সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিরিয়া ইস্যুতে মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া, যুদ্ধের শঙ্কা

সিরিয়ায় হামলা ইস্যুতে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে বিশ্বের শীর্ষ দুই পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। এতে অঞ্চলটিতে উত্তেজনার নতুন রূপ দেখা দিয়েছে। এই উত্তেজনা শেষ পর্যন্ত যুদ্ধে রূপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন পশ্চিমা বিশ্লেষকরা।

সিরিয়ায় বিমান হামলা ইস্যুতে আগে থেকেই রাশিয়ার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে তুরস্ক। এবার তুরস্কের সঙ্গে প্রকাশ্যে যোগ দিল যুক্তরাষ্ট্র। ফলে অঞ্চলটিতে নতুন করে বড় ধরনের উত্তেজনা তৈরির শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তুরস্কের ঘনিষ্ঠতা কমলেও একেবারেই যে শেষ হয়ে গেছে তা নয়। রাশিয়ার বিরুদ্ধে এবার হয়তো সেটিই বুঝিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। সিরিয়া ইস্যুতে তুরস্ককে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে তারা। একই সঙ্গে রাশিয়াকে সতর্কও করে দিয়েছে।

তুর্কি সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ এক প্রতিবেদনে জানায়, বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সিরিয়া ইস্যুতে তুরস্ককে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে রাশিয়া ও সিরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির হুমকিও দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

এ সম্পর্কে সিরিয়া সম্পর্কিত মার্কিন বিশেষ দূত জেমস জেফরি বলেন, রাশিয়ার সহায়তায় সিরিয়া সরকার ইদলিবে যে আগ্রাসন চালাচ্ছে সেটি নিয়ে খুব, খুব, খুবই উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র। আমি আবারও এই আগ্রাসন বন্ধের জন্য রাশিয়াকে আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপের দিকে এগোচ্ছি। যারা রাজনৈতিক প্রক্রিয়া ও যুদ্ধবিরতি মানবে না তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমরা দেখছি কী করা যায় এবং তুরস্ককে বলেছি তাদের কী ধরনের সহায়তা প্রয়োজন। তুরস্ককে সব ধরনের সহায়তা দিতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন এই দূত বলেন, সিরিয়া সরকারের সঙ্গে শুধু রাশিয়া নয়, ইরানিরাও যুক্ত। এমনকি হিজবুল্লাহও সক্রিয়ভাবে তাদের সঙ্গে রয়েছে। এরা সবাই মিলে সিরিয়া সরকারের আগ্রাসনের সমর্থন দিচ্ছে। এদের সমর্থন ছাড়া সিরিয়া সরকার এক সপ্তাহও টিকবে না।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সিরিয়া ইস্যুতে এমনিতেই মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে তুরস্ক-রাশিয়া। এই পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্র তুরস্ককে যে কোনো ধরনের সহায়তার প্রস্তাব দেওয়ার অর্থ হলো- সিরিয়ায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক সহায়তা দিতেও প্রস্তুত ট্রাম্প প্রশাসন। এটি মোটেও স্বাভাবিকভাবে নেবে না রাশিয়া। ফলে উত্তেজনা সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে, যা শেষ পর্যন্ত যুদ্ধে রূপ নিতে পারে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: