সর্বশেষ আপডেট : ১৬ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে আতর টুপি জায়নামাজের দোকানগুলো

নিউজ ডেস্ক:: পবিত্র ঈদ উৎসবের বাজারে ধর্মীয় অনুষঙ্গ হিসেবে টুপি, তসবিহ, জায়নামাজ ও আতরের দোকানগুলো জমে উঠেছে। শেষ মুহূর্তের কেনাকাটায় এ দোকানগুলোতে এখন উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা যাচ্ছে। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, নান্দনিক ডিজাইনের টুপি, জায়নামাজ এবং মনকাড়া পাথরের তসবিহ ও মোহনীয় সুগন্ধির আতর কিনতে নগরীর মার্কেটগুলোতে ছোটাছুটি করছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।

সিলেটের বন্দর বাজার ও এর আশপাশকে ঘিরেই গড়ে ওঠা আতর, টুপি, তসবিহ ও জায়নামাজের দোকানে ক্রেতাদের বেশি ভিড় লক্ষ করা যাচ্ছে। মার্কেটের পাশাপাশি ফুটপাথেও জমে উঠেছে এগুলোর ব্যবসা। ক্রেতাদের চাহিদানুযায়ী এখানে পাওয়া যাচ্ছে দেশি-বিদেশি নানা ব্র্যান্ডের আতর, টুপি, তসবিহ ও জায়নামাজ।

মোহনীয় সুগন্ধির আতর, নান্দনিক ডিজাইনের টুপি-তসবিহ ও জায়নামাজের বিশাল সমাহার নিয়ে দোকান সাজিয়েছে ব্যবসায়ীরা। সব ধরনের কেনাকাটার পর ঈদের শপিংয়ে ক্রেতারা এই পণ্যগুলোর জন্যও ভালো বাজেট রাখছেন- এমনটি জানালেন মার্কেটের ব্যবসায়ীরা।

ব্যবসায়ীরা জানান, পবিত্রতার রংয়ে নিজেদের রাঙাতে ক্রেতারা টুপি, জায়নামাজ, তসবিহ ও আতরের মধ্যে সেরাগুলোই কিনে নিচ্ছেন। সরেজমিনে দেখা যায়, দোকানে আজমল অ্যান্ড কোম্পানির হাতকড়া উদ পাওয়া যাচ্ছে ২০ হাজার টাকায়, সুরাতি কোম্পানির মাতাক পাওয়া যাচ্ছে ২০ হাজার টাকায়, কায়সার আতর পাওয়া যাচ্ছে ১২ হাজার টাকায়, তুবার দাম ১৫ হাজার টাকা, হারামাইন কোম্পানির আফফাফ ৬ হাজার টাকা প্যাকেট।

এ ছাড়া মাহফুজ, মুবাখখার, হানিন, নূরা, মিকাত, শায়খা, মিনা পাওয়া যাচ্ছে ১ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকায়। অ্যারাবিয়ান উদ, লামসা, আলমাস, স্টাইলিশ পিংক, উদ এলিট, উদ পারফিউম, জিকরিয়াত, ক্রাউন, লুলু পাওয়া যাচ্ছে ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকায়। নতুন এসব ব্র্যান্ড ছাড়াও দোকানের পুরনো সমাহারের মধ্যে রয়েছে মরিয়ম আতর, দেহনেল উদ, হোয়াইট আম্বার, মুখাল্লাত আরাইস, উদ আল সুলতান, মাহমুদ, সাবা, বেলী, রজনীগন্ধা, এরাবিয়ান উদ, উদ এলিট, মাস আল ক্বাবা, মেশক আম্বার, কস্তুরি, শামামাতুল আম্বার, হুগো বস, বাখুর, সুলতান, হাজার, মদিনা, দিনার, মক্কার আবদুল সামাদ আল কুরাইশ কোম্পানির প্রসিদ্ধ আতর হেরিটেজ ব্লেন্ড, আজমল কোম্পানির আনভেইল, আল থোরাইয়া, জাহি, জাজাব আল উদ, মাশাল্লাহ, ঘায়ের, মোখাল্লাদ দেহনেয়াল উদ মোয়াত্তাক, হজরে আসওয়াদ ইত্যাদি।

তবে ফুটপাথে ৫০ টাকা থেকে শুরু করে ২ হাজার টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের আতর। সিলভারের কাজ করা জর্ডানের টুপি পাওয়া যাচ্ছে ১ হাজার ৫শ টাকা থেকে আড়াই হাজার টাকায়, সৌদি টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৪০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকায়, চায়না টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৭৫ টাকা থেকে ২৫০ টাকায়, ইরানের টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৮ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকায়। মিসরের টুপির দাম ১৫০০ থেকে আড়াই হাজার টাকা। তুর্কি টুপি (রুমি টুপি) ৬ হাজার থেকে ৮ হাজার টাকা, সুদানি টুপি ১৫০০ টাকা, গুজরাটের বুরি টুপি ৮০০ থেকে ১৫০০ টাকা, নাইজেরিয়ান টুপি আড়াই হাজার টাকা।

এ ছাড়া নরমাল টুপি পাওয়া যাচ্ছে ২০ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত দামের মধ্যে। জায়নামাজ পাওয়া যাচ্ছে ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ১২ হাজার টাকার মধ্যে। এর মধ্যে তুর্কি জায়নামাজ পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ থেকে ১২ হাজার ৫০০ টাকায়, শেলিন জায়নামাজ ৩৫০ থেকে ৮৫০ টাকায়, আইডিন জায়নামাজ ৯০০ থেকে ৭ হাজার টাকায়, পাকিস্তানি জায়নামাজ ৫০০ থেকে ৭০০ টাকায়।

তসবিহ পাওয়া যাচ্ছে সর্বনিম্ন ৫০ টাকা থেকে ৭ হাজার টাকায়। এর মধ্যে আকিক তসবিহ পাওয়া যাচ্ছে ৫০০ থেকে ২ হাজার টাকায়, ইউসার পাথরের তসবিহ ৪ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকায়, চায়না ফাইবার তসবিহ ৫০ থেকে ১৫০ টাকায়, কাঠের তসবিহর দাম ১০০ থেকে আড়াই হাজার টাকার মধ্যে, কোক তসবিহ ২ হাজার টাকা, মরিয়ম তসবিহ আড়াই হাজার টাকা, জয়তুন তসবিহ ১ হাজার ৫০০ টাকা, চন্দন কাঠের তসবিহ ২ হাজার টাকা।

মার্কেটের ভিতরের দোকান ছাড়াও ফুটপাথের দোকানগুলোতেও উৎসবপ্রিয়দের ভিড় লক্ষণীয়।ফুটপাথেও দোকানি মোহাম্মদ রিপন হোসেনের দোকানে কাশ্মীরি উদ আতর তোলা পাওয়া যাচ্ছে ৮০০ টাকায়, হোগো ১২০০ টাকায়, আল শাফা, নাইন ফ্লাওয়ার ও বকুল পাওয়া যাচ্ছে ৪০০ টাকা তোলায়। বেলির দাম ৩০০ টাকা তোলা।

সোলেমানি আকিক তসবিহ পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ থেকে ২ হাজার টাকায়, কাঁচ পাথরের তসবিহ ৩০ থেকে ২৫০ টাকা, কাঠের পাকিস্তানি তসবিহ ২০ থেকে ৮০ টাকা, স্যামসোতারা তসবিহ ৬০০ থেকে ৩ হাজার টাকা, ক্রিস্টাল তসবিহ ৬০ থেকে ২৫০ টাকা, আকিক পাথরের তসবিহ ১ হাজার ২০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা, বেলি, বকুল ও রজনীগন্ধা আতর আউন্স প্রতি ৫০ থেকে ৩০০ টাকা, জেসমিন আতর ৩ এম এল ৮০ টাকা, হোয়াইট উদ ছোট শিশি ১০০ থেকে ৩০০ টাকা, চকলেট মাস্ক ১০০ টাকা, সুলতান ৩ এম এল ৮০ টাকা, সূর্যমুখী ও মারিয়া ৩ এম এল ১০০ টাকা, দালাল ও রয়েল মেরিস ৩ এম এল পাওয়া যাচ্ছে ৮০ টাকায়।

ফুটপাথের দোকানের টুপির কালেকশনে রয়েছে নেট টুপি, মিরাঠি টুপি, হাজী টুপি, লেইস টুপি ইত্যাদি। এসব দোকানে বাচ্চাদের টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৫০ থেকে ১৫০ টাকায়। গেটের দোকানি হাবিবুর রহমান জানান, তার দোকানে বড়দের টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৫০ থেকে ৮০০ টাকায়। এর মধ্যে নেট টুপি পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ টাকায়, বিভিন্ন ধরনের নরমাল টুপি ৬০ থেকে ১৫০ টাকায়, হাজী টুপি ১০০ থেকে ৬০০ টাকায়, জালি টুপি ৫০ থেকে ৩০০ টাকায়, লম্বা আদি টুপি ৩০ থেকে ৫০ টাকায়, মালয়েশিয়ান টুপি ১০০ থেকে ৬০০ টাকায়, চায়না টুপি ২০ থেকে ১০০ টাকায় ও তুর্কি ৬০ থেকে ২০০ টাকায়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: