সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিনহা হত্যা মামলার আসামিদের রিমান্ড নিয়ে গড়িমসি

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামিদের রিমান্ডে নিতে পারেনি র্যাব। বৃহস্পতিবার এ মামলায় চার পুলিশ সদস্য এবং ওই ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার তিন সাক্ষীকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিতে গেলেও ফেরত আসে র্যাব।

এ মামলার আসামি ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, এসআই লিয়াকতসহ বাকি তিনজনকেও র্যাবের রিমান্ডে নেয়া হয়নি।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে র্যাবের একটি দল সাত আসামিকে রিমান্ডে নিতে কক্সবাজার জেলা কারাগারে আসলেও আধা ঘণ্টা অবস্থান করে কারাগার থেকে ফেরত যান তারা।

কক্সবাজার জেলা কারাগারের সুপার মোহাম্মদ মোকাম্মেল হোসেন জানান, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার সাত আসামি বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে র্যাব রিমান্ডে নেয়ার জন্য আসে। পরে র্যাব সদস্যরা জেলগেইট থেকে ফেরত যান।

তবে কী কারণে তারা ফেরত গেছেন সে ব্যাপারে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

বৃহস্পতিবার র্যাব যাদের রিমান্ডে নিতে এসেছেন তারা হলেন, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কনস্টেবল কামাল হোসেন, কনস্টেবল আবদুল্লাহ আল মামুন ও এএসআই লিটন মিয়া, পুলিশ দায়েরকৃত মামলার সাক্ষী মো. নুরুল আমিন, মো. নেজামুদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াজ।

৬ আগস্ট আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর রিমান্ডের আদেশ হলেও টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ লিয়াকত কারাগারে রয়েছেন। সব মিলিয়ে এ মামলায় রিমান্ড পাওয়া ১০ জন কারাগারে আছেন।

তাদের যেকোনো সময় কারাগার থেকে র্যাব হেফাজতে রিমান্ডে নেয়া হবে।

৩১ জুলাই রাত ১০টার দিকে টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান। এ ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

৫ আগস্ট ওসি প্রদীপ ও দায়িত্বরত পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ নয়জনকে আসামি করে সিনহার বোন কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলার পর নয় পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়। মামলাটি তদন্ত করছে কক্সবাজার র্যাব-১৫।

ওই মামলায় ওসি প্রদীপসহ তিনজনকে সাত দিনের রিমান্ড ও অন্য আসামিদের দুদিন করে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত। একই ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় ৯ আগস্ট সিনহার সহযোগী শিপ্রা দেবনাথ ও ১০ আগস্ট সাহেদুল ইসলাম সিফাত জামিনে কারাগার থেকে মুক্তি পান।সূত্র : দেশ রূপান্তর

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 125
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    125
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: