সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ৩২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

১৮ জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে ১৫৬৫ জন

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। বাংলাদেশেও করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এ সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। বাড়ছে আতঙ্ক। ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। গণপরিবহনে চলাচলের ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছে। বিদেশফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সারাদেশে করোনা সতর্কতায় দেড় সহস্রাধিক মানুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী মাদারীপুরে ১২৯ জন, বরিশালে ২৬, সিরাজগঞ্জে ১৮, নওগাঁয় ৮৮, নেত্রকোনায় ৪, রাজবাড়ীতে ৩১, সাতক্ষীরায় ১৩, পটুয়াখালীতে ১৬, মানিকগঞ্জে ৩২৭, শরীয়তপুরে ২১০, ঝিনাইদহে ২৩৫, চাঁদপুরে ১৭৪, মৌলভীবাজারে ১১৩, কিশোরগঞ্জে ১৩৮, সুনামগঞ্জে ১০, বরগুনায় ৮, নারায়ণগঞ্জে ২৩ ও সিলেটে দুজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

মাদারীপুর : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মাদারীপুরে ১২৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন ও একজনকে আইসোলেশনে রাখা রয়েছে। গত কয়েকদিনে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর ১৩৮ জনকে রিলিজ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুরে মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. শফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ অমান্য করবে তাদের ব্যাপারে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরিশালে : বরিশালে ভারতীয় নাগরিকসহ ২৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গত রোববার (১৫ মার্চ) পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ছিল ১২ জন। মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সকাল ৮টা পর্যন্ত তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬ জনে।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক বাসুদেব কুমার দাস বলেন, এই ২৬ জন ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে থাকবেন। এ সময় বাইরে চলাফেরা ও পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে মেলামেশা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদেরও চলাফেরা সীমিত করা হয়েছে। বিশেষ করে পরিবারের সদস্যদের নিজ ঘর ও আঙিনা পর্যন্ত এলাকায় চলাফেরা সীমাবদ্ধ রাখতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা সার্বক্ষণিক তাদের স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিচ্ছেন।

নেত্রকোনা : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে নেত্রকোনায় বিদেশফেরত চারজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন নারী রয়েছেন। ওই চারজনের মধ্যে তিনজন ইতালিফেরত ও একজন চীনফেরত।

নেত্রকোনার সিভিল সার্জন মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ইতালি ও চীনফেরত ওই ব্যক্তিদের শরীরে কোনো করোনাভাইরাসের লক্ষণ নেই। এখন পর্যন্ত তারা সম্পূর্ণ সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছেন। তারপরও সতর্কতা হিসেবে তাদেরকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। এর মধ্যে প্রায় সপ্তাহ খানেক চলে গেছে।

নওগাঁ : নওগাঁর ১০ উপজেলায় বিদেশফেরত মোট ৮৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বাড়িতে অবস্থানের পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নওগাঁর সিভিল সার্জন ডা. আখতারুজ্জামান আলাল।

তিনি বলেন, বিদেশফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তাদেরকে বাইরে ঘোরাফেরা না করে বাড়িতে অবস্থানের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। ১৪ দিনের মধ্যে যদি তাদের শরীরে কোনো উপসর্গ দেখা দেয় তাহলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রাজবাড়ী : গত ২৪ ঘণ্টায় রাজবাড়ীতে নতুন করে ১১ জনকে হোম কোয়ারেন্টানে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে রাজবাড়ীতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন মোট ৩১ জন প্রবাসী। এরা ইতালি, চীন, অস্ট্রেলিয়া, মালদ্বীপ, কাতার, সাউথ কোরিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন।

রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলাম জানান, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা সবাই সুস্থ আছেন। সবাইকে সচেতন থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে কোনো রোগী ভর্তি হয়নি। সদর হাসপাহালসহ প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫টি করে আইসোলেশন বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

সাতক্ষীরা : সর্দি-কাশি থাকায় সাতক্ষীরায় ১৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। সোমবার (১৬ মার্চ) বিকেল থেকে তাদের কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়।

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত জানান, সাতক্ষীরায় ১৩ জনকে ইতোমধ্যে কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। এ সংখ্যা আরও বাড়বে। এসব ব্যক্তিদের আমরা বিশেষ নজরদারির মধ্যে রেখেছি। তারা যেন বাইরে ঘোরাফেরা না করে সেজন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এসব ব্যক্তিদদের ওপর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও গ্রাম পুলিশকে নজরদারি রাখতে বলা হয়েছে। কেউ নির্দেশনা অমান্য করলে তাকে শাস্তির আওতায় আনা হবে।

সিরাজগঞ্জ : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সিরাজগঞ্জে ১৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুরে সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বেলকুচি উপজেলায় পাঁচজন, রায়গঞ্জে তিনজন, কাজীপুরে একজন ও উল্লাপাড়া উপজেলার ৯ জন রয়েছেন। তাদের শরীরে করোনার কোনো লক্ষণ না থাকলেও সতর্কতার জন্য ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এছাড়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ে একটি এবং প্রতিটি উপজেলায় একটি করে মোট ১০টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।

পটুয়াখালী : পটুয়াখালীতে বিদেশফেরত আরও আটজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে সিঙ্গাপুর থেকে দুজন, সৌদি আরব থেকে একজন, ইতালি থেকে একজন, নেদারল্যান্ডস থেকে চারজন সম্প্রতি দেশে ফেরেন।

পটুয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গত ১০ থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত ১৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো বিদেশফেরতদের লিস্ট অনুসারে আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করছি।

মানিকগঞ্জ : গত ২৪ ঘণ্টায় মানিকগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টাইনে যুক্ত হয়েছে বিদেশ ফেরত আরও ৯৩ জন ব্যক্তি। এ নিয়ে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুর পর্যন্ত জেলায় মোট ৩২৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তবে ১৪ দিনের পর্যবেক্ষণ শেষে গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ জন প্রবাসীকে কোয়ারেন্টাইন মুক্ত করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। জেলায় এখন পর্যন্ত কোনো করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী নেই। কোয়ারেন্টাইনে থাকা সবাই সুস্থ আছেন। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা যারা অমান্য করবেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতোমধ্যে সাটুরিয়া উপজেলায় ইরাক ও সৌদি আরব ফেরত দুই ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানাও করেছেন।

শরীয়তপুর : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে শরীয়তপুরে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুর পর্যন্ত মোট ২১০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ১৪ দিন পার হওয়ার পর ৩৩ জনকে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন ডা. এস এম আব্দুল্লাহ্ আল মুরাদ জানান, শরীয়তপুরের অনেকেই ইতালি প্রবাসী হওয়ায় জেলার মানুষ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। যারা বিদেশ থেকে আসছেন তাদেরকে হোম কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হচ্ছে। বর্তমনে ২১০ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। হোম কোয়ারেন্টাইন না মানায় শরীয়তপুর সদর উজেলার কানার বাজার এলাকার সৌদি আরব প্রবাসী লিটন বেপারী নামে একজনকে ৫ হাজার টাকা জরিমান করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ঝিনাইদহে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) নতুন করে বিদেশ ফেরতসহ ২৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে বিদেশ ফেরত ও তাদের পরিবারের সদস্যরাও রয়েছেন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ইতালি, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর ও ভারত ফেরত ৪৬ জনসহ মোট ২৩৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হলো।

ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম বলেন, বিদেশফেরত ব্যক্তি ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার স্বার্থে এ পর্যন্ত ২৩৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি।

চাঁদপুর : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চাঁদপুরে বিদেশফেরত ১৭৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াতউল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মৌলভীবাজার : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মৌলভীবাজারে ১১৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। জেলার কুলাউড়া, কমলগঞ্জ, শ্রীমঙ্গল ও বড়লেখা উপজেলায় ইতালি, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যফেরতদের সঙ্গে তাদের কয়েকজন নিকট আত্মীয়ও রয়েছেন। তবে তাদের মধ্যে এখনও করোনার কোনো লক্ষণ বা উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা. তউহীদ আহমদ বলেন, আমরা সার্বক্ষণিক তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। এরপরও এমন কেউ থাকলে তথ্য পাওয়া মাত্র আমরা ব্যবস্থা নেব।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে মৌলভীবাজারে ১১৬টি বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেখানে করোনা রোগী পাওয়া গেলে চিকিৎসা দেয়া হবে।

কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জে করোনাভাইরাস সন্দেহে ১৩৮ জনকে কোয়ারেনটাইনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে জেলার অষ্টগ্রামে ১২ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বাকিরা হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তবে ভৈরবে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা ৬৯ জনকে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত কাউকে পাওয়া যায়নি।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এখন পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২০ জন, ভৈরবে ৬৯, কুলিয়ারচরে ১২, অষ্টগ্রামে ১২, মিঠামইনে ১২, ইটনায় দুইজন, বাজিতপুরে দুইজন, কটিয়াদীতে আটজন ও তাড়াইলে একজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জে ইতালি, স্পেন ও ওমান থেকে আসা ১০ প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গত শনিবার (১৪ মার্চ) ও রোববার (১৫ মার্চ) বিদেশ ফেরত এ সকল প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন।

তিনি জানান, বিদেশ থেকে আসা ওই ১০ জনের বাড়ি সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর, দোয়ারাবাজার ও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায়। তাদের মধ্যে কেউ নিজ উদ্যোগে আবার কারও তথ্য সোর্সের মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তবে তারা সুস্থ রয়েছেন। এখন পর্যন্ত তাদের মধ্যে করোনার কোনো উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

বরগুনা : বরগুনায় সদ্য বিদেশফেরত আটজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে (১৭ মার্চ) বরগুনার সিভিল সার্জন ডা. হুমায়ূন শাহিন খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বরগুনায় এখন পর্যন্ত আটজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তারা অতি সম্প্রতি বিভিন্ন সময়ে দেশের বাহিরে থেকে এসেছেন। এদের মধ্যে দুজন এসেছেন পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে এবং একজন এসেছেন লেবানন থেকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকাদের মধ্যে বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় দুইজন, বামনা উপজেলায় দুইজন এবং বরগুনা সদর উপজেলায় চারজন রয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে এক চীনা নাগরিকসহ বিদেশফেরত ২৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, চীনা নাগরিক ও বিদেশ ফেরসহ ২৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। প্রতিদিন স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। এছাড়াও ওই ২৩ জনকে বাইরে ঘোরাফেরা না করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সিলেট : করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে সিলেটে এক নারীসহ দুজনকে হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ওই নারী প্রথমে বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলেন। পরে সোমবার (১৬ মার্চ) দিবাগত রাতে তাকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. সুশান্ত কুমার মহাপাত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।সূত্র : জাগো নিউজ







নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: