সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে পাকা ধান নিয়ে বিপাকে কৃষক : মিলছে না ধান কাটার শ্রমিক

47মোঃ এইচ এ হেলাল :: দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে ফসল গোলায় তুলে নিতে ছাতকের ১৩ উপজেলায় বোরো ধান কাটায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা। দ্রুত ধান কাটার পাশাপাশি ধান মাড়াইয়েও ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন উপজেলার কৃষাণ- কৃষাণীরা।

তবে চলতি মৌসুমে পুরো উপজেলার বিভিন্ন হাওরে শতকরা প্রায় ৮০ভাগ বোরো ফসল কাটার উপযোগী হয়ে যাওয়ায় এ উপজেলার কৃষকেরা ভুগছেন ধান কাটার শ্রমিক সংকটে। শ্রমিক সংকটের কারনে সময়মত ফসল তুলতে পারবেন কি-না এ নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন অনেকেই। এমনকি গত কয়েক দিনে উপজেলার কয়েকটি এলাকায় শীলাবৃষ্টিসহ কোনো কোনো হাওরে বন্যার পানি প্রবেশ করে বোরো ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার খবরে অনেক কৃষকই আতংকের মধ্যে রয়েছেন।

উপজেলার কৃষি অধিদপ্তরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বোরো মৌসুমে ছাতক উপজেলায় ১২হাজার ৯শ‘ ৮০হেক্টর জমিতে বোরো ফসল আবাদ করা হয়েছে। যার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৬হাজার ৭শ‘ ৮৮মেট্রিক টন (চাল)। যা গত বছরের তুলনায় ৫শতাংশ বেশি।

এদিকে উপজেলার কৃষি অধিদপ্তর বাম্পার ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যে এর আগে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের নিয়ে অব্যাহত প্রশিক্ষণ ও জনসচেতনতা মূলক সভার মাধ্যমে বিভিন্ন জাতের ক্ষতিকর পোকা-মাকড়ের হাত থেকে ফসল রক্ষা করতে কীট-নাশকের পরিবর্তে বিভিন্ন আধুনিক ও দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করতে কৃষকদের উৎসাহিত করেন।

উপজেলার দোলারবাজার বাজার ইউনিয়নের উত্তর কুর্শী গ্রামের রজব আলী, দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের জামাল উদ্দিন, সিংচাপইড় ইউনিয়নের পুরান সিংচাপইড় গ্রামের দুদু মিয়াসহ কয়েকটি ইউনিয়নের স্থানীয় কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, মৌসুমের শুরুর দিকে অনাবৃষ্টির কারনে কিছুটা ফসলের ক্ষতি হলেও পরবর্তীতে যথাসময়ে বৃষ্টি হওয়ার কারনে এবার বোরো ফসলের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে ফসল কাটার উপযোগী হয়ে যাওয়ার পরও শ্রমিক স্বল্পতার কারণে সময়মত ফসল কাটাতে না পারায় হতাশায় ভুগছেন এখানকার কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জগলুল হায়দার জানান, চলতি বছরে বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে অনাবৃষ্টির কারণে ফসলের ক্ষতি হওয়ার কিছুটা সম্ভাবনা থাকলেও বিগত দিনে কয়েকদফা বৃষ্টি হওয়ায় তা কেটে গেছে। তাছাড়া বেশিরভাগ হাওরে ফসল কাটার উপযোগী হওয়ায় শীঘ্রই কৃষকরা ফসল ঘরে তুলতে সক্ষম হবে বলে জানান তিনি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: