সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ২১ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কারাগারের পাশেই জীবনের শেষ সময়টা থাকতে চেয়েছিলেন রুস্তম

37নিউজ ডেস্ক : জীবনের শেষ সময়টাও কারাগারের পাশেই থাকতে চেয়েছিলেন কারারক্ষী রুস্তম আলী। অবসরের পর নিজের এলাকা পিরোজপুরের কারাগারের পাশে বাড়ি বানাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে সুখে বসবাস করা হলো না । তার আগেই দুর্বৃত্তদের বুলেটে কারাগারের পাশেই তার মৃত্যু হলো।

সোমবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে কাশিমপুর কারাগারের সামনে দুর্বৃত্তদের গুলিতে প্রাণ হারান অবসরকালীন ছুটিতে থাকা কারারক্ষী রুস্তম আলী। তিনি সর্বশেষ কাশিমপুর কারাগারের মহিলা ইউনিটে সার্জেন্ট ইন্সট্রাক্টর হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

রুস্তম আলীর বাড়ি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার চরকগাছিয়া গ্রামে। ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে থেকে তিনি অবসরকালীন ছুটিতে ছিলেন।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশসুপার মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘রুস্তম আলী পিরোজপুরের কারাগার সংলগ্ন এলাকায় জমি কিনে বাড়ি করার কথা ভেবেছিলেন। জমি সংক্রান্ত কোনো বিরোধ জড়িত আছে কি না পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।’

হত্যার সঙ্গে কোনো জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে বিস্তারিত বলা যাবে।’

কারা অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক (আইজি-প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন জানান, নিহত রুস্তম আলী কাশিমপুর মহিলা কারাগারের সার্জেন্ট ইন্সট্রাক্টর ছিলেন। তার আগে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে থেকে তিনি অবসরকালীন ছুটিতে ছিলেন। আর কয়েক মাস পরই তার অবসরে যাওয়ার কথা ছিল।

সাবেক সহকর্মী রুস্তম আলীর বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রধান কারারক্ষী সাইফুল ইসলাম বললেন, ‘রুস্তম হাবিলদার (তিনি এ নামেই পরিচিত ছিলেন) ভালো লোক ছিলেন। অন্যায়কে মানতেন না। হয়তো ভেতরে কেউ তার কাছে অন্যায় কোনো আবদার করেছিলেন। সেটা না মানার কারণেই তাকে খুন করা হতে পারে।’

এদিকে, পুলিশ ও প্রতিক্ষদর্শীরা জানায়, আজ বেলা সোয়া ১১টার দিকে অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট ইন্সট্রাক্টর রুস্তম আলী কাশিমপুর কারাগার সংলগ্ন প্রধান গেটের সড়কে আহমেদ মেডিসিন কর্নার নামে একটি ফার্মেসিতে ওষুধ কিনতে যান। এ সময় তিন দুর্বৃত্ত মোটরসাইকেলে অতর্কিতে এসে রুস্তমকে লক্ষ করে গুলি চালায়। এ সময় রুস্তম আলীর বুকে ও মাথায় গুলি লাগে। এতে রুস্তম আলী মাটিতে লুটিয়ে পড়ে যান।

পরে তাকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই তাকে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন। সেখানেই তার মরদেহ রয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: