সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রেমিকার বাড়িতে আটকা পড়ে ৯৯৯-এ কল, অতঃপর…

নিউজ ডেস্ক:: ৯৯৯-এ ফোন করে বাঁচার আকুতি জানিয়ে নিজেই ফেঁসে গেছেন রিয়াদ নামে এক তরুণ। বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার গাংগাইল ইউনিয়নের পংকরহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মুঠোফোনের মাধ্যমে রং নম্বরে পরিচয়ের পর এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে পালানোর পর অপহৃতার বাবা নিজ প্রচেষ্টায় স্কুলছাত্রী মেয়েকে উদ্ধার করেন। পরে তিনি রিয়াদ নামে সেই অভিযুক্ত অপহরণকারী তরুণকে নান্দাইলের নিজ বাড়িতে এনে পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে বিয়ের জন্য আটক করেন। এতে কৌশলে সেই তরুণ ৯৯৯-এ ফোন করে বাঁচার আকুতি জানালে পুলিশ এসে তাকে আটক করে।

পুলিশ সূত্রের দাবি, ঐ দিন মূলত ৯৯৯-এ করা ফোনের সূত্র ধরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুর রহিম সুজন নিজে থানা পুলিশ নিয়ে মেয়ের বাড়িতে অভিযানটি পরিচালনা করেন।

এ সময় ঘটনাস্থল থেকে তারা অভিযুক্ত অপহরণকারী রিয়াদ ও তরুণীটিকে আটক করে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন। এর আগে গত বুধবার (২১ আগষ্ট) সেই স্কুলছাত্রীকে নিজ বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে অপহরণ করে সেই তরুণ।

নান্দাইল থানা পুলিশ ও ভুক্তভোগী মেয়ের পরিবারের দাবি, উপজেলার গাংগাইল ইউনিয়নের পংকরহাটি গ্রামের সেই তরুণীর সঙ্গে মুঠোফোনের রং নম্বরে পরিচয় ঘটে একই উপজেলার রাজগাতী ইউনিয়নের উলুহাটি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রিয়াদ (২৩) নামে এক তরুণের।

পরে এই দুইজনের সম্পকের সূত্র ধরে রিয়াদ সেই স্কুলছাত্রীকে গত বুধবার অপহরণ করে পালিয়ে যায়। সেখানেই তাদের বিয়ে হবে বলে জানায় রিয়াদ। যদিও ময়মনসিংহ যাবার পর স্কুলছাত্রী বুঝতে পারে সে রিয়াদের ফাঁদে পা দিয়েছে।

বিষয়টি মেয়ে নিজ বাড়িতে জানানোর পর ছাত্রীর বাবা অপহরণকারী তরুণকে খুঁজে বের করে ময়মনসিংহ নগরীর এক বাসা থেকে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় তিনি দুজনকে পংকরহাটি গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখেন। পরবর্তীতে পরিবারের সম্মান বাঁচাতে মেয়েকে বিয়ে করার জন্য সেই তরুণকে চাপ দিলে মুক্তি পেতে কৌশলে সেই তরুণ ৯৯৯-এ ফোন করে বাঁচার আকুতি জানায়।

মূলত সেই ফোন কলের সূত্র ধরেই নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার থানা পুলিশ নিয়ে মেয়ের বাড়িতে হাজির হন। এ সময় ভুক্তভোগী সেই ছাত্রীর পরিবার বিষয়টি তাদের অবহিত করলে দুজনকে পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নিয়ে নেয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর আহম্মাদ বলেন, ‘ইউএনও সাহেবের হস্তক্ষপে দুজনকেই আটক করে থানায় আনা হয়েছে। এ বিষয়ে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ইতোমধ্যে থানায় একটি অপহরণ মামলা করেছেন।’




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: