সর্বশেষ আপডেট : ১২ ঘন্টা আগে
বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

পদ্মা পার করছে অবৈধ স্পিডবোট

নিউজ ডেস্ক:: শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ও শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি রুটে প্রায় ৪৫০ স্পিডবোট চলাচল করে। যার একটিরও অনুমোদন নেই। তাছাড়া চালকদের নেই কোনো লাইসেন্স। তাছাড়া ফিটনেসের সমস্যার কারণে এসব স্পিডবোট প্রায়ই দুর্ঘটনায় পড়ে।

এসব দুর্ঘটনা ও হতাহতের কোনো পরিসংখ্যান নেই কারো কাছে। বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০১৩-২০১৯ সাল পর্যন্ত কমপক্ষে ৯টি দুর্ঘটনায় ১০ জন নিহত, ৭৭ জন আহতসহ কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন। তবে এ বছরেই স্পিডবোটের চার দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে চারজন। আহত হন ৪৬ জন।

অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) কাঁঠালবাড়ী ঘাটের ট্রাফিক পরিদর্শক (টিআই) আক্তার হোসেন বলেন, এই নৌপথে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ কোনো স্পিডবোট চলাচলে অনুমতি দেয়নি। তবুও সাধারণ মানুষের যাতায়াতের সুবিধা হয় বিধায় আমরা তাদের সেভাবে কিছু বলি না। তবে রাতে স্পিডবোট চলাচলে ঝুঁকি তো আছেই, রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু তারা এসব মানছে না। রাতে স্পিডবোট চলাচলের বিষয় ইউএনও, ওসিকে জানিয়েছি। কিন্তু তারাও কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছেন না।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, বিআইডব্লিউটিএ জনপ্রতি ১২০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করে দিলেও উভয় ঘাটে চলে ইজারাদারদের রাজত্ব। তারা ভাড়া নেয় ইচ্ছেমতো। টিকিটের গায়ে ভাড়া লেখা থাকে না। ১২০ টাকার ভাড়া নেওয়া হয় ১৮০ টাকা। ঈদের মৌসুমে নেয় ২০০ টাকা। রাতে বোটে উঠলে ২০০ টাকার বেশিও নেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে কাঁঠালবাড়ী স্পিডবোট ঘাটের ইজারাদার ইয়াকুব ব্যাপারী বলেন, রাতে চলাচল তো বন্ধ থাকে। আমি অসুস্থ, রাতে ঘাটে থাকি না। ঘাটে আমার ভাগিনা রাসেল আছে। ও আপাতত সবকিছু দেখে।

অতিরিক্ত ভাড়ার ব্যাপারে লৌহজংয়ের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমাদের কাছেও মাঝেমাঝে অভিযোগ আসে যে বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। তখন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করি। তবে, ঘাটে গেলে দেখতে পাই নির্ধারিত ভাড়াতেই টিকিট কাটা হচ্ছে। তবে ভাড়া ১২০ নয়, ১৫০ টাকা নির্ধারণ আছে বলে এ কর্মকর্তা দাবি করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: