সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভূমিকম্পে হেলে পড়া দুইটি ভবন ভেঙে ফেলার নির্দেশ

full_2030687658_1460630800নিউজ ডেস্ক::
বৃহস্পতিবার ভূমিকম্পে হেলে পড়া নয়টি ভবন পরিদর্শন করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) তিন সদস্যের কমিটি। পরিদর্শনকালে তারা হালিশহর বি-ব্লকের দুটি ভবন ভেঙে ফেলার জন্য মালিককে নির্দেশ দেন।

অবশিষ্ট ভবনগুলোর কারিগরি ত্রুটি ও বর্তমান অবস্থা নিরূপণ এবং পরবর্তী করণীয় নির্ধারণের জন্য আগামী রোববার প্রকৌশলীদের সমন্বয়ে আরও একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠনের সুপারিশের চিন্তা-ভাবনা চলছে।

গতকাল বুধবার চট্টগ্রামসহ সারা দেশে প্রবল ভূকম্পনের পর সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম তাত্ক্ষণিকভাবে তিন সদস্যের এই কমিটি গঠন করেন। ভূকম্পন-পরবর্তী হেলে পড়া ভবনের বর্তমান অবস্থা এবং করণীয় নির্ধারণে গঠিত এই পরিদর্শন কমিটির প্রধান করা হয়েছে সিডিএর প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ (ভারপ্রাপ্ত) মো. শাহীনুল ইসলাম খানকে। কমিটির অপর সদস্যরা হলেন দুই কর্মকর্তা মো. শামীম ও মো. ইলিয়াছ।

তিন সদস্যের কমিটি আজ সকাল থেকে নগরের চান্দগাঁও, হালিশহর, জুবিলি রোড, আমতলাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্পে হেলে পড়া ভবনের স্থিরচিত্র ধারণ করেছে। পাশাপাশি ভবনগুলোর নির্মাণগত ত্রুটির বিষয়গুলোর খোঁজ খবর নেয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কমিটির প্রধান মো. শাহীনুল ইসলাম খান বলেন, ‘নয়টি ভবনই কম-বেশি হেলে পড়েছে। আবার এদের বেশির ভাগই সিডিএর নির্ধারিত নির্মাণ বিধিমালা মানেনি। হালিশহর বি-ব্লকের পাশাপাশি দুটি সাততলা এবং ছয়তলা ভবন পরস্পরকে এক ইঞ্চি জায়গাও ছেড়ে দেয়নি। ওই ভবন দুটি আমরা ভেঙে ফেলার জন্য মালিককে নির্দেশ দিয়েছি। যদি ভাঙা না হয় তাহলে সিডিএ ব্যবস্থা নেবে।’

মো. শাহীনুল ইসলাম খান আরও বলেন, পরিদর্শনসংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন এবং সুপারিশমালা আমরা রোববার দেব। এতে প্রকৌশলীদের সমন্বয়ে আরও একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণের সুপারিশ থাকবে।

উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার রাত ৭টা ৫৫ মিনিটে সারা দেশে ভূকম্পন অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৯। ভূমিকম্পের পর প্রাথমিকভাবে নগরের বিভিন্ন স্থানে নয়টি ভবন হেলে পড়ার কথা জানা যায়। নগরের চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় একটি ভবন প্রায় এক ফুট পর্যন্ত হেলে পড়ে। রাতেই সিডিএ চেয়ারম্যান ওই ভবনটি পরিদর্শন করেন। পরে তিনি তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেন।

কমিটির সদস্য মো. শামীম বলেন, ‘ভবনগুলো আমরা সকাল থেকে পরিদর্শন করে এগুলোর নির্মাণ ত্রুটি এবং হেলে পড়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখেছি। হালিশহরের দুটি ভবন লাল কালি দিয়ে চিহ্নিত করে ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, নয়টির মধ্যে বাণিজ্যিক ভবনগুলোতে লোকজন এখন নেই। তবে আবাসিক ভবনগুলোতে কিছু কিছু লোকজন রয়েছে। এ বিষয়ে রোববার পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: