সর্বশেষ আপডেট : ১৫ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

১১ ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র মিলে ছাত্রীকে গণধর্ষণ : অতঃপর…

61631631নিউজ ডেস্ক:
কলেজ ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ১১ জন ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রকে আটক করল পুলিশ। অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচয়ের সূত্র ধরে তরুণীকে ডেকে এনে শ্লীলতাহানি করা হয়। খরব-এই সময়

গত ২১ ও ২২ এপ্রিল ২০ বছরের এক তরুণীর গণধর্ষণের অভিযোগে ১১ জন ছাত্রকে পাকড়াও করল পুলিশ। গুজরাতের বল্লভ বিদ্যানগর থেকে সোমবার ধৃত পড়ুয়ারা আহমেদাবাদ, ভাবনগর, সুরাট ও ভদোদরা শহরের বাসিন্দা। নিগৃহীতার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। জানা গিয়েছে, মেডিক্যাল পরীক্ষায় ওই তরুণীর শ্লীলতাহানির প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।

পুলিশের কাছে দেওয়া বয়ান অনুসারে, ইনস্টাগ্রামে ফোটো শেয়ারের সূত্রে অভিযুক্তদের সঙ্গে ওই তরুণীর আলাপ হয়। রবিবার তিনি ননী দমন থানায় অভিযোগ জানান, গত ২১ এপ্রিল তাঁকে অপহরণ করে গাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দমনের ভীমপুর এলাকার এক ভাড়াবাড়িতে নিয়ে গিয়ে তাঁকে দফায় দফায় ধর্ষণ করে ওই ১১ পড়ুয়া।

দমনের পুলিশ সুপার ইশ সিংঘল জানিয়েছেন, ‘অভিযুক্তরা সকলে পড়ুয়া বলে অতি সন্তর্পণে তদন্ত চালানো হচ্ছে। বিস্তারিত জেরার পর তাঁদের গ্রেপ্তার করা হবে।’
তিনি জানান, ‘তরুণী অভিযোগ করেছেন, গত ২১ এপ্রিল তাঁকে অপহরণ করে গাড়িতে ভীমপুরের এক ভাড়াবাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। পরের দিন আনন্দের বল্লভ বিদ্যানগরের এক বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ফের তাঁর শ্লীলতাহানি করা হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনার কথা ফাঁস করলে তার ফল ভালো হবে না বলেও তাঁকে শাসানো হয়েছিল।’

আপাতত দমন ও আনন্দের ঘটনাস্থল ঘুরে গণধর্ষণের অভিযোগ বিস্তারিত তদন্ত করছেন গোয়েন্দারা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: