সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

যৌন হেনস্তা: ‘মি টু’ ইস্যুতে চুপ কেন দেশিও তারকারা

বিনোদন ডেস্ক:: মিডিয়ায় নয় বরং গোটা দুনিয়ায় নারীরা অনিরাপত্তা, তা নতুন কিছু নয়। যুগ যুগ ধরে পুরুষ শাসিত সমাজে তারা হেনস্তা আর নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছেন। তবে এই হেনস্তার বিষয়টি বেশি ফোকাস হয় শোবিজ জগতে। কথিত আছে, মিডিয়ার নারীরা নাকি বেশি হেনস্তার শিকার হন।

তাছাড়া কম বেশি সব অভিনেত্রী, নারী মডেল কিংবা মেয়ে কলাকুশলীর শোবিজে যৌন হয়রানির তিক্ত অভিজ্ঞতাও রয়েছে। কাজ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে কিংবা স্থায়ী সম্পর্ক তথা বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে অনেক পরিচিত পুরুষরা নাকি তাদের যৌন হেনস্তার মতো ঘৃণ্য কাজ করেন। বিনোদন দুনিয়ায় এই বিষয়টি ‘ওপেন সিক্রেট’ হলেও অনেকেই হেনস্তার বিষয়ে মুখ খোলেন না।

তবে বিভিন্ন সময় আলাদাভাবে অনেক অভিনেত্রী প্রতিবাদ জানিয়েছেন। কিন্তু ‘কেউ সরব কেউ নিরব’ থাকার কারণে এই ধরণের অভিযোগের কোন কার্যকর ফলাফল কেউই পায়নি। তবে চলতি বছরের প্রথম দিক থেকে হলিউডে শুরু হয় যৌন হেনস্তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ।

রাতারাতি তা নিয়ে ফলাও করে নিউজও হতে থাকে। এরপর সেখানে উঠে আসে প্রভাবশালী প্রযোজক হার্ভে ওয়াইনস্টেনের বিরুদ্ধে দেড় ডজনের বেশি অভিনেত্রীকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ।চালু হয় ‘হ্যাশট্যাগ মি-টু’ অভিযান।এরপর অভিনেত্রীরা এই প্রতিবাদে অংশ নিয়ে নিজ নিজ অভিজ্ঞতার কথা জানান দিতে শুরু করেন।

অনেকদিন পরে হলেও হলিউডের পরে ঘুম ভাঙে বলিউডের। প্রথম প্রথম নড়বড়ে কিছু অভিযোগের কথা শোনা গেলেও মূল ঝড় ওঠে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের পর থেকে। শক্তিশালী অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে হেনস্তার অভিযোগ তোলেন সাবেক এই মিস।

দশ বছর আগে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির সেটে তনুশ্রীকে হেনস্তা করেছিলেন নানা; এমন অভিযোগ ওঠার পর গোটা বলিউডে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় শুরু হয়।তার সরব উপস্থিতির পর সাহস পান বলিউডের অন্য অভিনেত্রীরাও। একে একে মুখ খুলতে থাকেন অভিনেত্রী,নারী মডেল ও মেয়ে কলাকুশলীরা।আর তাতেই তোপের মুখে পড়তে থাকেন বলিউডের অনেক নামজাদা অভিনেতা, নির্মাতা, প্রযোজক ও গায়কেরা।

নানা পাটেকর থেকে শুরু করে অমিতাভ বচ্চন, সালমান খান, আরবাজ খান, অলোক নাথ, নির্মাতা সুভাষ ঘাই, সাজিদ খান,গায়ক আনু মালিক ও কৈলাশ খের’র মতো তারকাদের নাম জড়ায় যৌন হেনস্তাকারীর তালিকায়। এমনকি বাদ যায়নি বলিউডের শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চনও।বলা যেতে পারে তনুশ্রীর পর পুরো বলিউডই এখন এই ইস্যুতে ক্ষত-বিক্ষত। মি-টু ঝড়ে ম্লান হয়ে গেছে পুর ভারতের অন্য সকল বিষয়।

এদিকে, হলিউড ও বলিউডের নারীরা যখন যৌন হেনস্তার প্রতিবাদে উত্তাল, ঠিক তখনই নিরব দর্শকের ভূমিকায় ঢালিউড তারকারা।চলমান এই ইস্যু নিয়ে কেউই মুখ খুলতে চাইছেন না।ঠিক যেন ঢালিউডে যৌন হেনস্তার মতো কোন ঘটনাই কখনো ঘটেনি!

তবে, কয়েক মাস আগে একটি গণমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন মডেল-অভিনেত্রী ফারিয়া শাহরিন। সেখানে তিনি জানান, শোবিজে অনেক পরিচালক ও প্রযোজক তাকে অশালীন প্রস্তাব দিয়েছেন।কাজের বিনিময়ে অশ্লীল সম্পর্ক করতে চেয়েছেন।এতে ফারিয়া তাদের কু-প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে কাজ ছেড়ে চলে আসেন। এরপরে বিভিন্নভাবে বিতর্কের মুখে পড়েন এ নায়িকা।মূলত গণমাধ্যমে কু-প্রস্তাব পাওয়ার কথা বলাতে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা তাকে নিয়ে বাজে কথা বলেন।

এর আগে, ২০১৩ সালে প্রয়াত পরিচালক পিএ কাজলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন নায়িকা অমৃতা খান।ফেসবুকে কথোপকথনের সময় তাকে অশালীন প্রস্তাব দিয়েছিলেন কাজল।সেই সময় বিষয়টি নিয়ে অনেক বিতর্ক সৃষ্টি হয়।তবে অমৃতার পথ ধরে অন্য কোনো অভিনেত্রী এই বিষয়ে মুখ খোলেননি।তাছাড়া তিনিই ভিলেন ডিপজলের বিপক্ষে অভিযোগ এনেছিলেন,তাতেও কেউ কর্ণপাত করেনি সেসময়।

এদিকে,সম্প্রতি কাস্টিং কাউচ নিয়ে একটি গণমাধ্যমে মুখ খোলেন মডেল-অভিনেত্রী সূচনা আজাদ।তিনি জানান,শোবিজের প্রায় সবাইকেই কাস্টিং কাউচের শিকার হতে হয়।তিনি নিজেও এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন।যদিও তাতে নির্দিষ্ট করে কারো নাম উল্লেখ করেননি সূচনা,তবে তার মন্তব্যে যৌন হেনস্তার বিষয়টির স্পষ্ট ইঙ্গিত পাওয়া যায়।

এরকম ভিন্ন ভিন্ন সময়ে অনেক অভিনেত্রীই মুখ খোলেন,কিন্তু বাকিদের নিরবতার কারণে সেগুলো ধামাচাপা পড়ে যায়।শুধু তাই নয়,হেনস্তার বিরুদ্ধে যারাই মুখ খুলেছেন,ক্যারিয়ারের পরবর্তী সময়ে তারা কেবল পিছিয়ে গেছেন। কেননা নির্মাতা-প্রযোজকরা তাদেরকে নতুন কোন কাজে নিতে চাননি।

কিন্তু কেন চুপ তারা? এমন প্রশ্নের জবাব খুঁজতে যোগাযোগ করা হয় ঢালিউডের পরিচিত এক অভিনেত্রীর সঙ্গে। নাম প্রকাশের না করার শর্তে সিনেমার এই অভিনেত্রী বলেন, আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে যৌন হেনস্তার মতো ঘটনা ঘটে প্রতিনিয়ত,এটা প্রায় সবাই জানেন।কিন্তু কেউ মুখ খোলেন না।কারণ ক্যারিয়ার নষ্ট হওয়ার ভয় থাকে।তবে এই নায়িকা এও বলেছেন, কিছু কিছু নায়িকা আবার নিজ সম্মতিতেও এসব করেন।তারা দ্রুত স্টার হতে চায় বলে এমনটা করে বলে জানান ‘ম’ আদ্যাক্ষরের এই নায়িকা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: