সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জগন্নাথপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে নৌকা বরাদ্দ : বঞ্চিতদের ক্ষোভ

01.-daily-sylhet-UP-ect1122ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ :: আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জগন্নাথপুর উপজেলার ৭ ইউনিয়নের মধ্যে ৬ ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার ঢাকায় দলের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের সিদ্ধান্তক্রমে জগন্নাথপুর উপজেলার ১ নং কলকলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী দ্বীপক কান্তি দে, ২ নং পাটলি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আংগুর মিয়া, ৫ নং চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো.আরশ মিয়া, ৭ নং সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল হাসান, ৮ নং আশারকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আবু ইমানী ও ৯ নং পাইলগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিন দলীয় প্রতীক নৌকা পেয়েছেন বলে জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আকমল হোসেন নিশ্চিত করেছেন। তবে মামলা সংক্রান্ত জটিলতায় মিরপুর ইউনিয়নে এবার নির্বাচন হচ্ছে না। এছাড়া রাণীগঞ্জ ইউনিয়নে এখনো কোন প্রার্থীকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়া হয়নি।
এদিকে-দলীয় প্রতীক নৌকা বরাদ্দের পর পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। যারা নৌকা পেয়েছেন, তাদের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে আনন্দ উল্লাস দেখা দিলেও বঞ্চিতদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। ১ নং কলকলিয়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের হেভিওয়েট প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাশিম ও আলাল হোসেন রানাকে বাদ দিয়ে দুর্বল প্রার্থী দ্বীপক কান্তি দে কে দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়ায় দলীয় নেতাকর্মীসহ ভোটারদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। এ ইউনিয়নে বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগের একাধিক প্রার্থী থাকায় জামায়াতের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সাজ্জাদুর রহমান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবারো দলীয় প্রার্থী মনোনয়নে ভূল হওয়ায় নৌকার ভরাডুবি হতে পারে বলে স্থানীয়রা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে প্রার্থী পরিবর্তন করতে দলের শীর্ষ নেতাদের প্রতি তারা আহবান জানিয়েছেন। ২ নং পাটলি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুল হককে বাদ দিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান আংগুর মিয়াকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়ায় এ ইউনিয়নেও নৌকার বিজয় নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান। ৫ নং চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আরশ মিয়াকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়ায় তিনি সহজে নির্বাচিত হবেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। ৭ নং সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল হাসানও সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন। ৮ নং আশারকান্দি ইউনিয়নে এলাকার সর্বাধিক জনপ্রিয় ব্যক্তি বর্তমান চেয়ারম্যান আইয়ূব খানকে বাদ দিয়ে এলাকার বিতর্কিত ব্যক্তি রাজাকার পুত্র শাহ আবু ইমানীকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়ায় জনমনে নানা প্রশ্ন, ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে প্রার্থী পরিবর্তন করতে দলের শীর্ষ নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন দলীয় নেতাকর্মীসহ স্থানীয় ভোটাররা। ৯ নং পাইলগাঁও ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিন নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে বঞ্চিত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে অনেকে ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করে জানান, দুঃখজনক হলেও সত্যি আমরা দলের ত্যাগী কর্মী হয়েও বঞ্চিত হয়েছি। যারা অযোগ্য ও জনপ্রিয়তাহীন, তারা অদৃশ্য ইশারায় টাকার জোরে দলীয় প্রতীক নিয়ে এসেছেন। তাদেরকে নির্বাচনের দিন ভোটের মাধ্যমে জনগণ প্রত্যাখান করবেন। তখন নিজ দলের প্রিয় প্রতীক নৌকার ভরাডুবি দেখে আমরা মর্মাহত হবো। তাই সুযোগ থাকলে এখনো বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে পুনরায় দলের ত্যাগী কর্মী, যোগ্য ও জনপ্রিয় প্রার্থীদের মূল্যায়নের মাধ্যমে নৌকার বিজয় শতভাগ নিশ্চিত করতে দলের শীর্ষ নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন বঞ্চিতরা। অপরদিকে-উপজেলার ৪ ইউনিয়নে বিএনপির প্রাথীদের মধ্যে দলীয় প্রতীক ধানের শীষ দেয়া হলেও বাকি ৩ ইউনিয়নে এখনো দেয়া হয়নি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: