সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট বিভাগের ৩৮ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা…

sylhet nirbachon pic_7may2016 copy

ডেইলি সিলেট রিপোর্ট:
শনিবার চতুর্থ ধাপে সিলেট বিভাগের ২ জেলার ৫ উপজেলায় ৩৮ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন  সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, বিকাল ৪টায় শেষ হয়।

বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী সিলেট বিভাগের ৫ উপজেলার ৩৮টি ইউনিয়নের ফলাফল নিম্নে তুলে ধরা হলো-
গোলাপগঞ্জ :

গোলাপগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, বিকাল ৪টায় শেষ হয়। সকালে উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়।

সর্বশেষ বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে  ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। অ

১১ ইউনিয়নের বিজয়ী চেয়ারম্যানরা হলেন-
১ নং বাঘা ইউনিয়নে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আ.লীগ বিদ্রোহী ছানা মিয়া ৩২০৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী চশমা প্রতীকে আতাউর রহমান পেয়েছেন ৩০৭৬ ভোট।

২ নং সদর ইউনিয়নের ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির আশফাক আহমদ চৌধুরী ২০৯৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকে আব্দুস সামাদ জিলু ১৯৯৭ ভোট পেয়েছেন।

৩ নং ফুলবাড়ি ইউনিয়নে শীষ প্রতীকে বিএনপির মাহবুবুর রহমান ফয়ছল ৭২৬৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে আ.লীগের হানিফ আহমদ খান ৫১৫২ ভোট পেয়েছেন।

৪নং লক্ষীপাশা ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে কবির আহমদ মুশন ৪৪৩৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে মাহমুদ আহমদ পেয়েছেন ৩৮৭৪ ভোট ।

৫ নং বুধবারীবাজার ইউনিয়নে চশমা প্রতীকে মস্তাব উদ্দীন কামাল ভোট ১৭৯৫ পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টেলিফোন প্রতীকে বিলাল উদ্দিন ১৪৬৮ ভোট পেয়েছেন।

৬নং ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে জামায়াতের মাওলানা আব্দুর রহিম ৪৩৩৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকে মনিরুজ্জামান উজ্জল পেয়েছেন ৩০১২ ভোট ।

৭নং লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীকে ৩ বারের নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান নসিরুল হক শাহিন ৫৪৭৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী লাঙ্গল প্রতীকে খলকুর রহমান খলকু ৫১০১ ভোট পেয়েছেন।

৮ নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির জিলাল উদ্দীন ৫৩৪৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোটরসাইকেল প্রতীকে শহীদ আহমদ লালা পেয়েছেন ৪৫৪৩ ভোট ।

৯নং পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়নে আনারস প্রতীকে রুহেল আহমদ ২০৮১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে আ.লীগের মঈন উদ্দীন ভোট ১৯৭০ পেয়েছেন।

১০নং বাদেপাশা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে আ.লীগের মোস্তাক আহমদ ৫২৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকে উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান পেয়েছেন ৫১২০ ভোট ।

১১নং শরিফগঞ্জ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে আ.লীগের এম এ মুমিত হীরা ২৭৯০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোটরসাইকেল প্রতীকে আতিকুর রহমান পেয়েছেন ২৫০২ ভোট ।

 

 

দক্ষিণ সুরমা :

সিলেটর দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে বিএনপি ৩টিতে, আওয়ামী লীগ ২টি ও সতন্ত্র প্রার্থীরা ২টিতে বিজয়ী হয়েছেন।

দক্ষিণ সুরমার সিলাম ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইকরাম হোসেন বকস,
মোগলাবাজার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ফখরুল ইসলাম,
দাউদপুর ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী খলিলুর রহমান, কুচাই ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী আবুল কালাম,
জালালপুর ইউনিয়নে সতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা সোলেমান হোসেন,
লালাবাজার ইউনিয়নে সতন্ত্র প্রার্থী পীর ইকবাল ও
বরইকান্দি ইউনিয়নে হাবিব হোসেন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।
শনিবার শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, বিকাল ৪টায় শেষ হয়।

 

 

বিশ্বনাথ::

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিশ্বনাথের ৬ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ৩, বিএনপি ৩টিতে বিজয়ী হয়েছেন। শনিবার বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, বিকাল ৪টায় শেষ হয়। সকালে উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়।

বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ছয়ফুল হক,
রামপাশা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন,
দৌলতপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আমির আলী,
লামাকাজি ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী কবির হোসেন ধলা মিয়া,
খাজাঞ্চি ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন এবং
অলংকারী ইউনিয়নে নাজমুল ইসলাম রুহেল বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তবে বিশ্বনাথ উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন হলেও সীমানা নির্ধারণ জটিলতায় দু’টি ইউনিয়ন দশঘর ও দেওকলস ইউনিয়নে নির্বাচন স্থগিত রয়েছে।
কুলাউড়া :

কুলাউড়া উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, বিকাল ৪টায় শেষ হয়। সকালে উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়।
৪র্থ ধাপের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ২, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ৩ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।
বেসরকারীভাবে উপজেলা নির্বাচন কমিশনার মো. জিল্লুর রহমান বিজয়ী হিসেবে যাদের নাম ঘোষনা করেছেন।

ভাটেরা ইউনিয়নে সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলাম (নৌকা) ৩২৩৩ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী ছয়ফুল আলম (চশমা) পেয়েছেন ২৬৯০ভোট।

টিলাগাও ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মালিক (আনারস) ৬৪৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মোঃ আব্দুল মালিক (নৌকা) পেয়েছেন ৩৬৮৪ ভোট।

শরিফপুর ইউনিয়নে জনাব আলী (ধানের শীষ) ৪৩২৫ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ খলিলুর রহমান (চশমা) পেয়েছেন ৩৪৮৮ভোট।

হাজিপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাংবাদিক মোহাম্মদ আব্দুল বাছিত (মোটর সাইকেল) ৪৪২৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মাহমুদ আলী (আনারস) পেয়েছেন ৪২৯২ভোট।

পৃথিমপাশা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নবাব আলী বাকর খান (চশমা) ৪৭০১ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আব্দুল লতিফ (আনারস) পেয়েছেন ৩৯০৯ ভোট।

কর্মধা ইউনিয়নে মোঃ আতিকুর রহমান (নৌকা) ৮৩১৬ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আব্দুস সহিদ (চশমা) পেয়েছেন ৭৬৮৬ ভোট।
রাজনগর:

মৌলভীবাজার জেলার রাজনগরে বিজয়ীরা হলেন-

ফতেহপুরে নকুল চন্দ্র দাশ (আওয়ামীলীগ), উত্তরভাগে শাহ শহিদুজ্জামান ছালিক (স্বতন্ত্র), মুন্সিবাজারে ছালেক মিয়া (আওয়ামীলীগ), পাঁচগাঁও শামছুন নূর আহমদ আজাদ (আ’লীগ বিদ্রোহী), রাজনগরে দেওয়ান খয়রুল মজিদ ছালেক (আ’লীগ বিদ্রোহী), টেংরায় মোঃ টিপু খান (আ’লীগ বিদ্রোহী), কামারচাকে মোঃ নজমুল হক সেলিম (আওয়ামীলীগ), মনসুরনগর মিলন বখ্ত (আওয়ামীলীগ)।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: