সর্বশেষ আপডেট : ২৬ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে খোলা আকাশের নিচে দুই শতাধিক পরিবার

01. daily sylhet Chhatak news2ছাতক প্রতিনিধি:
ছাতকে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়েছে দুই শতাধিক কাঁচা-আধাকাঁচা, সেমিপাকা ঘরবাড়ি ও দোকানপাট। বিধ্বস্ত হয়েছে শহস্রাধিক ছোট-বড় গাছপালা। ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে পাকা-আধাপাকা বোরো ফসলের। হতাহতের ঘটনাও ঘটেছে কালবৈশাখী ঘূর্ণিঝড়ে। এ বছরের মধ্যে এটিই প্রথম বড় রকমের কালবৈশাখী ঝড় বলে মন্তব্য করেছে অনেকেই। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হানে উপজেলার চরমহল্লা, উত্তর খুরমা ও দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের প্রায় ১৫টি গ্রাম ও দুটি বাজারে।

পরে মুহূর্তের মধ্যেই গোটা উপজেলায় বিস্তৃতি লাভ করে ঘূর্ণিঝড়। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে সারা উপজেলার বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। প্রায় আধ ঘণ্টা স্থায়ী কালবৈশাখী ঝড়ে দু’শতাধিক সেমিপাকা, কাঁচা ও আধা-কাঁচা ঘরবাড়ি, দুটি বাজার, শহস্রাধিক গাছা-পালা, বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষতি ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের হাদনালী ও পুড়াকাটি গ্রাম কালবৈশাখী তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়েছে। ঘূর্ণির কবলে দুটি গ্রামের কাঁচা ঘরবাড়ি বলতে আর কিছুই অবশিষ্ট থাকেনি। দুটি গ্রামের শতাধিক পরিবারের লোকজন রাত কাটিয়েছেন খোলা আকাশের নিচে। ইউনিয়নের হরিশ্বরণ, রামচন্দ্রপুর, হলদিউড়া, উত্তর খুরমা ইউনিয়নের রসুলপুর, বিহাই, ধারনবাজার, চরমহল্লা ইউনিয়নের চরমহল্লাবাজার টেটিয়ারচর, খরিদিচর, চরমাধব, চুনারুচর, কালিয়ারচর, চরচৌলাসহ আরও কয়েটি গ্রামের ঘরবাড়ি ও পাছপালার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ঝড়ের সময় ঘরের নিচে চাপা পড়ে খরিদিচর গ্রামের আবদুল হকের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪৫) নামের এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ফারুক মিয়া, আবদুল আলিম, হারিছ আলী, হাজী মদরিছ আলী, আবদুল মনাফ, আবদুল আজিদ, মিজাজ মিয়া, মারুফ আহমদসহ আরো অন্তত অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। চাপা পড়ে পুড়াকাটি গ্রামের হারিছ আলীর একটি হালেরগরু মারা গেছে। রাতেই দক্ষিণ খুরমা ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মছব্বির ও চরমহল্লা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। গতকাল শুক্রবার সকালে সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম, ছাতক উপজেলা চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শেখ হাফিজুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাহাদাত লাহিনসহ জনপ্রতিনিধিবৃন্দ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্তদের দ্রুত সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের কথা বলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: