সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

কুড়িগ্রামে জামিনে মুক্ত হয়ে ব্যবসায়ীকে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান

সাংবাদিককে হত্যা চেষ্টার মামলায় গ্রেফতার হওয়ার ১০ দিন পর জামিনে মুক্ত হয়ে এসে আবারও এক ব্যবসায়ীকে পেটালেন কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একেএম মাহমুদুর রহমান রোজেন। সেইসাথে শতাধিক মানুষকে সাথে নিয়ে বাসস্ট্যান্ড থেকে শুরু করে বাজার পর্যন্ত এলাকায় মিছিল করে ঘণ্টাব্যাপী শো-ডাউন করেছেন।

বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) জামিনে মুক্ত হয়ে রাত পৌনে ৮টার দিকে জেলা সদর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরের উপজেলা সদরে আসেন। এরপর মিছিল করে শো-ডাউন করেন। এ সময় বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী মহাদেব চন্দ্র সাহাকে দোকান থেকে বের করে নিয়ে এসে মারধর করেন। এছাড়া ফখরুজ্জামান নামের অপর এক ব্যক্তিকে মারধর করার পাশাপাশি পাবলিক ক্লাবের দরজা ভাংচুর করেন তিনি বলে জানিয়েছেন ভূরুঙ্গামারী প্রেস ক্লাবের সভাপতি আনোয়ারুল হক।

তিনি আরও জানান, মারপিটে গুরুতর আহত ব্যবসায়ী মহাদেব চন্দ্র সাহাকে প্রথমে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হলে রাত ১০টার দিকে তাকে রংপুরের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত ১১ ডিসেম্বর বিকেলের দিকে ভূরুঙ্গামারী বাজারে এসএম ডিজিটাল ক্যাবেল নেটওয়ার্কের ফিডারের ডিস সংযোগ পরিবর্তন করছিলেন মজনু ও আব্দুল কাদের। এ সময় আকস্মিকভাবে ইউপি চেয়ারম্যান একেএম মাহমুদুর রহমান রোজেন সেখানে এসে ওই দু’জনকে মারধর করেন। এ খবর শোনার পর প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক, দৈনিক খোলা কাগজের প্রতিনিধি এবং এসএম ডিজিটাল ক্যাবেল নেটওয়ার্কের স্বত্বাধিকারী এমদাদুল হক মন্টু সেখানে আসলে ওই চেয়ারম্যান বিনা উস্কানিতে কংক্রিটের ভারী খণ্ড দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন। এতে এমদাদুল হক মন্টুর মাথার মাঝখানে ফেটে এবং থেঁতলে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৩ ডিসেম্বর রাতে একেএম মাহমুদুর রহমান রোজেনকে আসামি করে তার বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টায় মাথায় গুরুতর জখমের অভিযোগ এনে থানায় মামলা দায়ের করেন এমদাদুল হক মন্টু। এরই প্রেক্ষিতে ১৪ ডিসেম্বর কেএম মাহমুদুর রহমান রোজেনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।

একেএম মাহমুদুর রহমান রোজেন জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে লাঙ্গল মার্কা প্রতীক নিয়ে ভূরুঙ্গামারী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এ প্রসঙ্গে ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. আতিয়ার রহমান জানিয়েছেন, জামিনে মুক্ত হয়ে এসে শতাধিক ব্যক্তিকে সাথে নিয়ে বাজারে শো-ডাউন এবং ব্যবসায়ীকে মারধরের মারধর করার ঘটনা ঘটিয়েছেন সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একেএম মাহমুদুর রহমান রোজেন। এ অবস্থায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। সূত্রঃ সময় নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: