সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গানের লাইন পরিবর্তন নিয়ে যা বললেন মাকসুদ

48নিউজ ডেস্ক: মাকসুদের গাওয়া ফিডব্যাকের ‘মেলায় যাই রে’ গানটি পহেলা বৈশাখের ট্রেডমার্ক গানে পরিনত হয়েছে। এসময়ের জনপ্রিয় ব্যান্ড ফিডব্যাকের এই গান বাংলা বর্ষ বরণের একটি অনুষঙ্গই যেন হয়ে উঠেছে। তবে সম্প্রতি সময়ে গানটির একটি লাইন নিয়ে আপত্তি উঠেছে। অনেকে লাইনটি পরিবর্তনের দাবিও তুলেছেন।

এবারের পহেলা বৈশাখে বেশ কয়েকজন তরুণকে দেখা গেছে শাহবাগে প্ল্যাকার্ড নিয়ে মাকসুদুল হকের গাওয়া ‘মেলায় যাই রে’ গানটির ‘বখাটে ছেলের ভিড়ে ললনাদের রেহাই নাই’ চরণটির পরিবর্তন দাবি করছেন।

এ নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনার মধ্যেই নিজের গাওয়া গানটি নিয়ে মুখ খুলেছেন গানের শিল্পী মাকসুদ। তিনি নিজের নাম-ঠিকানা উল্লেখ করে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন এ প্রসঙ্গে।

মাকসুদ লিখেছেন, ‘বন্ধুরা। আমি অতন্ত্য বিনয় সহকারে আপনাদের কাছে জানতে চাই ‘বখাটে’ শব্দটা আপনাদের জানা কোনো বাংলা গানে কি এই অব্দি ব্যবহার হতে শুনেছেন? ‘বখাটে’ শব্দ আমরা নিজেরাই বা দিনে কবার ব্যবহার করি? ১৯৮৮তে গানটি লেখার সময় এই শব্দ ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছিলাম কারণ ভদ্র ভাষায় এই সকল কুলাঙ্গার দানবদের সনাক্ত করতে এর চেয়ে ‘শক্ত গালি’ আমার কাছে ছিল না। এই ‘গালি’ যারা হজম করতে পারছে না তারা এবং কিছু তথাকথিত নব্য ‘প্রগতিশীল’ ‘নারীবাদি’রা এই ফালতু ‘ক্যামপেইন’ করছে কেবলই আমাকে ‘পেইন’ দিতে…. তাতে কোনো লাভ নেই। আমি মোটেও বিচলিত নই। কারণ আমার দেহে এর চেয়ে অনেক ‘শক্ত পেইন কিলার’ আছে এবং সব সময় থাকবে।’

তিনি আরো লেখেন, ‘তবে হ্যাঁ, সব ‘ছেলে’ বখাটে না এবং ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে এরা (বখাটে) খুব বেশি হলে কয়েক হাজার। এদেরকে সরাসরি চিহ্নিত করাই ছিলো আমার উদ্দেশ্য এবং ‘বখাটে’ অর্থ ‘দুষ্ট’ না। ‘দুষ্ট’ বলেও ২০১৫ দুঃখজনক ঘটনার পর এক মহল এদের ‘জায়েজ’ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। ‘রাজাকার’ শব্দ কর্তন করে যেমন রাজাকারবিরোধী আন্দোলন সম্ভব না- একইভাবে এই গানটির মেসেজ ‘বখাটে’ বাদ দিলে কেবল অনর্থই দাড়াবে।’

মাকসুদ আরো লিখেছেন, ‘খুব কষ্ট পেয়েছি এ যাত্রা বাঙালির ‘সৃষ্টিশীলতার’ করুন অবস্থা দেখে। ‘শব্দ/লাইন পরিবর্তন’র দাবি উঠেছে – কিন্তু এর পরিবর্তে কি শব্দ/লাইন হতে পারে তার অত্যন্ত দুর্বল নমুনা এসেছে বহু জায়গা থেকে, বহু ফোরাম থেকে। তাই আমার গানের লাইন অপরিবর্তিত রেখে একটা কাউন্টার ক্যাম্পেইন হতে পারে-
মাকসুদের গাওয়া ফিডব্যাকের ‘মেলায় যাই রে’ গানটি পহেলা বৈশাখের ট্রেডমার্ক গানে পরিনত হয়েছে। এসময়ের জনপ্রিয় ব্যান্ড ফিডব্যাকের এই গান বাংলা বর্ষ বরণের একটি অনুষঙ্গই যেন হয়ে উঠেছে। তবে সম্প্রতি সময়ে গানটির একটি লাইন নিয়ে আপত্তি উঠেছে। অনেকে লাইনটি পরিবর্তনের দাবিও তুলেছেন।

এবারের পহেলা বৈশাখে বেশ কয়েকজন তরুণকে দেখা গেছে শাহবাগে প্ল্যাকার্ড নিয়ে মাকসুদুল হকের গাওয়া ‘মেলায় যাই রে’ গানটির ‘বখাটে ছেলের ভিড়ে ললনাদের রেহাই নাই’ চরণটির পরিবর্তন দাবি করছেন।

এ নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনার মধ্যেই নিজের গাওয়া গানটি নিয়ে মুখ খুলেছেন গানের শিল্পী মাকসুদ। তিনি নিজের নাম-ঠিকানা উল্লেখ করে নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন এ প্রসঙ্গে।

মাকসুদ লিখেছেন, ‘বন্ধুরা। আমি অতন্ত্য বিনয় সহকারে আপনাদের কাছে জানতে চাই ‘বখাটে’ শব্দটা আপনাদের জানা কোনো বাংলা গানে কি এই অব্দি ব্যবহার হতে শুনেছেন? ‘বখাটে’ শব্দ আমরা নিজেরাই বা দিনে কবার ব্যবহার করি? ১৯৮৮তে গানটি লেখার সময় এই শব্দ ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছিলাম কারণ ভদ্র ভাষায় এই সকল কুলাঙ্গার দানবদের সনাক্ত করতে এর চেয়ে ‘শক্ত গালি’ আমার কাছে ছিল না। এই ‘গালি’ যারা হজম করতে পারছে না তারা এবং কিছু তথাকথিত নব্য ‘প্রগতিশীল’ ‘নারীবাদি’রা এই ফালতু ‘ক্যামপেইন’ করছে কেবলই আমাকে ‘পেইন’ দিতে…. তাতে কোনো লাভ নেই। আমি মোটেও বিচলিত নই। কারণ আমার দেহে এর চেয়ে অনেক ‘শক্ত পেইন কিলার’ আছে এবং সব সময় থাকবে।’

তিনি আরো লেখেন, ‘তবে হ্যাঁ, সব ‘ছেলে’ বখাটে না এবং ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে এরা (বখাটে) খুব বেশি হলে কয়েক হাজার। এদেরকে সরাসরি চিহ্নিত করাই ছিলো আমার উদ্দেশ্য এবং ‘বখাটে’ অর্থ ‘দুষ্ট’ না। ‘দুষ্ট’ বলেও ২০১৫ দুঃখজনক ঘটনার পর এক মহল এদের ‘জায়েজ’ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। ‘রাজাকার’ শব্দ কর্তন করে যেমন রাজাকারবিরোধী আন্দোলন সম্ভব না- একইভাবে এই গানটির মেসেজ ‘বখাটে’ বাদ দিলে কেবল অনর্থই দাড়াবে।’

মাকসুদ আরো লিখেছেন, ‘খুব কষ্ট পেয়েছি এ যাত্রা বাঙালির ‘সৃষ্টিশীলতার’ করুন অবস্থা দেখে। ‘শব্দ/লাইন পরিবর্তন’র দাবি উঠেছে – কিন্তু এর পরিবর্তে কি শব্দ/লাইন হতে পারে তার অত্যন্ত দুর্বল নমুনা এসেছে বহু জায়গা থেকে, বহু ফোরাম থেকে। তাই আমার গানের লাইন অপরিবর্তিত রেখে একটা কাউন্টার ক্যাম্পেইন হতে পারে-

‘ললনারা দৌড়ান দিলে, বখাটেদের রেহাই নাই……’

তবে উপরের শব্দ/লাইনটির সকল ‘মেধাসত্তা অধিকার’ এই অধমের।
সবাইকে নববর্ষের অনেক শুভেচ্ছা।

উল্লেখ্য, তুমুল জনপ্রিয় এ গানটি লেখা হয় ৮৮ সালের দিকে। ‘মেলায় যাই রে’ গানটি অ্যালবাম হিসেবে বাজারে আসে ১৯৯০ সালের বাংলা নববর্ষে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: