সর্বশেষ আপডেট : ৮ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সরকারী বেসরকারী কর্তৃপক্ষের জনগণকে তথ্য জানানো বাধ্যতামুলক — শ্রীমঙ্গলে প্রধান তথ্য কমিশনার

শ্রীমঙ্গল সংবাদদাতা:

প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদ বলেছেন, সংবিধান একটি শক্তিশালি পবিত্র গ্রন্থ এবং দেশের সর্বোচ্চ আইন। সংবিধানে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা নিহিত আছে। আমাদের দেশ কি ভাবে পরিচালিত হবে সবকিছু আছে। আমাদের অধিকারের কথা বলা আছে, কর্তব্যের কথা বলা আছে।

নাগরিকের অধিকারের কথা বলা আছে। সরকারী বেসকারী কর্মকতা ও কর্মচারীরা কি দায়িত্ব পালন করবেন আমাদের জানতে হবে। কারণ বাংলাদেশ হলো একটি প্রজাতন্ত্র। প্রজাতন্ত্র জনগণকে প্রাধান্য দিয়েছে। জনগণের মৌলিক অধিকারের কথা বলা হয়েছে। জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। তাই জনগণকে ক্ষমতায়ন করতে হবে।

মৌলিক অধিকার অন্ন, বস্ত্র, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বাসস্থান। সরকারী বেসরকারী কর্তৃপক্ষ জনগণকে সকল অধিকার, তথ্য প্রদান বাধ্যতামুলক। তারা কি সেবা দিবেন তা সব জানেন। কি ধরণের সেবা, কি ধরণের প্রশিক্ষণ, কি ধরণের উন্নয়নের কর্মসুচি ও কি ধরণের কর্তব্য ও কর্মকান্ড আছে এগুলো জানতে জনগণের বাধ্য বাধকতা আছে। তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ সালে প্রণীত হয়েছে। তথ্যের অবাধ প্রবাহ রচনা করে জনগণের তথ্যের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার জন্য। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল অডিটরিয়াম কাম মাল্টিপারপাস হলে আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

উপজেলা প্রশাসন শ্রীমঙ্গল ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), শ্রীমঙ্গল এর আয়োজনে এবং দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), সমন্বিত জেলা কার্যালয়, হবিগঞ্জ ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির (দুপ্রক) সার্বিক সহযোগিতায় তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ এর বহুল প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক শ্রীমঙ্গল এর সভাপতি সৈয়দ নেসার আহমদ। সনাক সদস্য শাহ আরিফ আলী নাসিম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), সমন্বিত জেলা কার্যালয় হবিগঞ্জ এর উপ-পচিালক কামরুজ্জামান, টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম।

প্রধান তথ্য কমিশনার আরো বলেন, বাক স্বাধীনতা, এটি মৌলিক অধিকার। মৌলিক অধিকার বাস্তবায়িত হতে হলে তথ্যের আদান প্রদান নিশ্চিত করতে হবে। তথ্যের আদান প্রদান একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। আর এ অধিকার বাস্তবায়নের জন্য তথ্য অধিকার আইন করা হয়েছে।
দেশে যে ভাবে সম্পদ ও দেশি-বিদেশী অর্থ ব্যয় হচ্ছে, সেটার জন্য স্বচ্ছতার দরকার, জবাবদিহিতার দরকার। আর সবচেয়ে বড় কথা দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলতে হবে। প্রতিবাদ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে কমিশনার বলেন, শিক্ষার্থীরা এখন থেকে মিথ্যাকে মিথ্যা, সত্যকে সত্য, সাদা কে সাদা, কালো কে কালো বলতে হবে।

বিশেষ অতিথি মৌলভীজাবার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন বলেন, এক সময় জেলা প্রশাসকের কাছে কেউ যেতে পারতেন না, তারা সেবা থেকে বঞ্চিত হতেন। কিন্তু এখন তারা সেবা পাচ্ছে। বিভিন্ন ধরণের সেবা দেওয়া হচ্ছে। মোবাইল এ্যাপসসহ আরো বিভিন্ন মুখী সেবা। এছাড়াও প্রতি বুধবার জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে জনগণকে নিয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়।
পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন, পুলিশি সহযোগিতার জন্য ৯৯৯ এবং শিশু ও নারী নির্যাতনের ১০৯ এর যোগাযোগ করার আহবাণ জানান তিনি।
ড. ইফতেখারুজ্জামন বলেছেন, বর্তমান সরকার এখন পর্যন্ত যে সমস্ত আইন তৈরী করেছে, তার সর্বশ্রেষ্ঠ আইন হলো ২০০৯ সালে প্রণীত তথ্য অধিকার আইন। এ আইনে জনগণকে অবাধ তথ্য প্রবাহের সুযোগ করে দিয়েছে।
দিনব্যাপি মেলায় সরকারি-বেসরকারি সেবাদানকারী ২৮ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও তথ্যমেলা উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনা সভা, দুর্নীতিবিরোধী কার্টুন প্রদর্শনী, কুইজ প্রতিযোগিতা, তথ্য ভান্ডার উপস্থাপন, আরটিআই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এবং সর্বশেষে অংশগ্রহণকারীদের মাছে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: