সর্বশেষ আপডেট : ১৯ মিনিট ০ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন : ধামাই বিল ভুয়া মৎসজীবীদের ইজারা দেওয়ার অভিযোগ

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ধামাই বিল প্রকৃত মৎসজীবীদের উপেক্ষা করে ভ‚য়া মৎসজীবীদের ইজারা দেওয়ার অভিযোগ করেছেন তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির নেতৃবৃন্দ। গতকাল শনিবার দুপুরে সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন তারা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম।

তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতি সরকার অনুমোদিত একটি সংগঠন দাবি করে তিনি বলেন, ধামাই বিল সিবিআরএমপি, হিলিফ ও ২০১৬ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দেওয়া ইজারার মাধ্যমে ধামাই বিলে মাছ ফলনের উপযোগী করে তুলি আমরা। সম্প্রতি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪২৬Ñ১৪২৮ বাংলা সন মেয়াদে ইজারার জন্য একটি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। কোনো প্রকার যাচাইবাছাই ছাড়াই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তেরহাল আদর্শ মৎসজীবী সমবায় সমিতি নামক একটি সংগঠনকে ইজারা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেন। ফলে ধামাই বিল চলে যায় একদল ভ‚য়া মৎসজীবীদের কাছে। প্রকৃত পক্ষে তারা মৎসজীবী নয়। এমন সংগঠনের হাতে ধামাই বিলের ইজারা তুলে দেওয়া সরকারি জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতি ২০০৯ এর ৫(৪)(ঙ) অনুচ্ছেদ মোতাবেক সম্পূর্ণ অবৈধ। বিষয়টি জানার পর আমরা তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির পক্ষ থেকে অতিরিক্ত রাজস্ব কমিশনার আদালতে মিস আপিল করি। মিস আপিল নং- ক-৩৪/২০১৯।

তিনি আরও বলেন, আমরা আদালতের কাছে সমস্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণ উপস্থাপনের মাধ্যমে প্রমাণ করতে সক্ষম হই যে, তেরহাল আদর্শ মৎসজীবী সমবায় সমিতি একটি ভূয়া, মুখোশধারীর মৎসজীবী সংগঠন। আদালত সব কিছু যাচাই বাছাই করে তেরহাল আদর্শ মৎসজীবী সমবায় সমিতিকে ভূয়া মৎসজীবী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করে তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির পক্ষে রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পর ভূয়া মৎসজীবীদের সংগঠন তেরহাল আদর্শ মৎসজীবী সমবায় সমিতি মোশাহিদ মিয়া ও শহিদ মিয়ার নেতৃত্বে ২৩ থেকে-২৬ পর্যন্ত ৭টি দমকল মেশিন লাগিয়ে বিলের মাছ লুট করে নেয়। আমরা দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশের সাহায্য চাইলে, প্রশাসনের কাছ থেকে কোনো প্রকার সাহায্য পাইনি। উল্টো ২৬ জানুয়ারি তারিখ দিবাগত রাত প্রায় ১২টার দিকে আমাদের সংগঠন তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির সদস্যদের ঘরে ঘরে গিয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ তল্লাশি চালায় এবং ভয়ভিতি দেখায়। পুলিশি হয়রানি না করার ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাক্ষরিত একটি নির্দেশ ছিলো যা থানা কর্তৃপক্ষ আমলে নেয়নি।

তিনি বলেন, পুলিশের এমন আচরণে আমরা নিরুপায় হয়ে যাই। পুলিশি হয়রানির বিষয়টি উল্লেখ করে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত দরখাস্ত দিতে গেলে তিনি দরখাস্ত না রেখে বলেন- ‘এটা আমাদের কাজ নয়। এটা হলো ডিসি, এসিল্যান্ড ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাজ।’ তার এমন কথা শুনে আমরা নিরুপায় হয়ে চলে আসি। পরে আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে ধামাই বিলের খাজনা গ্রহণের জন্য আবেদন করি। আমাদের ৫-৭ দিন আনা-নেওয়া করার পর হঠাৎ করে জানানো হয় আমাদের খাজনা গ্রহণ করা হবে না। এই সময়ের মধ্যে তেরহাল আদর্শ মৎসজীবী সমবায় সমিতির লোকজন লাটি-সোটা নিয়ে ধামাই বিল দখল করে সমস্ত মাছ লুট করে নিয়ে যায়। এবং আমাদের সংগঠন তেরহাল মৎসজীবী সমবায় সমিতির সকল সদস্যদের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ছাড়া করার হুমকি-ধমকি দেওয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে তারা সংশ্লিষ্টদের কাছে ন্যায় বিচার এবং আইনি সহায়তা কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সভাপতি মো. আলতাব আলী, সহ-সাধারণ সম্পাদক হেলেন মিয়া প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: