সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিশ্বনাথে বিএনপির শেষ ভরসা আ.লীগের বিদ্রোহীরা!

index-44মোহাম্মদ আলী শিপন :: ৪র্থ দফা নির্বাচনে সিলেটের বিশ্বনাথের ৭টি ইউনিয়নে বিএনপির মনোনীত প্রার্থীদের শেষ ভরসা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা মাঠে থাকলে নির্বাচন খানিকটা সুষ্ঠু হতে পারে বলে ধারণা বিএনপির মনোনীত প্রার্থীদের। ফলে ক্ষমতাসীন দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের মাঠে রাখার জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে দলটি।

বিএনপি মনোনীতরা বলছেন, চারিদিকে যেভাবে নির্বাচনী সহিংসতা শুরু হয়েছে তাতে করে সুষ্ঠু নির্বাচনের সম্ভাবনা ক্ষীণ। এক্ষেত্রে খানিকটা সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীদের মাঠে ধরে রাখতে হবে। এছাড়া আওয়ামী লীগের মনোনীতরা যখন বিদ্রোহী প্রার্থীদের দমাতে ব্যস্ত তখন বিএনপির প্রার্থীরা কিছুটা হলেও নির্বিঘ্নে প্রচারণা চালানোর সুযোগ পাচ্ছেন। বিদ্রোহীরা মাঠে না থাকলে এতদিনে তাদের উপর হামলা-মামলা কয়েকগুণ বেড়ে যেতো বলে তারা মনে করেন। বিশ্বনাথে ৭টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ৭মে।

বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায়, এর মধ্যে অধিকাংশতেই রয়েছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। বেশিরভাগ ইউনিয়নে ত্যাগী নেতাদের বাদ নিয়ে উড়ে এসে জুড়ে বসা নেতাদের মনোনয়ন দেয়ার অভিযোগ এনেছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। দলীয় নেতাদের উপর রাগ-ক্ষোভের অংশ হিসেবেই দলীয় মাঠ ছাড়েননি বিদ্রোহী প্রার্থীরা।

অধিকাংশ ইউনিয়নে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীরা বিএনপির প্রার্থীদের নিয়ে ভাবছেন না। তারা বড় বাধা মনে করছেন নিজ দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের।

উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টি ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে আওয়ামী লীগে। বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নে বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন দুইবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক। এলাকায় প্রভাবও কোনো অংশে কম নয় তার। উপজেলার দেওকলসে ইউনিয়নে বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন দুইবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ফখরুল আহমদ মতছিন। রামপাশা ইউনিয়নে বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন সাবেক নির্বাচিত চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, খাজাঞ্চি ইউনিয়নে মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন পীর লিয়াকত ও দৌলতপুর ইউনিয়নে মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন আছাব আলী।

বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শক্ত বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) হচ্ছেন ছয়ফুল হক। সেখান থেকে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন আবদুল জলিল জালাল। ওই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন।

জালাল উদ্দিন জানান, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহ প্রার্থী থাকায় তার অবস্থান অনেকটা মজবুত। এখন অপেক্ষা সুষ্ঠু নির্বাচনের।

দেওলকলন ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) হচ্ছেন ফখরুল আহমদ মতছিন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হচ্ছেন আবুল কালাম জুয়েল। বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তরুণ সমাজসেবক আলাল আহমদ। আলাল জানান, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহের কারণে তিনি ভালো অবস্থানে রয়েছেন।

খাজাঞ্চি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হচ্ছেন পীর লিয়াকত। আওয়ামী লীগ প্রার্থী হচ্ছেন শংকর চন্দ্র ধর। বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন। গিয়াস উদ্দিন জানান, আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর কারণে তার অবস্থা বর্তমানে খুবই ভালো।

বিএনপির একাধিক প্রার্থী জানান, শক্ত অবস্থানে থাকা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীরা নির্বাচনী মাঠে তাদের প্রভাব বিস্তার করবে। এ কারণে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের প্রভাব কিছুটা হলেও কমবে। সে ক্ষেত্রে কোনোভাবে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি হলে আওয়ামী লীগের দু’প্রার্থীর টানা-হ্যাচড়ায় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীদের জয়ের সম্ভাবনা আরো বেড়ে যাবে। তারপরও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কি-না তা নিয়ে তারা সংশয়ে রয়েছেন।

নির্বাচন অফিস সুত্রে জানাযায়, নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ৭ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩৩ জন, ৬৩টি ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য (মেম্বার) পদে ২৭৮ জন ও ২১টি ওয়ার্ডে সংরক্ষিত (মহিলা) সদস্য পদে ৬৩ জন’সহ সর্বমোট ৩৭৪ জন প্রার্থী আসন্ন ইউনয়িন পরিষদ নির্বাচনে লড়ছেন। উপজলোয় মোট ভোটাররে সংখ্যা ১ লাখ ৩১ হাজার ২শ ৯৫জন। পুরুষ ভোটাররে সংখ্যা ৬৬ হাজার ৪শ ১৯জন, মহিলা ভোটার সংখ্যা ৬৪ হাজার ৮শ ৭৬জন। ভোট কেন্দ্র ৭৪ ও ভোট কক্ষের সংখ্যা ৩৮৭টি। প্রার্থীরদের প্রচার প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে এলাকা। উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের পথ প্রান্তে মাঠ-ঘাট,দোকান, টি স্টোলসহ সর্বত্রে চলছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা।

এদিকে, উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে একটি ইউনিয়নে সীমানা জটিলতা থাকার কারণে দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে নির্বাচন হচ্ছেনা।

এব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার ওসি আবদুল হাই বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে যে কেউ বিশৃংঙ্খলা করার চেষ্টা করলে তাৎক্ষনিক তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: