সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ইনিংস ব্যবধানে জিতলো বাংলাদেশ

রাওয়ালপিন্ডিতে ইনিংস ও ৪৪ রানের হারের মাধ্যমে টেস্ট ক্রিকেটে ইনিংস পরাজয়ের হ্যাটট্রিক করেছিল বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, নিজেদের সবশেষ ছয় টেস্টের মধ্যে পাঁচটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হেরেছিল টাইগাররা। এমন দুরবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে প্রয়োজন ছিলো একটি জয়।

পূর্ণাঙ্গ সফরে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল বাংলাদেশে আসায় বেড়ে গিয়েছিল সে জয়ের সম্ভাবনা। মিরপুরের শেরে বাংলায় একমাত্র টেস্টে জয় ঠিকই তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। তাও সেটি ইনিংস ব্যবধানে! নিজেরা ইনিংস পরাজয়ের হ্যাটট্রিকের পর এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতেছে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে।

টেস্ট ক্রিকেটে এটি বাংলাদেশের ১৪তম জয়। আর ইনিংস ব্যবধানে জয়ের কথা হিসেবে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় নজির। এর আগে শেরে বাংলায় খেলা সবশেষ টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইনিংস ও ১৮৪ রানের বড় ব্যবধানে জিতেছিল সাকিব আল হাসানের দল।

সেই ম্যাচের পর খেলা ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। প্রায় ১৪ মাস পর শেরে বাংলায় ফিরেই জয়ের দেখা গেলো মুমিনুল হকের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল। সবমিলিয়ে এখনও পর্যন্ত খেলা ১১৯ টেস্টে এটিসহ ১৪টিতে জিতেছে বাংলাদেশ, ড্র হয়েছে ১৬টি ম্যাচ আর পরাজিত ম্যাচের সংখ্যা ৮৯টি।

মিরপুরে বাংলাদেশের এক ইনিংসে ৬ উইকেটের বিনিময়ে করা ৫৬০ রান, দুই ইনিংসে ২০ উইকেটের বিনিময়েও করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। যার ফলে তাদের ভাগ্যে জুটেছে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ২৬৫ রানে অলআউট হয়েছিল জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের পক্ষে ৪টি করে উইকেট নিয়েছিলেন নাঈম হাসান ও আবু জায়েদ রাহী। বাকি ২ উইকেট যায় তাইজুল ইসলামের দখলে।

জবাবে খেলতে নেমে বাংলাদেশের পক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান মুশফিকুর রহীম (২০৩*), সেঞ্চুরি আসে মুমিনুল হকের ব্যাট থেকে (১৩২)। এছাড়া নাজমুল হোসেন শান্ত ৭১ ও লিটন দাস ৫৩ রান করলে ৬ উইকেটে ৫৬০ রানে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ।

ফলে স্বাগতিকদের পুনরায় ব্যাটিংয়ে নামানোর জন্য জিম্বাবুয়ের সামনে দাঁড়ায় ২৯৫ রানের সমীকরণ। যা পূরণ করতে পারেননি ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজারা। আবারও নাঈম হাসানের স্পিন বিষে নীল হয়েছে জিম্বাবুয়ে। যথাযথ সঙ্গ দিয়েছেন বাঁহাতি তাইজুলও।

যার সুবাদে দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে অলআউট হয়েছে ১৮৯ রানে। বাংলাদেশ পেয়েছে ইনিংস ও ১০৬ ব্যবধানে জয়।

প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে নাঈমের শিকার ৫ জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যান। টেস্ট ক্যারিয়ারে এটি তার দ্বিতীয় ফাইফার। এছাড়া দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ২৬৫/১০ (অরভিন ১০৭, মাসভাউরে ৬৪; আবু জায়েদ ৪, নাঈম ৪)

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৫৬০/৬ ডিক্লে. (মুশফিক ২০২, মুমিনুল ১৩২, শান্ত ৭১, লিটন ৫৩; এনদিলোভু ২)




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: