সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৩ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

কাউকে পাত্তা দিচ্ছি না, এটা ভুল: মিমি

বিনোদন ডেস্ক:: ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও সাংসদ মিমি চক্রবর্তী বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন, এমনটাই ধারণা করছেন শোবিজ সংশ্লিষ্টরা। নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর কেমন ছিল এই নায়িকার পারফর্মেন্স, অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন।

সাংসদ হওয়ার পর থেকে মিমি রয়েছেন অনেকটা অন্তরালে। নির্বাচনে জেতার পর নুসরাতের বিয়েতে কন্যাপক্ষের দায়িত্ব পালন করতে দেখা গিয়েছিল তাকে। কিন্তু তার পর থেকেই তিনি যেন অন্তরালে। হাতে নেই কোন ছবি।

অনেকেই বলছেন, রাজনীতির ময়দানে তাঁকে খুঁজতে হচ্ছে আতস কাচ দিয়ে। পূজার কার্নিভাল, ‘দিদি’র বাড়ির কালী পূজা থেকে শুরু করে নানা দলীয় অনুষ্ঠান কোথাও নেই মিমি! এমনকি ভাই ফোঁটার অনুষ্ঠানে অরূপ বিশ্বাস মহা আড়ম্বরে বোনদের কাছ থেকে ফোঁটা নেন। সেখানে এই নায়িকার দেখা মিলেছিল মাত্র এক ঝলকের জন্য! এছাড়াও সাংসদ-বিধায়কদের নিয়ে সম্প্রতি তৃণমূল ভবনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো দলীয় সভা, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সভাতেও অনুপস্থিত ছিলেন এই সাংসদ।

মিমির অনুপস্থিতি নিয়ে কথা উঠছে বিভিন্ন মহলে। কেউ সোজাসুজি কিছু না বললেও, কথার মারপ্যাঁচে অনেকেই বলে দিচ্ছেন, সাংসদ হয়ে রাতারাতি বদলে গিয়েছেন নায়িকা। এখানেই উঠে আসছে আর এক সাংসদ এবং অভিনেত্রী নুসরাতের সঙ্গে তাঁর তুলনা। নিজের বিয়ে, ছবির শুটিং, ছবির প্রচারণা সবকিছু ঠিক রেখেই দলীয় সভা কিংবা সবখানেই উপস্থিত হয়েছেন অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাত জাহান। খুবই পরিণতভাবে রাজনৈতিক প্রচারসভা করায় নিজ দলের বাইরেও অনেকেই প্রশংসা করছেন নুসরাতের। কিন্তু সেদিক থেকে মিমি কতটা সফল?

অনেক দিন ধরেই হাতে ছবি নেই মিমির। সিনেমায় দেখা না গেলেও সম্প্রতি নিজের ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গিয়েছে এই নায়িকাকে। নিজের চ্যানেলের জন্য মিউজিক ভিডিও তৈরি করেছেন এবং সেগুলো প্রশংশিতও হয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন মহল থেকে উঠে আসা নানান প্রশ্নে মিমির বক্তব্য কি!

মিমি চক্রবর্তী বলেন, অসুস্থ থাকার কারণে দিদির বাড়ির কালী পূজাতে যেতে পারিনি। সাংসদদের মিটিংয়ের দিনও অসুস্থ ছিলাম। আমি নিজে দিদিকে মেসেজ করে জানিয়েছি, যেতে পারব না। সে খবরটা বোধহয় অনেকে পাননি।

আর যাদবপুরের লোকজনকে জিজ্ঞেস করলেই জানা যাবে, আমি তাদের জন্য কাজ করেছি কিনা! প্রত্যেক দিন অফিসে যাই। যে যা সমস্যা নিয়ে আসে, তা শুনি। সমাধানের চেষ্টা করি। নিয়মিত এলাকা পরিদর্শন করি। নানা জায়গায় বিজয়া সম্মিলনী করেছি। শুধু তাই নয়, ঘুর্নিঝড় বুলবুলের পরের দিনই, আমার যে এলাকাগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেখানে ত্রাণ নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলাম।

তিনি আরও বলেন, কাউকে পাত্তা দিচ্ছি না, এটা ভুল। এই কথাটায় ভীষণ আঘাত পেয়েছি আমি। এই দিকটাই সময় দেওয়ার জন্য আমি ডিসেম্বর পর্যন্ত কোনও সিনেমার কাজ রাখিনি। আমি ঠিক মতো কাজ করার চেষ্টা করছি বলেই কি এই কথাগুলো উঠছে? মানুষের জন্য কাজ করব বলে রাজনীতিতে এসেছি। আমার আলাদা করে কিছু পাওয়ার নেই। তা সত্ত্বেও এই সব নেতিবাচক কথা শুনতে হচ্ছে— এগুলো খুব খারাপ লাগে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: