সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চিকিৎসকদের আশা সুস্থ হয়ে ওঠবেন বীথি

images (1)নিউজ ডেস্ক::
অদ্ভুত রোগে আক্রান্ত ১২ বছর বয়সী কিশোরী বীথি আক্তার সুস্থ্ হয়ে ওঠবেন বলে আশা করছেন চিকিৎসকরা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) অ্যান্ডোক্রাইনোলজি (ডায়াবেটিস ও হরমোন) বিভাগের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন বীথির দেহে শিগগিরই অস্ত্রোপচার করা হবে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসা তত্বাবধানে থাকা চিকিৎসক অধ্যাপক মো. ফরিদ উদ্দিন।

টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানার জয়ভোগ গ্রামের দরিদ্র মটরসাইকেল চালক আব্দুর রাজ্জাকের বড় মেয়ে বীথি আক্তার। ১২ বছর বয়সী এই কিশোরী অদ্ভূত এক রোগে আক্রান্ত। জন্মের পর থেকেই বড় বড় পশম গজায় তার সারা দেহে। বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেহ ছাপিয়ে তা মুখেও গজিয়েছে।

পাশাপাশি নতুন আরেকটি সমস্যা দেখা দিয়েছে শিশুটির। ধীরে ধীরে অস্বাভাবিকভাবে বড় হতে থাকে তার স্তনযুগল। একপর্যায়ে তা বুক ছাড়িয়ে পেটের নিচে চলে আসে। প্রচণ্ড ব্যাথা অনুভব হয় স্তনে। স্তনের ভারে সোজা হয়ে চলাচল করতে পারে না সে। বিথীর সামনের দাঁতের মাড়িও বেশ বড়। মাড়ি বড় হওয়ার কারণে মুখ বন্ধ রাখতে পারে না। পাশাপাশি উপরের পার্টির অনেকগুলো দাঁত পোকায় খেয়ে যাওয়ায় মুখের আকৃতি বেশ কিছুটা পরিবর্তন ।

গত ১৬ এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) অ্যান্ডোক্রাইনোলজি (ডায়াবেটিস ও হরমোন) বিভাগের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে অধ্যাপক মো. ফরিদ উদ্দিনের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছে বীথি।

কিশোরী বীথি আক্তারকে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার দায়িত্বরত চিকিৎসকরা। কয়েক দিনের মধ্যেই তার অস্ত্রোপচার হতে পারে। তার শরীরে তিন ধরনের সমস্যা চিহ্নিত করেছেন তার চিকিৎসকরা।

বীথির চিকিৎসক বিএসএমএমইউর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘বীথির স্কিন ও স্তনের চিকিৎসার জন্য আলাদা মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এ নিয়ে কাজ চলছে। আমরা প্রথমে তার স্তনের সার্জারি করার কথা ভাবছি। তার পর মুখের লোমের চিকিৎসা এবং সবশেষে দাঁতের চিকিৎসা করা হবে। দাঁতের চিকিৎসায় অনেক দিন সময় লাগবে। আশা করছি, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে স্তনের সার্জারি করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এসে বীথিকে দেখে গেছেন। তাঁরা সার্জারি করার ব্যাপারে সম্মতি জানিয়েছেন।’

বৃহস্পতিবার বীথির বাবা আবদুর রাজ্জাককে অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। সে অনুযায়ী প্রস্তুতি শুরু করেছেন তার বাবা।

বীথির চিকিৎসক মো. ফরিদ উদ্দিন বলেছিলেন, বিথীর যাবতীয় পরীক্ষা নিরীক্ষার খরচ হাসপাতাল থেকে দেওয়া হবে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই তার যাবতীয় চিকিৎসার ভার বহন করবে। তবে তার চিকিৎসার জন্য যদি বেশি টাকার প্রয়োজন হয় তবে পরবর্তীতে অন্যদের কাছ থেকে সহযোগীতা চাওয়া হবে।’

কিন্তু এখন ওষুধপত্র নিজের টাকায় কিনতে হচ্ছে বলে জানালেন বীথির বাবা আবদুর রাজ্জাক। পেশায় তিনি একজন মটরসাইকেল চালক। অন্যের মটরসাইকেল ভাড়ায় নিয়ে তিনি চালান।

শুক্রবার আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘বৃহস্পতিবার ডাক্তার এসে বলে গেছেন, আগামী সপ্তাহে স্তনের অপারেশন করা হবে। তাই প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। তবে ওষুধপত্র আমাদের কিনতে হবে।’

আবদুর রাজ্জাক আরো বলেন, বৃহস্পতিবার চিকিৎসক তাঁকে বলে গেছেন, আগামী সপ্তাহে বীথির অস্ত্রোপচার করা হবে। এ পর্যন্ত তাঁর শাহবাগ শাখায় পূবালী ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বীথির জন্য দেশ-বিদেশ থেকে ১০ হাজার টাকা এসেছে। এ ছাড়া বিকাশের মাধ্যমে আরো প্রায় ৪৫ হাজার টাকা সাহায্য পেয়েছেন। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিনা খরচে চিকিৎসা করাবে বলায় এখন আর কেউ সাহায্য করে না। এতে বিপাকে পড়েছেন তিনি।

মেয়েকে সুস্থ করে আবার স্কুলে পাঠাতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সহযোগীতার চেয়েছেন বিথীর বাবা।

বিথীকে সাহায্য করা যাবে বিকাশ নং এ। বিকাশ নং- ০১৭২০৩৬৬৭৮৩।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: