সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিশ্বনাথে প্রবীণ-নবীনদের ভোট যুদ্ধ

01.-daily-sylhet-UP-ect11মোহাম্মদ আলী শিপন::
সিলেটের বিশ্বনাথে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়াইয়ে নেমেছেন ৪১জন প্রার্থী। ইতিমধ্যে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীরা ভোটারের মন জয় করতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি, চাচ্ছেন সবার দোয়া। বিএনপি ও আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান পদে নবীন ও প্রবীণের লড়াইয়ে প্রার্থীদের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। অন্যদিকে জাতীয় পার্টি প্রার্থীরা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন স্বাভাবিক ভাবে।

এবারে বিশ্বনাথ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন দৌলতপুর ইউনিয়নে’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান আমির আলী, ‘লামাকাজী ইউনিয়নে’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ শাহনুর হোসাইন, ‘খাজাঞ্চী ইউনিয়নে’ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শংকর চন্দ্র ধর, ‘অলংকারী ইউনিয়নে’ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক রফিক মিয়া, ‘রামপাশা ইউনিয়নে’ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, ‘বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নে’ উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা কমিটির যুগ্ম আহবায়ক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল জলিল জালাল, ‘দেওকলস ইউনিয়নে’ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহ সভাপতি আবুল কালাম জুয়েল। তবে ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন ৫জন। তারা হলেন-বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নে উপজেলা আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, উপজেলা আ.লীগের সাবেক সহ-সভাপতি শাহ আসাদুজ্জামান আসাদ, দেওকলস ইউপিতে উপজেলা আ.লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম মতছিন, দৌলতপুর ইউপিতে আ.লীগ নেতা আছাব উদ্দিন, রামপাশা ইউপিতে আ.লীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান।

বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন, উপজেলার ৭ ইউনিয়নে ‘বিশ্বনাথ ইউনিয়নে’ বিশ্বনাথ উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন,‘লামাকাজী ইউনিয়নে’ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান কবির হোসেন ধলা মিয়া, অলংকারি ইউনিয়নে বিএনপি নেতা এম এ হক, রামপাশা ইউনিয়নে জয়নাল আবেদিন, দৌলতপুর ইউনিয়নে দৌলতপুর ইউপি বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আরব খান, দেওকলস ইউনিয়নে উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য আলাল আহমদ,খাজাঞ্চী ইউনিয়নে উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য গিয়াস উদ্দিন। তরে দুটি ইউনিয়নে বিএনপির দুইজন বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। তারা হলে রামপাশা ইউপিতে উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক বশির আহমদ ও অলংকারি ইউপিতে উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক নাজমুল ইসলাম রুহেল।
বিভিন্ন এলাকা সরজমিন ঘুরে দেখা গেছে, আওয়ামী লীগের প্রবীণ আর বিএনপির নবীন প্রার্থী এবং জাতীয় পার্টি প্রার্থী তাদের নিজ নিজ দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। সকল প্রার্থীই পথসভা, উঠান বৈঠকসহ নির্বাচনের প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন জোরেশোরে, প্রার্থীদের কর্মী সমর্থক আর শুভাকাঙ্ক্ষীরা ভোটারদের মন জয় করতে সব রকম কৌশল অবলম্বন করে ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪১জন হলেও মূলত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে ধানের শীষ আর নৌকার মধ্যে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা নৌকা প্রতীক নিয়ে দলীয় ভোটের আশায় প্রতিটি ওয়ার্ড চষে বেড়ালেও ভোট যুদ্ধে পিছিয়ে ধানের শীষের প্রার্থীরা।

এদিকে, উপজেলার দেওকলস ইউনিয়ন ও খাজাঞ্চি ইউনিয়নে বিএনপির দুইজন প্রার্থী নবীন। উপজেলার সকল চেয়ারম্যান প্রার্থীদের চেয়ে তাদের বয়স সব চেয়ে কম। ফলে প্রবীণ ও নবীনদের মধ্যে চলছে ভোট যুদ্ধ।

প্রসঙ্গত, ৭ মে ৪র্থ দফায় অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করার জন্য উপজেলার ৭ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪১ জন, ৬৩টি ওয়ার্ডে সদস্য (মেম্বার) পদে ২৯৬ জন ও ২১টি ওয়ার্ডে সংরক্ষিত (মহিলা) সদস্য পদে ৬৫ জন প্রার্থী নিজেদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তবে দুইজন ইউপি সদস্য পদপ্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হলেও বাকি সকল প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষনা করে নির্বাচন অফিস। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন আগামী ১৮ই এপ্রিল এবং প্রতিক বরাদ্ধ ১৯ এপ্রিল।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: