সর্বশেষ আপডেট : ৪৯ মিনিট ১ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেটে দুটি মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধন

মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে কেন্দ্র করে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে দুটি মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল তিনটায় সিলেট নগরীর নয়াবাজার কুশিঘাট এলাকায় ‘নয়াবাজার মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র’ এবং ‘লালাদিঘীর পাড় মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র’ নামে দু’টি মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়।

ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র উদ্বোধন উপলক্ষে শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মনিপুরি নারী পুরুষ নয়াবাজার মনিপুরি পাড়ায় উপস্থিত হন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও বাংলাদেশ নৃত্য শিল্পী সংস্থার সিলেট বিভাগের সভাপতি অনিল কিষন সিংহের সভাপতিত্বে এবং মনিপুরি শিক্ষার্থী দিপীকা সিনহার সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র পরিচালনাকারী বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এথনিক কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (একডো) এর নির্বাহী পরিচালক লক্ষ্মীকান্ত সিংহ।
অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মনিপুরি কবি ও লেখক নমব্রম শংকর সিংহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সমাজকর্মী রতন সিংহ, কুমারধন সিংহ, ব্রজমোহন সিংহ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে লক্ষ্মীকান্ত সিংহ বলেন, একডো’র দীর্ঘদিনের ইচ্ছা ছিল সিলেট শহরে মনিপুরি শিক্ষার্থীদের জন্য মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র চালু করা। সবশেষে স্থানীয় মনিপুরি জনগোষ্ঠীর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে বার বার তাগিদ দেয়ায় আজকের এই মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ‘নয়াবাজার মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র’ ও ‘লালাদিঘীর পাড় মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র’ নামে এ দু’টি মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রর শুভ উদ্বোধন করা হলো। একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার সহযোগিতায় একডো গত ২০১৫ থেকে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় আরো তিনটি মনিপুরি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র পরিচালনা করে আসছে। ভাষার গুরুত্ব অনুধাবন করে ১৯৭৯ সালে মনিপুর রাজ্যের অ্যাসেম্বলি কর্তৃক ‘মনিপুরি অফিসিয়াল ল্যাংগুয়েজ এ্যাক্ট ১৯৭৯’ বিল পাস করা হয়। এরপর থেকেই অদ্যাবধি এটি ভারতের মনিপুর রাজ্যের রাজ্য ভাষা হিসেবে প্রচলন হয়ে আসছে। সর্বশেষে গত ১৯৯২ সালে ২০ আগস্ট ভারত সরকার মনিপুরি ভাষাকে ভারতের সংবিধানে অষ্টম তপশিলভুক্ত একটি ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করে।

তিনি বলেন, মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত হয়েছে। এ ভাষার মাসে আমরা সিলেট অঞ্চলের মনিপুরি বাসিন্দারা ২০১০ সালের শিক্ষা নীতি অনুযায়ী প্রাক ও প্রাথমিক শিক্ষায় মনিপুরি ভাষা এবং বর্ণমালা যুক্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, মনিপুরি জনগোষ্ঠীর আলাদা সংস্কৃতি রয়েছে। সিলেটে মনিপুরিদের সংস্কৃতি খুবই সমৃদ্ধ। রয়েছে নিজস্ব ভাষা, বর্ণমালা। এরই মধ্যে ২০১৪ সালে পাঁচটি ক্ষুদ্রনৃগোষ্ঠীর ভাষা ও বর্ণমালা প্রাক ও প্রাথমিক শিক্ষায় যুক্ত করা হয়েছে। এরই ধারবাহিকতায় মুনিপুরি ভাষাকেও ভাষার মাসে প্রাক ও প্রাথামিক শিক্ষায় যুক্ত কামানার দাবি জানান বক্তারা।-বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: