সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ১৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

১২ বছর পেরিয়ে গেছে :  শেষ হয়নি সিসিকের শিশুপার্ক নির্মাণের কাজ

daily sylhe news 5may2বিশেষ প্রতিবেদক ::
নগরবাসীর বহুলকাঙ্ক্ষিত সিলেট সিটি কর্পোরেশনের শিশুপার্কটির নিজস্ব জমি আছে, জমিতে সীমানাপ্রাচীর হয়েছে, হয়েছে সুদৃশ্য ফটক। কিন্তু নানা জটিলতায় শিশুপার্কটি আজও পূর্ণতা পায়নি। দীর্ঘ এক যুগেও বসেনি কোনো রাইড। বার বার পরিকল্পনা গ্রহণ করলেও বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) নির্মাণাধীন শিশু পার্কটির কাজ শুরু হয়েছিলো ২০০৪-২০০৫ অর্থ বছরে। এরই মধ্যে পেরিয়ে গেছে ১২টি বছর। শেষ হয়নি এর নির্মাণ কাজ। মাঝপথে বরাদ্দকৃত অর্থও ফিরিয়ে নিয়েছে মন্ত্রণালয়।

সিসিক সূত্রে জানা যায়, সিলেট মহানগরের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে সিসিকের নিজস্ব অধিগ্রহণকৃত ৩ দশমিক ৭৭ একর ভূমিতে ২০০৪-০৫ অর্থবছরে একটি শিশুপার্ক নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দ দেওয়া হয় ১৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

dailysylhetnewspark2২০০৯ সালের জুন মাস পর্যন্ত পার্কের ভূমির উন্নয়ন, সীমানাপ্রাচীর, ফটক নির্মাণসহ আরও কিছু আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করা হয়। খরচ হয় ৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা । তবে পরবর্তী ৭ বছরে বিভিন্ন জটিলতায় পার্কটিতে রাইড বসানো হয়নি। প্রক্রিয়া বিলম্বিত হওয়ায় এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বরাদ্দকৃত টাকার ১২ কোটি টাকা ফিরিয়ে নেয়।

গত বছর পার্কের কাজ শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছে সিসিক কর্তৃপক্ষ। এ কারণে ২০১৫ সালের ৬ এপ্রিল অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত পার্কটির উন্নয়ন কাজ করাতে তৎকালীন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফকে একটি আধা সরকারি পত্র (ডিও লেটার) দেন।
অর্থমন্ত্রীর ডিও লেটার পাওয়ার পর ২১ এপ্রিল স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় প্রকল্পের তালিকা দিতে সিলেট সিটি কর্পোরেশনকে চিঠি প্রেরণ করে। সিসিকের প্রেরিত প্রকল্প তালিকা পেয়ে একই বছরের ২৫ জুন অর্থ মন্ত্রণালয়কে অর্থ বরাদ্দ এবং প্রকল্প অনুমোদনের চিঠি দেয়স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। কিন্তু প্রায় ১১ মাস পেরিয়ে গেলেও অর্থমন্ত্রণালয় থেকে প্রকল্পের অনুমোদন ও অর্থ বরাদ্দের প্রসঙ্গে সিসিক কর্তৃপক্ষকে কিছু জানানো হয়নি।

dailysylhetnewsparkসিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব বলেন, দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে সিসিকের শিশু পার্কটি চালু করে শিশুদের বিনোদনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে সম্প্রতি বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তা বাস্তবায়নে সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ে কাছে ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। ওই টাকা পেলে বিভিন্ন ধরনের রাইড বসিয়ে পার্ক চালু করা হবে। তিনি জানান, আমি আসার আগে ‘সিলেট ন্যাচারাল পার্ক’ নামকরণ করার জন্য সিসিকের পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল-যা আমি শুনেছি।

শুধু রাজনৈতিক কারণেই এতদিন আলোর মুখ দেখেনি পার্কটি। এমনটাই জানালেন স্থানীয়রা। পার্কটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল তৎকালীন অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের নামে। পরবর্তীকালে পার্কের নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে পাঠালে ‘সিলেট ন্যাচারাল পার্ক’ হিসেবে পার্কটির নামকরণ করার প্রচেষ্টায় তৈরী হয় জটিলতা। তারপর থেকে আর উন্নয়ন কাজের অগ্রগতি হয়নি।

সিলেট জেলা শিশুবিষয়ক কর্মকর্তা ও জেলা শিশু সংগঠক সাইদুর রহমান ভূঞা বলেন, শিশুদের মনন বিকাশে মুক্ত প্রাঙ্গণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, সিলেটে এত খোলা জায়গা থাকতেও শিশুদের জন্য তেমন কোনো বিনোদনকেন্দ্র নেই। দক্ষিণ সুরমায় নির্মিতব্য শিশুপার্কটি ওই এলাকার শিশুদের মানসিক বিকাশে সহায়ক হবে। তাই দ্রুতসময়ে এ পার্কের নির্মাণকাজ শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সচেষ্ট হতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: