সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

করোনায় মৃত ৮৯ জনের লাশ দাফন করলেন কাউন্সিলর খোরশেদ

কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতিতে নারায়ণগঞ্জবাসীর আশার বাতিঘর সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের লাশ দাফন করে আসছেন তিনি। নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়েই এ কাজ করে যাচ্ছেন খোরশেদ। সংক্রমিতদের পাশে দাঁড়াতে গিয়ে সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

তবুও থেমে নেই তার কার্যক্রম। এখনও খবর পেলে ছুটে যান লাশ দাফনে। এ পর্যন্ত ৮৯ জনের মৃতদেহ দাফন করেছে টিম খোরশেদ-১৩ টিম। তারা ধর্মীয় ও স্বাস্থবিধি মেনে মৃত ব্যক্তির গোসল করানো থেকে দাফন পর্যন্ত যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে আসছে।

বৃহস্পতিবার ৮৯তম করোনা পজিটিভ মৃতদেহ দাফন করে দলটি। ৮৯ তম ব্যক্তি খোরশেদের বন্ধু ইমতিয়াজ শাকিল। কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের এই ডিজিএম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

এদিকে করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষ রোগীদের বাঁচাতে টিম খোরশেদ-১৩ প্লাজমাও দান করে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার দলটির প্রচেষ্টায় ৩১ ও ৩২ তম প্লাজমা দেয়া হয়। সাজেদা হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত চৈতীকে ২০০ এমএল ও পজিটিভ প্লাজমা দেন তারা।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, করোনা আক্রান্তদের বাঁচাতে আমি নিজেও প্লাজমা দিয়েছি। এটি রক্তদানের চেয়েও সহজ কাজ। করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষ রোগীকে প্লাজমা দিলে হয়তো আল্লাহর রহমতে তিনি জীবন ফিরে পেতে পারেন। আমরা সবাইকে আহ্বান করছি প্লাজমা দিন, জীবন বাঁচান।সূত্র : যুগান্তর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: