সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৩ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন

full_1627057462_1461775450তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:
অনেকে স্মার্টফোন কেনেন দাম দেখে। দাম অবশ্যই খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কিন্তু তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ফোনের স্পেসিফিকেশন। অনেক কিছু দেখে-শুনে-বুঝে কেনা উচিত।

জেনে নিন স্মার্টফোন কেনার আগে কোন বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন।

* বাজেট বেশি থাকলে আইফোন কেনা ভালো, তবে সেকেন্ডহ্যান্ড বা অনেক পুরনো ভার্সনের নয়। আইফোনে যেতে না চাইলে অ্যান্ড্রয়েড কিনুন।

* ব্ল্যাকবেরি যে কিনবেন না তা আর নিশ্চয়ই নতুন করে বলতে হবে না। ঠিক তেমনই উইন্ডোজ ফোন কেনার আগে দু’বার ভাববেন। কেননা মাইক্রোসফট স্টোরে বেশি অ্যাপ থাকে না। সুতরাং যদি শুধু ফোন করা আর ফোন ধরার জন্যেই ফোন কিনতে হয় তাহলে দামি স্মার্টফোন কেন, সাধারণ ফোন কেনাই ভালো।

* ফোন কেনার আগে সবচেয়ে প্রথমে যা দেখবেন তা হলো প্রসেসর। ভালো প্রসেসর মানেই ফোন হবে সুপারফাস্ট, গেম খেলার সময়ে ফোন হ্যাং করবেন না এবং ফোটো এডিটিং হবে তাড়াতাড়ি। স্ন্যাপড্র্যাগন ৬০০ সিরিজের প্রসেসর থাকে মাঝারি রেঞ্জের ফোনে কিন্তু সবচেয়ে ভালো হলো কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ এবং ৮১০ প্রসেসর।

* আমাদের দেশে ফোরজি ডাটা কানেকশন চালু করার কথা শোনা যাচ্ছে। তাই এখন নতুন ফোন কিনলে ফোরজি সাপোর্ট করবে এমন ফোন কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

* র‌্যাম খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বাজেট বেশি থাকলে ৪ জিবি/৩ জিবি র‌্যামের ফোন কেনাই ভালো। নাহলে অন্তত ২ জিবি র‌্যাম যেন থাকে।

* র‌্যাম, ফোরজি, প্রসেসরের পরেই দেখবেন ডিসপ্লে। চেষ্টা করবেন অ্যামোলেড ডিসপ্লের ফোন কিনতে। চড়া রোদে দাঁড়ালেও পরিষ্কার দেখতে পাবেন স্ক্রিন। কোয়াড এইচডি ২৫৬০ বাই ১৪৪০ পিক্সেলের ফোনগুলোর দাম অনেক বেশি। মাঝারি রেঞ্জের ফোন কিনলে রেজ্যুলেশন যেন অন্ততপক্ষে ১২৮০ বাই ৭২০ পিক্সেল হয়।

* এর পরেই দেখবেন স্টোরেজ কেমন। এক্সপ্যান্ডেবল স্টোরেজ নেই এমন ফোন না কেনাই ভালো। যারা স্মার্টফোন ঠিকঠাক ব্যবহার করতে পারেন, তারা প্রচুর অ্যাপ ডাউনলোড করেন। এর জন্য অনেকটা স্টোরেজ স্পেস লাগে।

* ফ্রন্ট ক্যামেরা নেই এবং এলইডি ফ্ল্যাশ নেই এমন ফোন না কেনাই ভালো। এখন মাঝারি রেঞ্জের ফোনে স্ট্যান্ডার্ড ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা থাকে।

* ব্যাটারি লাইফ হলো আর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একবার ফুলচার্জ দেওয়ার পরে যে সমস্ত ফোরজি ফোনে টানা ৬-৮ ঘণ্টা নেট সার্ফিং করা যায়, সেই ফোনই সবচেয়ে ভালো। ব্যাটারি লাইফ গড়ে ৩০০০ এমএএইচ হলেই ভালো। মাঝারি রেঞ্জের ফোনে ২৫০০ এমএএইচ-এর কম ব্যাটারি লাইফের ফোন না কেনাই ভালো।

* ওয়াই-ফাই সব স্মার্টফোনেই থাকে। চেষ্টা করবেন ব্লু-টুথ ৩.০ রয়েছে এমন ফোন কিনতে কারণ এই ভার্সনটি থাকলে স্মার্টওয়াচের সঙ্গে মোবাইলটি কানেক্ট করা যায়।

* ডলবি অ্যাটমোস সারাউন্ড সাউন্ড এখন স্মার্টফোনের অন্যতম লেটেস্ট ফিচার। যারা ফোনে ভিডিও দেখেন, গান শোনেন বা সিনেমা দেখেন তারা ডলবি স্পিকার রয়েছে এমন ফোনসেট কিনলেই ভালো।

* ফিঙ্গারপ্রিন্ট সিকিউরিটি, শ্যাটারপ্রুফ, স্ক্র্যাচ-প্রুফ স্ক্রিন, গরিলা গ্লাস, ওয়াটারপ্রুফ, এনএফসি ট্যাগ এই সবকিছু অত্যাধুনিক স্মার্টফোন ফিচার্স। বাজেট যত বাড়বে, ততই এই সবকিছু যোগ হবে ফোনের ফিচারে। তবে অনেক বাজেট স্মার্টফোনেও এগুলোর মধ্যে একটি দু’টি ফিচার পাওয়া যায়।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: