সর্বশেষ আপডেট : ১৪ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ইতালিতে কমতে শুরু করেছে মৃতের সংখ্যা

চীনের উহান শহর থেকে শুরু হওয়া করোনাভাইরাসে বিপর্যস্থ ইতালি। মারাত্মক আকার ধারণ করা মহামারি করোনাভাইরাসে ইতালিতে মৃত্যুর মিছিল যেন থামছে না।জনগণকে সুরক্ষা দিতে ইতালি সরকার করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। রবিবার ষ্টার সানডের বিশেষ প্রার্থনায় পোপ ফ্রান্সিস করোনাভাইরাসে নিহতদের স্বরনে এক মিনিট নিরাবতা পালন করেন।

রবিবার (১২ এপ্রিল ) মৃত্যুর মিছিলেযোগ হলো আরো ৪৩১ জন, যা গত ১৯ মার্চের পরে সবচেয়ে কম। শনিবার এ সংখ্যা ছিলো ৬১৯ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১৯হাজার ৮৩২ জন। এদিন নতুন আক্রান্ত ৪ হাজার ৯২ জন। দেশটিতে গুরুতর অসুস্থ রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। গুরুতর অসুস্থ রোগির সংখ্যা ৩ হাজার ৩৪৩জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে১৬৭৭জন। চিকিৎসাধীন এক লক্ষ ২ হাজার ২৫৩ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক লাখ ৫৬ হাজার ৩৬৩ জন বলে জানিয়েছেন নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেল্লি।

তিনি বলেন, জনগণকে সুরক্ষা দিতে সরকার করোনা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। ফলে এ পর্যন্ত চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩৪ হাজার ২১১ জন।

ইতালির ২১ অঞ্চলের মধ্যে লোম্বারদিয়ায় করোনার সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত (মিলান, বেরগামো, ব্রেসিয়া, ক্রেমনাসহ) ১১টি প্রদেশ। আজ এ অঞ্চলে মারা গেছে ১১০ জন,যা গত এক মাসে সবচেয়ে কম।শুধু এ অঞ্চলেই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দশ হাজার ৬২১ জনে দাঁড়িয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৯ হাজার ৫২ জন। আজ মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪৬০ জন ।আজ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩৪৩ জন।মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১৭হাজার ১৬৬ জন।

দেশজুড়ে জরুরি নয় এমন সব ধরনের ব্যবসা বন্ধ রছেছে। এছাড়া বাড়ির বাইরে সবধরনের খেলাধুলা ও ব্যায়াম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি ভেন্ডিং মেশিনের ব্যবহারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সুপার মার্কেট, ফার্মেসি, পোস্ট অফিস ও ব্যাংক এবং গণপরিবহন এখন পর্যন্ত সচল রাখা হয়েছিল। এদিকে লকডাউনের মেয়াদ তৃতীয় দফায় বাড়িয়ে ৩ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। সেই সাথে আগামী ১৪ এপ্রিল থেকেবইয়ের দোকান, শিশুসামগ্রী সরবরাহকারী, কাঠ কোম্পানিগুলোর মত পন্যের দোকান খুলে দেয়া হবে বলেঘোষনা দেন প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তে।

এদিকে লোম্বারদিয়ার প্রসিডেন্ট আত্তিলিয়ো ফোনতানা বলেন,নতুন আইন লোম্বারদিয়ার জন্য কার্যকর হবেনা।

বইয়ের দোকান, শিশুসামগ্রী সরবরাহকারী, কাঠ কোম্পানিগুলোর মত পন্যের দোকান এ অঞ্চলে বন্ধ থাকবে।এদিকে লোম্বারদিয়ার মত একই ঘোষনা দিয়েছেন পিয়েমোন্তের প্রসিডেন্ট জাইয়া।বইয়ের দোকান, শিশুসামগ্রী সরবরাহকারী, কাঠ কোম্পানিগুলোর মত পন্যের দোকান এ অঞ্চলে বন্ধ থাকবে বলে রবিবার তিনি ঘোষনা দেন।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তের আহবানে সাড়া দিয়ে দেশের এই দুর্দিনে প্রায় আট হাজার অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তার, নার্স ও অ্যাম্বুলেন্স কর্মী স্বাস্থ্যসেবা দিতে করোনা আক্রান্তদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।শনিবার তিউনিশিয়ার একটি মেডিকেল টিম চিকিৎসকা সামগ্রী নিয়ে ইতালিতে এসেছেন। এছাড়াও করোনায় আক্রান্তদের সহযোগিতায় কাতার,আলবেনিয়া, চীন ,কিউবা এবং রাশিয়া থেকে আগত মেডিকেল টিম ইতালির বিভিন্ন অঞ্চলে আক্রান্তদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: