সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ১৬ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কুলাউড়ায় নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রতিযোগিতায় আ’লীগ প্রার্থীরা এগিয়ে-প্রশাসন নির্বিকার

daily-sylhet-kulaura-news3হাবিবুর রহমান ফজলু : কুলাউড়া উপজেলায় ৩য় দফা যে ৭টি ইউনিয়নে ২৩ এপ্রিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেগুলোতে চলছে শেষমুহুর্তের প্রচারণা। শেষ মুহুর্তে এসে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। আর আচরণবিধি লংঘনের প্রতিযোগিতায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা এগিয়ে। তারা শুধু আচরণবিধি লঙ্ঘনই নয় এসব প্রতিপক্ষের উপর পেশিশক্তির প্রয়োগ করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কিন্তু প্রশাসন রহস্যময় কারণে নীরব।

উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে পেশিশক্তির অভিযোগ করেছেন ৩ প্রার্থী। প্রধান নির্বাচন কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারের কাছে এই লিখিত অভিযোগ করেন। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কমর উদ্দিন আহমদ কমরু, বিএনপি প্রার্থী রুমেল খান ও ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী মোঃ খালিক মিয়ার লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুর রব মাহবুব নির্বাচনী ফলাফল নিজের অনুকুলে নিতে যা করা প্রয়োজন তাই করবেন বলে প্রচার করছেন। পেশিশক্তি প্রয়োগ করে কেন্দ্র দখল করতে ইতোমধ্যে প্রতিটি কেন্দ্রে কমিটি গঠন করছেন। তাছাড়া ভোটের দিন বিশৃঙ্খলা সৃস্টি করে ভোট বন্ধ করার চক্রান্ত করছেন। এতে ভোটেরদিন আইন শৃঙ্খলার অবনতি ও প্রাণহাণির আশঙ্কা করছেন অভিযোগকারীরা। এরফলে সাধারণ ভোটাররা আতঙ্কে রয়েছেন। ফলে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে জয়চন্ডী ইউনিয়নের সবক’টি ভোট কেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তা জোরদারেরও আবেদন জানিয়েছেন।

১৫ এপ্রিল শুক্রবার নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘন করে উপজেলার ব্রাহ্মণবাজারে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মমদুদ হোসেন লুয়াইউনি চা বাগানে, হিঙ্গাজিয়া বাজার ও শ্রীপুর বাজারে পৃথক জনসভা করেন। জনসভায় সিলেট, মৌলভীবাজার ও কুলাউড়ার আওয়ামী লীগ নেতারা বক্তব্য দেন।

তাছাড়া ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে দেয়ালে দেয়ালে পোষ্টার লাগানো, ব্যানার টানানো এবং প্রতিপক্ষকে হুমকি ধামকি চলছে প্রতিনিয়িত।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ জিল্লুর রহমান জানান, আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ইলেকশন কমিশন থেকে সহকারি কমিশনার (ভুমি) মোঃ আলমগীর হোসেনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। একা উনার পক্ষে কন্ট্রোল করা কঠিন। তারপরও চেষ্টা করছেন। নির্বাচনের আগের দিন আরও ৩ জন ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: