সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এক যুগ পর হারানো সন্তানকে ফিরে পেল মা

Shatkhira20160506112026নিউজ ডেস্ক:
২০০৪ সালে ভাত দিতে দেরি হওয়ায় বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় মানসিক ভারসম্যহীন সনৎ ঘোষ। আর ফিরে যায়নি সে। ঘুরতে ঘুরেতে এসে পড়ে সাতক্ষীরার তালা ডাকবাংলোর সামনে। টানা পাঁচ দিন ডাকবাংলোর সামনে ক্ষুধার্থ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সনৎ ঘোষকে সঙ্গে করে বাড়ি নিয়ে যান স্থানীয় পত্রিকা বিক্রেতা শিবপুর গ্রামের নুর ইসলাম বিশ্বাস। সেই থেকে তার তালার শিবপুর গ্রামে বসবাস।

অসংখ্য বার তার পরিচয় জানতে চায়লেও মানসিক ভারসম্যহীন সনৎ নিজের নাম এমনকি ঠিকমত কথাও বলতে পারেনি। তখন থেকেই শুরু হয় কাতলা নামে সনৎ ঘোষের নতুন জীবন। তাকে নিজের ছেলের মতই লালন পালন করেন নুর ইসলামের পরিবার।

নুর ইসলামের ছোট ছেলে মিনারুল ইসলাম জানায়, গত তিন চার দিন আগে থেকে ঘুমের মধ্যে মা-মা বলে ডাকতে থাকে কাতলা। তখনও আমরা কেউই তার নাম পরিচয় জানি না। হঠাৎ বুধবার সন্ধ্যায় মাঝিয়াড়া বাজারে চায়ের দোকানে উজ্জ্বল কর্মকার কাতলার কাছে তার নাম জানতে চাইলে হঠাৎ সে বলে ওঠে আমার নাম সনৎ ঘোষ, গ্রাম-ভাটবাড়ীয়া, থানা-শৈলকুপা। বাকি কিছুই আর বলতে পারেনি সে।

পরে বিষয়টি নিয়ে উজ্জ্বল কর্মকার অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পারে ১২ বছর আগে নিখোঁজ হওয়া ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ভাটবাড়ীয়া গ্রামের রতন ঘোষের ছেলে সনৎ ঘোষ। তার নতুন পরিচয় কাতলা। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর সনতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে শুক্রবার দুপুরে তারা ছুটে আসেন তালায় নুর ইসলামের বাড়িতে। সৃষ্টি হয় এক আবেগঘন মুহূর্তের।

১২ বছর পর সন্তানকে ফিরে পেয়ে সনৎ ঘোষের মা রেখা রানী চোঁখের পানি ধরে রাখতে পারেননি। প্রায় আধাঘণ্টা সন্তানকে বুকে নিয়ে কান্নাকাটি করেন তিনি। ভাইকে নেওয়ার জন্য ঢাকা থেকে ছুটে এসেছেন তার চাকরিজীবী ছোট ভাই সাগর ঘোষ, সঙ্গে রয়েছে ভাতিজা, বোন জামাই ও বউদি।

সনৎ ঘোষের মা রেখা রানী বলেন, মানসিক ভারসম্যহীন ছেলের ভাত দিতে দেরি হওয়ায় সে রাগ করে বাড়ি থেকে চলে আসে আর ফেরেনি। আমি ওই দিন ঢাকাতে ছোট ছেলের বাসায় ছিলাম। আমি বাড়ি থাকলে এমনটি হতো না। চার ভাই চার বোনের মধ্যে সে তৃতীয়।

এরকম একটি মুহূর্তের সাক্ষী হয়ে থাকতে এসময় নুর ইসলামের বাড়িতে ভিড় করেন তালা সদর মডেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, ইউপি সদস্য খায়রুল ইসলাম মিঠুসহ এলাকার শত শত মানুষ।

এদিকে, কাতলা তার পরিবার ফিরে পাওয়ায় এলাকার মানুষ দারুন খুশি। সন্ধ্যার গাড়িতে নিজেদের বাড়ি শৈলকুপার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন সনৎরা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: