সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

করোনাকালে লেবু কেন খাবেন? জেনে নিন ৮টি কারণ

নানা রকম সংক্রমণ ও অসুখ-বিসুখ দূরে রাখতে সাহায্য করে ভিটামিন সি। আর লেবু যে ভিটামিন সি-এর ভালো উৎস সে কথা এখন সবারই জানা। বিশেষ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে হলে এর উপকারিতা অনেক। এর পিএইচ-এর মাত্রা মানবশরীরের জন্য বেশ ভালো, সঙ্গে ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট-সহ অন্যান্য উপাদান খুবই উপকারী।

দেখে নেওয়া যাক উপকারিতাগুলি ঠিক কী কী?

১। জলের ঘাটতিতে
প্রতি দিন মহিলাদের শরীরে কম করে ৯১ আউন্স এবং পুরুষদের কমপক্ষে ১২৫ আউন্স জলের প্রয়োজন। এই জল শরীর পায় পানীয়, খাবার যা কিছু আমরা খাই তার থেকেই। লেবু খেলে সেই চাহিদা অনেকটাই পূরণ হয়ে যায়। ফলে এটি শরীরকে হাইড্রেট করতে সাহায্য করে।

২। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট
সাইট্রাস জাতীয় ফল লেবু। ভিটামিন প্রচুর সি থাকে। ভিটামিন সি-তে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা কোষকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে। যে কোনো রোগের সঙ্গে লড়াই করার জন্য প্রাথমিক শক্তি গড়ে তোলে।

৩। ভিটামিন সি-এর চাহিদায়
একটি লেবুর রস প্রায় ১৮.৬ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি সরবরাহ করে। একজন প্রাপ্তবয়স্কের শরীরে দিনে ৬৫ থেকে ৯০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি-এর প্রয়োজন। যা লেবু থেকে অনায়াসে পাওয়া যায়। লেবুতে থাকা ভিটামিন সি কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ, স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা কমায়। উচ্চ রক্তচাপকে হ্রাস করে।

৪। মেদ কমাতে
লেবুর রস খেলে ওজন কমবেই কমবে। কারণ লেবুতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে ক্ষতিকর মেদ জমতে দেয় না। অতিরিক্ত মেদকে ঝরিয়ে দেয়। তবে তা সঠিক নিয়মে খেতে হয়।

৫। শরীরের কলকবজায়
উষ্ণ গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে তা পাচনতন্ত্রকে সক্রিয় করতে সহায়তা করে। লেবুর টক স্বাদ অগ্নাশয়কে উদ্দীপিত করে। হজম প্রক্রিয়াকে ঠিক রাখে, ফলে খাবার সহজে হজম হয়। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। শরীরে টক্সিন উৎপন্ন হয় না।

৬। মুখের বদগন্ধে
মুখের দুর্গন্ধ নিয়ে বিব্রত হন অনেকেই। এ থেকে মুক্তি দিতে পারে লেবু। খাওয়ার পরে এক গ্লাস লেবুর জল খেলে মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়। লেবুর রস ব্যাকটেরিয়াজনিত দুর্গন্ধ দূর করে।

৭। সাইট্রিক অ্যাসিড
লেবুতে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড কিডনিতে পাথর হতে দেয় না। লেবুর রস প্রসাবের অ্যাসিড ভাব কম করে।

৮। তারুণ্যে
লেবুতে থাকা ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ইত্যাদি উপাদানগুলি বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না। তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। ত্বককে চকচকে ও টানটান করে।

এই সমস্ত কিছুই সার্বিক ভাবে শরীরকে সংক্রমণে ও তার ফলে হওয়া নানান ব্যাধি থেকে বাঁচার জন্য প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সাহায্য করে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: