সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

পৈত্রিক ভূমি দখলদারদের হাত থেকে রক্ষাসহ ন্যায় বিচার পেতে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার আর্তি

নগরীর শেখঘাট এলাকায় পৈত্রিক সম্পত্তি বেদখল হওয়ার হাত থেকে রক্ষাসহ ন্যায় বিচার পেতে আর্তি জানিয়েছেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা রুহেল আহমেদ বাবু। ওই জমি দখলের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধির নাম ভাঙিয়ে তার রাজনৈতিক প্রভাব ব্যবহার করে সেই জমি দখল করে সেখানে জুয়া-মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধের আস্তানা গড়ে তুলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এজন্য তার পরিবার আইনের আশ্রয় নিলে দখলদাররা তাদের হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে রুহেল আহমেদ বাবু বলেন, ‘একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বাধীন দেশে এ ধরনের নৈরাজ্য ঘটতে দেখা আমার জন্য ভয়াবহ যন্ত্রনার। একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধে চার নম্বর সেক্টরের কুকিতল সাব-সেক্টরে যুদ্ধ করেছিলাম, যুদ্ধে মারাত্মক আহত হয়ে পায়ের এক অংশ হারাই। আমার বাবা নুরুর রহমান ছিলেন সিলেট আওয়ামী লীগের প্রথম প্রেসিডেন্ট এবং সিলেট থেকে মনোনীত তদানীন্তন পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী। এরপর তিনি ন্যাপের চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাবু বলেন, আমি সিলেটেরই সন্তান, আমার শেকড় সিলেটের এই মাটিতে গাঁথা। একাত্তরে এই দেশটা শত্রুমুক্ত করতে যুদ্ধ করেছিলাম এই সিলেটের বুকেই, কিন্তু ৪৮ বছর পরেও আমাদের দেশ গড়ার যুদ্ধ শেষ হয়নি। তিনি বলেন, ‘১৯৬২ সালে তার বাবা একটি ইন্ডাস্ট্রি স্থাপনের জন্য শেখঘাটে সুরমার পাড়ে (এখন যেখানে হযরত শাহ জালাল ঘাট) ৩৩ শতাংশ জমি কেনেন যা উত্তরাধিকার সূত্রে মা আর তার ভাই-বোনদের নামে রেকর্ডেড। ওখানে একটা ছোট চারকোল ফ্যাক্টরিটি আছে, যার সাথে একটি বাসাও আছে। আমার বিধবা মামী ওই ফ্যাক্টরিটি পরিচালনা করেন এবং ওই বাসায় বাস করেন। অনেকদিন যাবত স্থানীয় কিছু দুষ্কৃতিকারী বিভিন্নভাবে আমার মামীকে উত্যক্ত করে আসছে। তারা মূলত এই পুরো জায়গাটা দখল করার পায়তারা করছে বলে দাবি করেন তিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওই জমি দখলের উদ্দেশ্যে বহিরাগত দুষ্কৃতিকারীরা বাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে দিয়েছে অনেকদিন আগেই, কিছুদিন আগে সাইন বোর্ডও ভেঙ্গে দেয় তারা। শুধু তাই নয়,আমাদের জমির জায়গাটা দখল করে সিলেট সিটির ট্রাক ব্যবহার করে মাটি ভরাট করে ঘর তুলে প্রতিদিন রাতে সেখানে জুয়ার আসর ও অনৈতিক কাজের আড্ডা বসায়। গভীর রাত পর্যন্ত সেখানে তাদের উন্মাদনা চলে। মামী ও উনার ছেলে এর প্রতিবাদ করায় তারা তাদের প্রাণনাশের হুমকিও দেয়। এ নিয়ে গত সপ্তাহে তিনি সিলেট এসে কোতয়ালি মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।’ এরপর পুলিশ সেখানে গিয়ে অভিযান চালালে জুয়ারীরা পুলিশ দেখা মাত্রই পালিয়ে যায়। তারপর পুলিশ জুয়ার আড্ডা ভেঙ্গে গুড়িয়েও দেয়। দু’তিন ঘন্টা ধরে চলে সেই অভিযান। কিন্তু রাত দুটোর দিকে পুলিশ সেখান থেকে চলে আসার পর ফের জুয়ারীরা আবার ৪০/৫০ জন লোক নিয়ে এসে জুয়ার আড্ডা নতুন করে তৈরি করে বহাল তবিয়তে তাদের কৃতকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।

এমতবস্থায় একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে এ জঘন্য কর্মকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি অনতিবিলম্বে এর প্রতিকার কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘শুধু তার জায়গা দখল করে এই অনৈতিক কর্মকান্ড চলছে বলেই নয়, এধরনের যে কোন কর্মকান্ডই- তা সে যত বড় প্রভাবশালীর ছত্রছায়ায় বাঁ তার নাম ভাঙ্গিয়ে করুক না কেন, কখনই বরদাশত করার প্রশ্নই ওঠে না। এরা যে শুধু আমার জায়গাটা দখল করে এগুলো করছে, তাইই নয়, এরা সুরমা নদীরও বেশ কিছু জায়গা দখল করেছে। তিনি অবিলম্বে এদের উচ্ছেদে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: