সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিমানে তরুণীর ধুমপান

141197_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের কলকাতা থেকে মুম্বাই যাওয়ার সময়ে ইন্ডিগো বিমানের শৌচালয়ে ঢুকে ধূমপান করার অভিযোগ উঠেছে এক তরুণীর বিরুদ্ধে।

সারা পৃথিবী জুড়েই বিমানের ভিতরে ধূমপান নিষিদ্ধ। হয় তরুণী যাত্রী সেটা জানতেন না, নয় জেনেও নিয়মের তোয়াক্কা করেননি।

মত্ত অবস্থায় ঐ তরুণী বিমানকর্মী, নিরাপত্তারক্ষী ও সহযাত্রীদের গালিগালাজও করেছেন। বিমানসংস্থার অভিযোগ, ওই যাত্রীর জন্যই বিমান ছাড়তে প্রায় ২৫ মিনিট দেরি হয়। বিমান থেকে নামিয়ে তরুণীকে তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে।

পুলিশ জানায়, গভীর রাতে ঐ তরুণীর আত্মীয় থানা থেকে তাকে জামিনে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। বাঙালি এই তরুণীর বাড়ি বেহালায়।

বিমানবন্দর সুত্রে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে বিমানটি তখন দাঁড়িয়েছিল। অভিযুক্ত তরুণী বিমানে উঠে সোজা শৌচালয়ে ঢুকে যান। ককপিটে বসে পাইলট ‘স্মোক অ্যালার্ম’ পান। ঐ তরুণী যে শৌচালয়ে ঢুকেছেন, সেখান থেকেই ওই সতর্ক-বার্তা এসেছে। বিমানসেবিকারা দরজায় ধাক্কা দেওয়ার পরে তরুণী দরজা খুলতেই দেখা যায়, শৌচালয়ের ভিতর ধোঁয়ায় ভরে গিয়েছে। তাকে বিমান থেকে নামতে বলায় তিনি কোনো কথা না বলে নিজের আসনে গিয়ে বসে যান।

৭ নম্বর রো-এ জানালার ধারের আসনে ছিলেন তরুণী। তাকে নামতে বলায় গালিগালাজ করতে শুরু করেন। ঐ সময়ে তরুণীর আক্রোশ থেকে বাদ যায়নি সহযাত্রীরাও। জানালার ধারে বসায় তরুণীকে জোর করে নামানো যাচ্ছিল না। বাধ্য হয়ে সিআইএসএফ-এর মহিলা কর্মীদের ডাকা হয়। তারাই জোর করে নামান তরুণীকে। তল্লাশি করে ঐ তরুণীর কাছ থেকে মিলেছে কয়েকটি দেয়াশলাই কাঠি এবং বাক্সের ধারে থাকা বারুদের অংশ।

নিরাপত্তারক্ষীদের মতে, বিমানের শৌচালয়ে ধূমপান করার পরিকল্পনা করেই বাক্স থেকে বারুদের অংশটি কেটে ও কয়েকটি কাঠি নিয়ে তরুণী বিমানে উঠেছিলেন।

বিমানে ওঠার আগে যে তল্লাশি হয়, সেখানে যাত্রীকে লাইটার বা দেয়াশলাই নিয়ে উঠতে দেওয়া হয় না। কিন্তু, শরীরের ভিতরে কয়েকটি দেয়াশলাই কাঠি ও বারুদের অংশটুকু কোনো মহিলাযাত্রী লুকিয়ে নিলে তা ধরা মুশকিল বলেও স্বীকার করেছেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

বিমান থেকে নামানোর পরেও তরুণী নিরাপত্তারক্ষীদের গালিগালাজ করতে শুরু করেন। এমনকী, টার্মিনালের মেঝেতে শুয়েও পড়েন। পুলিশের সন্দেহ, সন্ধ্যায় বিমানবন্দর পৌঁছনোর আগেই মদ্যপান করেছিলেন তরুণী। বিমানবন্দরে পৌঁছে সেখানকার রেস্তোরাঁয় বসেও তিনি মদ্যপান করেন।

ভারতে ১৯৩৭ সালের যে এয়ারক্র্যাফ্ট আইন চালু আছে, তা পরে সংশোধন করে বিমানের ভিতরে ধূমপান নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশনের এক কর্তা মতে, ‘বিমানের ভিতরে এ ভাবে কোনো যাত্রী ধূমপান করলে কী শাস্তি হবে, তার উল্লেখ নেই আইনে। পুলিশ তদন্ত করে সাধারণ আইনে অভিযুক্ত করতে পারে। বিচারকের উপরে নির্ভর করবে তিনি কী শাস্তি দেবেন।’

এক সময়ে বিমানের ভিতরে বসে ধূমপান করা যেত। ১৯৮৮ সালে প্রথম আমেরিকায় কম সময়ের উড়ানে তা নিষিদ্ধ হয়। পরে আস্তে আস্তে ২০০০ সালের মধ্যে পৃথিবী জুড়ে নিষিদ্ধ হয় বিমানের ভিতরে ধূমপান।

এখন বিমানে সিট-বেল্ট লাগানোর যে সাইন থাকে, সেখানেই ধূমপান নিষিদ্ধ বলেও জ্বলজ্বলে সাইন থাকে। তবু কি নিয়ম ভাঙা হয় না? জানা গিয়েছে, ২০১৩ সালে উত্তর আটলান্টিক মহাসাগরের ডমিনিকান রিপাবলিক যাওয়ার পথে বিমানের ভিতরে ধূমপান করার জন্য সেই বিমানকে বারমুডায় জরুরি অবতরণ করতে হয়েছিল।

ধূমপান করার অপরাধে একই পরিবারের দু’জনের ৫০০ মার্কিন ডলার জরিমানা ছাড়াও ১০ দিন করে হাজতবাসও হয়েছিল।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: