fbpx

সর্বশেষ আপডেট : ৮ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

এনকাউন্টার স্পেশালিস্ট সেজে ৭ মহিলাকে বিয়ে, অতপর…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ক্লাস সেভেনের স্কুল পালানো এক ব্যক্তির কীর্তি চমকে দিল চেন্নাই পুলিশকে। ওই ব্যক্তি এ পর্যন্ত সাত জন মহিলাকে বিয়ে করেছেন এবং অন্য ছয় মহিলার শ্লীলতাহানি করেছেন বলে অভিযোগ। আর এই সব করেছেন প্রাক্তন পুলিশের ভেক ধরে। রাজেশ পৃথ্বী নামে এই অভিযুক্ত নিজেকে চেন্নাই পুলিশের প্রাক্তন এনকাউন্টার স্পেশালিস্ট বলে পরিচয় দিতেন। পুলিশের চাকরির পর খোলেন টেলিমার্কেটিং কোম্পানি। তার আড়ালেই চলত কুকীর্তি।

টেলি মার্কেটিংয়ের আড়ালে চলত মেডিকেল অ্যাডমিশন পাইয়ে দেওয়ার নামে লোকের কাছ থেকে টাকা তুলতেন রাজেশ। পুলিশ জানিয়েছে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৩০ লাখ টাকা জালিয়াতি করার খোঁজ মিলেছে। টেলিমার্কেটিংয়ের অফিসে ২২ জন মহিলা কাজ করতেন। রাজেশ তাদের মধ্যে অন্তত ৭ জনকে বিয়ে করেছিলেন। শুধু তাই নয় এই ৭ জন ছাড়াও অন্য ৬ জনের শ্লীলতাহানি করেছেন। রাজেশ ওই সব টাকা স্ত্রীদের জন্য খরচ করতেন।

এ পর্যন্ত সবকিছু নির্বিঘ্নেই চলছিলো। কিন্তু বিপদ নেমে আসে সোমবার ১৮ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ে করতে গিয়ে। ওই কিশোরীর পরিবার চেন্নাইয়ের এগমোর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন, তাদের মেয়েকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। কিশোরী, রাজেশের টেলিমার্কেটিং কোম্পানিতে কাজ করতেন।

এরপর তদন্তে নেমে পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে। কিশোরী জানান, রাজেশ তাকে বিয়ে করেছেন। উদ্ধার হওয়ার পর কিশোরী তার বাবা মায়ের কাছেই ছিলেন। কিন্তু রাজেশ সেখানে গিয়ে কিশোরীকে তুলে নিয়ে আসতে যান। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গ্রেপ্তার করে রাজেশকে।

পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করে চেন্নাই পুলিশ। এবার কাহিনীর একের পর রহস্য উদঘাটন হতে থাকে। জানা যায় রাজেশ নামে এই ব্যক্তির আসল নাম দীনেশ। এর আগে তিনি একবার গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। জামিন পাওয়ার পর উধাও হয়ে যান। নাম ভাঙিয়ে আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, প্যান, ড্রাইভিং লাইসেন্স জোগাড় করে ফেলেন দীনেশ ওরফে রাজেশ।

শুধু তাই নয় তার কাছ থেকে সাব-ইন্সপেক্টরের ইউনিফর্ম, পুলিশের জাল পরিচয়পত্র, দুটি হতকড়া মিলেছে। শুধু রাজেশ নামই নয় বিভিন্ন জায়গায় কখনও শ্রী রাম গুরু দীনা, দয়ালন, দীন দয়ালন বা রাজেশ পেরুমল নাম ভাঁড়িয়ে কুকীর্তি চালাতেন।

পুলিশ দীনেশকে গ্রেপ্তার করে আদালতে তুললে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: