে দুই বছর ধরে প্রে’মের স’ম্পর্ক ছিল বলে জানায় বখাটে নাজিম উদ্দিন পাশা। সে আরও জানায়, তবে মাস তিনেক পূর্বে তাদের সেই স’ম্পর্কে ফাটল ধরে যায়। অন্যদিকে, সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরে নাজনিনের পরিবারে তার বিয়ে নিয়ে কথাবার্তা চলছিল। এ নিয়ে নাজনিন আক্তার ও নাজিম উদ্দিন পাশার মধ্যে এক ধরনের দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। পরে পারবারিকভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হলে নাজনিন উত্তেজিত হয়ে সকলের সামনেই নাজিম উদ্দিন পাশাকে বর্ণবাদ নিয়ে অ’পবাদ ও কটাক্ষ করে এবং এতে অ’পমানিত বোধ করে নাজিম উদ্দিন পাশা। তাছাড়া সম্প্রতি নাজিম উদ্দিনকে দেখে প্রায়ই ব্যঙ্গ করে কথাবার্তা বলতো ও টিট’কারি করতো নাজনিন। এ নিয়েই মূলত নাজিম উদ্দিন পাশার মধ্যে ক্ষোভ জমে এবং সর্বশেষ মঙ্গলবার সকালে বাড়ির বাসিন্দাদের অগোচরে নাজনিনকে একা পেয়ে জবাই ও কু’পিয়ে হ’ত্যা করে পালিয়ে যায় সে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নি’হত নাজমিন বাড়িতে একা বসে টিভি দেখা অবস্থায় বাড়িতে প্রবেশ করে কু’পিয়ে জ’খম করে। ফলে ঘটনাস্থলেই নাজমিনের মৃ’ত্যু হয়। ঘটনার পর থেকে নাজিম পলাতক থাকলেও পু’লিশের সাড়াশি অ’ভিযান মাত্র ৯ ঘন্টার মধ্যে তাকে আ’ট’ক করে আ’দালতে প্রেরন করা হয়।

শেওলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহুর উদ্দিন বলেন, আমা’র এলাকায় এরকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা সত্যি দুঃখজনক। অ’প’রাধীর সর্বোচ্চ শা’স্তি ফাঁ’সি কার্যকর করার জো’র দাবি জানাই সেই সাথে দ্রুত সময়ের মধ্যে অ’প’রাধীকে গ্রে’প্তার করাই থা’না পু’লিশকে ধন্যবাদ জানাই৷

বিয়ানীবাজার থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন, হ’ত্যা করে দা রেখে পালিয়ে যান নাজিম। বাড়িতে থাকা দুই নারী সদস্য নাজিমের পালিয়ে যাওয়া দেখে ফেলেন। এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর দুপুর ১২টা থেকে টানা সাত ঘণ্টা অ’ভিযান চালিয়ে নাজিমের অবস্থান নিশ্চিত করে পু’লিশ। পু’লিশ সুপার ও সার্কেল এএসপির নির্দেশনায় এলাকাবাসীকে নিয়ে নাজিমকে আ’ট’ক করা হয়। আ’ট’কের পর নাজিম পু’লিশের কাছে হ’ত্যার কথা স্বীকার করেছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: