সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় লোকালয়ে এসে প্রাণ হারালো ২ মেছোবাঘ

আব্দুর রব, বড়লেখা :

বড়লেখায় খাদ্যের সন্ধানে লোকালয়ে বেরিয়ে জনতার পিটুনিতে প্রাণ হারালো ২টি মেছোবাঘ। পালিয়ে কোনমতে রক্ষা পেয়েছে আরেকটি মেছোবাঘ। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে হাকালুকি হাওরপাড়ের সুজানগর ইউনিয়নের উত্তর পাটনা গ্রামে। পরে মৃত ২ মেছোবাঘকে নিয়ে দিনব্যাপি গ্রাম জুড়ে দুষ্টু ছেলেরা ফটোসেশনে মেতে উঠে।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ আইনে যে কোন বন্যপ্রাণী হত্যা করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ধাওয়া করে আটকের পর নির্মমভাবে মেছোবাঘ ২টিকে পিটানো হলেও গ্রামের কোন সচেতন ব্যক্তি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, বনবিভাগ কিংবা বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিভাগের কেউ এগিয়ে আসেনি।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, সুজানগর ইউনিয়নের উত্তর পাটনা গ্রামের নজরুল ষ্টোরের পিছনের ঝোপে ৩টি মেছোবাঘ দেখে চিৎকার করেন জনৈক ব্যক্তি। তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন জড়ো হন। পরে জনতা দা, লাঠিসোটা নিয়ে ঝোপ ঘেরাও দিয়ে মেছোবাঘগুলোকে ধাওয়া করে। প্রায় ২ ঘন্টা তাড়া করে পিটিয়ে ২টি মেছোবাঘকে হত্যা করা হয়। কোনরকম পালিয়ে অপর মেছোবাঘটি প্রাণে রক্ষা পায়। পিটিয়ে হত্যার পর মৃত মেছোবাঘ দু’টিকে নিয়ে এলাকার দুষ্টু ছেলেরা গ্রামে ঘুরে ঘুরে ফটোসেশনে মেতে উঠে।

গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী বশির মিয়া ও ওয়ার্ড মেম্বার ফখরুল ইসলাম জানান, গত কয়েক দিন ধরে কয়েকটি মেছোবাঘ এলাকায় অবস্থান করছিল। সন্ধ্যার পর এলাকায় বাঘ আতংক বিরাজ করে। বাঘের ভয়ে অনেকেই রাতে ঘর থেকে বের হন না। রাস্তাঘাটে বাঘের মূখোমূখি হয়ে অনেকেই পালাতে গিয়ে আহত হয়েছেন। তবে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় তারা দুঃখ প্রকাশ করেন।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জার মো. জোলহাস উদ্দিন জানান, মেছোবাঘের উৎপাত ও জনতার হাতে দু’টি মেছোবাঘ মারা যাওয়ার খবর তাকে কেউ জানায়নি। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিবেন।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: