সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নির্বাচনী সহিংসতায় আ.লীগের দুই কর্মীসহ নিহত ৩

141790_1নিউজ ডেস্ক:: কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় এবং নরসিংদীর রায়পুরায় নির্বাচনী সংঘর্ষে আওয়ামী লীগের দুই কর্মী নিহত হয়েছেন।

এর মধ্যে কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে তাপসচন্দ্র দাস (২৩) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী এবং নরসিংদীর রায়পুরায় সুমন নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী খুন হয়েছেন।

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) জানিয়েছে, চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত ৭০ জনের বেশি লোক মারা গেছে, যাদের অধের্কের বেশি আওয়ামী লীগ কর্মী।

কুমিল্লায় আ.লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় ভোট কেন্দ্রের সামনে হামলা চালিয়ে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থীসহ ছয়জন আহত হয়েছে।

শনিবার ভোট শুরুর পর পর মাধবপুর ইউনিয়নের চানলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান কেন্দ্র ইনচার্জ এসআই হুমায়ুন কবীর।

নিহত যুবকের নাম তাপসচন্দ্র দাস (২৩) বলে জানালে ও তার বিস্তারিত পরিচয় জানাতে পারেননি তিনি।

এসআই হুমায়ুন বলেন, কেন্দ্রে আসার পথে ওই যুবকের উপর হামলা হয়। এ সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থী ফরিদউদ্দিনসহ ছয় জন আহত হয়েছেন।

ওই যুবক আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

নরসিংদীতে আ.লীগ কর্মী খুন
নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার শ্রীনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা বিদ্রোহী প্রার্থীর এক সমর্থককে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের চতুর্থ ধাপের নির্বাচন চলাকালিন রায়পুরা উপজেলার শ্রীনগর রংপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন আরো ৫ জন। তাদের জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রায়পুরা থানা পুলিশ জানায়, জাল ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে শ্রীনগর রংপুর কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থী রিয়াজ মোর্শেদ খান রাসেল ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী আযান চৌধুরীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।

এসময় আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর সমর্থকরা বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক সুমন হোসেন নামে এক যুবককে কিরিস দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। এছাড়া সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৫ জন টেঁটাবিদ্ধ হন।

আহতদের সবাইকে নরসিংদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সুমনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাকে ঢাকায় পাঠানো হলে পথেই তার মৃত্যু হয়। নিহত সুমন বিদ্রোহী প্রার্থী আযান চৌধুরীর ভাগিনা।

পুলিশ জানায়, এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করেন তারা।

ঠাকুরগাঁওয়ে গুলিতে যুবক নিহত
ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের কালডাঙ্গা দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষকালে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাহাবুব হোসেন পল্টু (৩২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

এ সময় দুইজন গুলিবিদ্ধসহ আরো ছয়জন আহত হন। এদের মধ্যে নাজিম উদ্দিন নামে একজনের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে ঐ কেন্দ্রে দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হলে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।

তবে স্থানীয়দের দাবি, সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে পুলিশ গুলি ছুড়লে একজনের মৃত্যু হয়।

এদিকে এ ঘটনার পর ঐ কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছে প্রশাসন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: