সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ইলিয়াস কাঞ্চন: দ্য রিয়েল হিরো!

রাশেদ খান:: একজন তরুণ চেষ্টা করলে গুন্ডামি-মাস্তানি-ভোট ডাকাতি করে শাজাহান খানের মতো একদিন মন্ত্রী-এমপি হয়ে যেতে পারবে। একজন তরুণ চেষ্টা করলে নিজের বিবেক বিসর্জন দিয়ে, স্বৈরাচারের পদলেহন করে মসিউর রহমান রাঙ্গার মতো পরিবহন সেক্টারের গুন্ডা হয়ে উঠতে পারবে। একজন তরুণ চেষ্টা করলে চলচ্চিত্রের নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন হয়ে উঠতে পারবে।

কিন্তু একজন তরুণ চাইলেই ‘মানুষ’ ইলিয়াস কাঞ্চন হতে পারবে না। চিন্তা করে দেখেন, ২৫টি বছর এই মানুষটি একা, একা লড়াই করে যাচ্ছেন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ দাবি নিয়ে। ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চন ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর বান্দরবন যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। এ রকম তো আরও হাজার মানুষ প্রতি বছর মারা যাচ্ছে সড়ক দুর্ঘটনায়।

কই তাদের কোনো স্বজনকে কি দেখেছেন ‘আমার মতো যাতে আর কারো স্বজন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত না হয়’ এই পণ নিয়ে রাস্তায় নামতে? স্ত্রীকে হারানোর সময়ে ইলিয়াস কাঞ্চন ছিলেন বাংলাদেশের তখনকার নম্বর ওয়ান নায়ক। এর কয়েক বছর আগে মুক্তি পায় বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ব্যবসা সফল ছবি ‘বেদের মেয়ে জোছনা’। প্রযোজক-পরিচালকদের লাইন লেগে থাকতো তখন ইলিয়াস কাঞ্চনকে তাদের সিনেমায় নায়ক বানানোর জন্য।

কিন্তু এই ইলিয়াস কাঞ্চন নামের মানুষটি আর সিনেমায় নায়ক হতে চাননি, তিনি ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ স্লোগান সঙ্গে নিয়ে সত্যিকার নায়ক হওয়ার জন্য রাস্তায় নেমে গেছিলেন। যার ফলে তাকে বারবার পরিবহন মাফিয়াদের হুমকি, নোংরামীর শিকার হতে হয়েছে। তারপরও এই মানুষটি থামে না। আমরাও চাই ইলিয়াস কাঞ্চন আপনি থামবেন না।

অন্ধকার এই বাংলাদেশের আকাশে জ্বলার জন্য আমাদের আপনার মতো কিছু ‘আলোর কণা’ খুব বেশি প্রয়োজন। আপনার মতো সত্যিকার ‘মানুষ’ প্রয়োজন। কারণ একটি আলোর কণা পেলে লাখো প্রদীপ জ্বলে, একটি মানুষ মানুষ হলে বিশ্ব জগৎ টলে।

ফেসবুক থেকে




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: