সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৫ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এবার মুরগি ও ডিমের ব্যবসায় নেমেছে আইএস

2016_05_03_21_07_17_jRoYrWMKexfmaHLIBg4MvJdYuO3XJ4_originalআন্তর্জাতিক ডেস্ক: দিনের পর দিন ভূখণ্ড হারিয়ে প্রায় নিঃস্ব হতে চলেছে বিশ্বব্যাপী আলোচিত জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। আয় কমে যাওয়ায় সংগঠনটি মাছের ব্যবসা এবং গাড়ির ডিলারশিপ শুরু করেছে বলে এর আগে খবর বেরিয়েছিল। অর্থ উপার্জনের উদ্দেশ্যে এবার মুরগি এবং মুরগির ডিম বিক্রি শুরু করেছে।

লিবিয়ার রাস্তায় একেবারে স্বল্পমূল্যে মুরগি এবং ডিম ফেরি করছে আইএস যোদ্ধারা। স্থানীয় এক বাসিন্দার বরাত দিয়ে সেখানকার অনলাইন গণমাধ্যম মিডল ইস্ট আই জানায়, আইএস যখন লিবিয়ার সির্ত দখল করে তখন তারা কয়েকটি কৃষি খামার এবং মুরগির খামারও দখল করেছিল।

আরো পড়ুন: ভূখণ্ড হারিয়ে মাছের ব্যবসায় নেমেছে আইএস

সির্ত আইএসের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। সেখানে পোল্ট্রি ব্যবসার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের করও ধার্য্য করেছে তারা। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমার আত্মীয়রা আমাকে বলেছে, আইএস তাদের কালো পোশাক পরে মুখ ঢেকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে মুরগি এবং মুরগির ডিম বিক্রি করে। তারা খুব কম দামেই এগুলো বিক্রি করে।’

এতে বোঝা যায়, আইএস বর্তমানে অত্যন্ত অর্থ সংকটে আছে। তারা দখলকৃত ভবনগুলোর ভাড়াও বাড়িয়েছে। স্থানীয় দোকানিদের সপ্তাহে ৭.৩৫ ডলার প্রদান করতে হয়। গাদ্দাফি সরকারের সময়ে সরকারি কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন ভবন ২০১১ সাল থেকে ব্যবহার করে আসছে সাধারণ জনগণ। সেখানে গিয়েও এখন ভাড়া চাইতে শুরু করেছে আইএস সদস্যরা।

আরো পড়ুন: ২২ শতাংশ ভূখণ্ড হারিয়েছে আইএস

সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, নিজেদের ‘খেলাফত’ রাজ্যের ২২ ভূমি শতাংশ হারিয়েছে আইএস। চলতি বছরের মার্চে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইএইচএস’র গবেষণায় উঠে আসে, আইএসের ২২ শতাংশ ভূখণ্ড হারানোর কথা। ওই গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, তুরস্ক এবং সিরিয়া সীমান্তে একটি উল্লেখযোগ্য ভূখণ্ড হারানোর পর আইএসের আয় কমে গেছে ৪০ শতাংশ, যার বেশিরভাগই আসতো তেল বিক্রি থেকে।

এর আগে এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানায়, ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আইএস এখন নতুন নতুন ব্যবসার সন্ধান করছে। আয়ের উৎস সৃষ্টিতে চাষাবাদসহ আরো অন্যান্য কাজের উদ্যোগ নিচ্ছে তারা। আয়ের উৎস হিসেবে মূলত ২০০৭ সালের শুরুর দিকেই মাছের ব্যবসা শুরু করে আল কায়েদার উত্তরসূরি আইএস। তবে চলতি বছরের শুরুর দিকে মার্কিন কর্তৃপক্ষ তাদের আয়ের উৎস খুঁজে বের করতে সক্ষম হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: