সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তিনদিনে ২ খুন!

নিজ মাতৃভূমি মিয়ানমা’র থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে মানবিক আশ্রয় পাওয়া রোহিঙ্গারা ক্রমশ দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে হু’মকিতে পরিণত হচ্ছে। কক্সবাজারের উপকূলীয় শরণার্থী শি’বিরগুলোতে বর্তমানে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বসবাস করছে।

ইয়াবা, মানব পাচার ও হাটবাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শি’বিরের অভ্যন্তরে একাধিক রোহিঙ্গা স’ন্ত্রাসী গোষ্ঠী মা’থাচাড়া দিয়ে উঠেছে। বাড়ছে হা’মলা ও সং’ঘর্ষের ঘটনা। চলছে অ’স্ত্রের মহড়াও। বাড়ছে খু’ন, অ’পহ’রণ, ধ’র্ষণ, মা’দক চো’রাচালানসহ নানা অ’প’রাধও।

টেকনাফের ক্যাম্পে মাত্র তিনদিনের ব্যবধানে দুটি অ’প্রত্যাশিত হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। অ’পহ’রণ করে হ’ত্যা, শি’শুদের ঝগড়ার জেরের মতো তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এ দুটি হ’ত্যাকা’ন্ড সংগঠিত হয়। এ দুই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ আ’ট’ক অথবা গ্রে’প্তার হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার (৪ মা’র্চ) ৮টার দিকে টেকনাফের জাদিমোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শি’শুদের ঝগড়ার জেরধরে মামা-ভাগিনার লা’ঠির আ’ঘাতে হাসান আহমেদ নামের এক রোহিঙ্গা পিতা নি’হত হয়েছেন। তিনি ২৭নং জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের বি-৬ ব্লকের ঠান্ডা মিয়ার ছে’লে।

এর আগে বিকেলে, ২৭নং জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের বি-৬ ব্লকের হাসান আহমেদের বাড়ির আঙ্গিনায় তার (হাসানের) ও প্রতিবেশী ইলিয়াছের শি’শুরা খেলা করছিল। খেলার মাঝে দু’পরিবারের শি’শুদের মাঝে ঝগড়া হলে বয়োবৃদ্ধ রোহিঙ্গারা শি’শুদের থামিয়ে দিয়ে যার যার বাড়ি পাঠিয়ে দেন।

মাগরিবের নামাজের পর হাসান তার ছে’লেদের মা’রধর করার বিচার চেয়ে একই ক্যাম্পের ইলিয়াস নামের রোহিঙ্গার ঘরে সালিশ দিতে যায়। তখন ইলিয়াস ও তার ভাই সালিশ দিতে আসা হাসানের সাথে কথা কা’টাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তারা হাতাহাতিতে জড়ায়। তখনও উপস্থিত রোহিঙ্গারা তাদের থামিয়ে পৃথক করে দেয়।

ঘটনার পর রাত ৮টার দিকে হাসান আহম’দ রাস্তা দিয়ে হেটে যাবার সময় ইলিয়াস এবং তার ভাই নুর হোসেন লা’ঠি দিয়ে হাসানের মা’থায় আ’ঘাত করলে মা’থা ফেটে র’ক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটে পড়ে হাসান।

তাকে তাৎক্ষণিক উ’দ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পার্শ্ববর্তী ক্যাম্প হাসপাতা’লে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতা’লে রেফার করা হয় সেখানে রাত ১২টারদিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোহিঙ্গা হাসান মা’রা যান।

সর্বশেষ শুক্রবার (৫ মা’র্চ) টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড় থেকে নি’খোঁজের তিন দিন পর শাহিনা নুর (৮) নামের এক রোহিঙ্গা কি’শোরীকে নয়াপাড়া নিবন্ধিত মৌচনি সি ব্লকের ক্যাম্পের পাহাড়ি এলাকা থেকে হাত কা’টা লা’শ উ’দ্ধার করেছে আর্মড পু’লিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্যরা। শাহিনা নুর এই ক্যাম্পের বি ব্লকের বাসিন্দা মো. জোবাইরের মে’য়ে।

এরআগে গত ১ মা’র্চ ক্যাম্প থেকে দিনের বেলার ঘর থেকে বের হয়ে নি’খোঁজ হয় শাহিনুর নুর। পরে তাকে সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্বজনেরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় রোহিঙ্গাদের সহতায় তার লা’শ উ’দ্ধার করে পু’লিশ সদস্যরা।

এসময় তার চেহেরা বি’কৃত ছিল। নি’র্মমভাবে কি’শোরীকে হ’ত্যা করা হয়েছে। এমনকি তার বাম হাত কে’টে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হয়েছে। লা’শের বিভিন্ন জায়গায় আ’ঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দায়ীত্বে থাকা ১৬ এপিবিএন পু’লিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসপি মো. তারিকুল ইস’লাম তারিক বলেন, এই নৃ’শংস ঘটনায় জ’ড়িতদের বি’রুদ্ধে মা’মলা দায়ের করা হলেও অ’প’রাধীরা আত্মগো’পনে চলে যাওয়ায় তাদের আ’ট’ক করা যায়নি। তবে অ’ভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান এই কর্মক’র্তা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: