সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বায়োমেট্রিক করলেই ২০ টাকা!

sim1-696x228ডেইলি সিলেট ডেস্ক::
আঙ্গুলের ছাপের (বায়োমেট্রিক) মাধ্যমে প্রতিটি সিম নিবন্ধনের জন্য গ্রাহককে গুণতে হচ্ছে ২০ টাকা। নিবন্ধনে কোনো ধরনের ফি নেওয়ার বিধান না থাকলেও সংশ্লিষ্ট রিটেইলাররা অন্যায়ভাবে এ অর্থ আদায় করছে।

সিম নিবন্ধনের আর মাত্র আটদিন বাকি। সময় যত ঘনিয়ে আসছে, ততই রমরমা হয়ে উঠছে এ অবৈধ বাণিজ্য। গ্রাহকরাও অনেকটা বাধ্য হয়েই এ অর্থ তুলে দিচ্ছে রিটেইলারদের হাতে। বিভিন্ন মুঠোফোন কোম্পানির কাস্টমার কেয়ার সার্ভিসের আউটলেটের পাশাপাশি নিবন্ধনের জন্য অলি-গলিতেও গজিয়ে উঠেছে অনেক দোকান। মুলত এসব রিটেইলাররাই অবৈধভাবে অর্থ আদায় করছে।

সরকারের পক্ষ থেকে সিন পুনঃনিবন্ধন সম্পূর্ণ ফ্রি বলা হলেও এসব দোকানে সিম প্রতি ২০ থেকে ২৫ টাকা আদায় করা হচ্ছে।

অথচ শুরু থেকেই ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলে আসছেন, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের জন্য টাকা চাওয়া হলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এমনকি, কেউ টাকা দাবি করলে তিনি তাকে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার কথাও বলেন।

কিন্তু প্রতিমন্ত্রীর এই হুমকি-ধামকি শুধু গণমাধ্যমেই প্রকাশ হয়। বাস্তবে মাঠে এর প্রয়োগ কতটুকু হয় তা হয় তো তিনি নিজেও জানেন না।

বৃহস্পতিবার রাতে রওশন নামের জনৈক্য ব্যক্তি মিরপুরের আশিদাগ এলাকার একটি দোকানে তার সিম পুনঃনিবন্ধন করতে যান। এ সময় তার কাছ থেকে সিম প্রতি ২০ টাকা দাবি করা হয়। এমনকি রাষ্ট্রীয় কোম্পানি টেলিটকের সিম নিববন্ধনের ক্ষেত্রে ২৫ টাকা দাবি করা হয়।

এ সময় ওই ব্যক্তি রিটেইলারকে জিজ্ঞেস করেন, ‘টাকা কেন ভাই, সরকার তো বিনামূ্ল্যে নিববন্ধনের কথা বলছে। এমনকি মন্ত্রী তো বলেছেন, কেউ টাকা দাবি করলে তাকে পুলিশে দিতে।’

এ কথার জবাবে ওই দোকানি বলেন, ‘ভাই পুলিশে ধরিয়ে দেবেন কি, পুলিশও তো টাকা দিয়ে নিবন্ধন করছে। একটু আগে এক পুলিশ সদস্য এক সিমের জন্য ৪০ টাকা দিয়েছেন।’

তবে কাস্টমার কেয়ারে গেলে কোনো টাকা লাগে না বলে উল্লেখ করেন ওই রিটেইলার।

প্রসঙ্গত, অবৈধ সিম ব্যবহার করে মোবাইলের মাধ্যমে যাতে নানা অপরাধী কর্মকাণ্ড না ঘটতে পারে সে জন্য প্রায় সাড়ে চার মাস আগে সারাদেশে শুরু হয় বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম পুনঃনিবন্ধন।

আগামী ৩০ এপ্রিলের মধ্যে সকল সিমের নিবন্ধন শেষ করার কথা থাকলেও এখনও কয়েক কোটি সিম নিবন্ধনের বাইরে রয়েছে।

সময় হাতে না থাকায় নিবন্ধনকারীদের কাছে ভিড় জমাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। আর এ সুযোগটি কাজে লাগিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে অবৈধভাবে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে রিটেইলাররা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: