সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এই গরমে বৈশাখী সাজে আনুন স্নিগ্ধতা

56নিউজ ডেস্ক: বাঙালির প্রাণের উৎসব ‘পহেলা বৈশাখ’। পহেলা বৈশাখ নিয়ে শুধু এ দেশের মানুষই নয় বরং পুরো পৃথিবীর বাংলা ভাষাভাষী মানুষের আছে আলাদা প্রীতি। আর বৈশাখে প্রিয়জনদের নিয়ে ঘুরতে কার না ভালো লাগে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল সাজ-পোশাক। কিন্তু বরাবরের মত এবারের বৈশাখও প্রচণ্ড গরমে। তাই সাজ ও পোশাকের ক্ষেত্রে সচেতন হওয়া খুব জরুরি। দেখে নিন এই গরমে যেমন হবে বৈশাখী সাজ-

পোশাক
পহেলা বৈশাখের বৈশাখী সাজ মানেই যে শুধু লাল সাদা পোশাক, সে ভাবনাটা এখন আর নেই। এখন ফ্যাশন সচেতনরা বেছে নিচ্ছেন লাল, সাদা, কমলা, নীল, হলুদ, বেগুনী ইত্যাদি রঙ। বয়স, পরিবেশ আর অভ্যাস মিলে বেছে নিন আপনার পোশাক। তবে যেহেতু উৎসবটি একেবারে দেশীয় সংস্কৃতির তাই মেয়েদের জন্য শাড়ি আর ছেলেদের জন্য পাঞ্জাবীই বৈশাখী সাজ হিসেবে বেশি মানানসই। তবে বৈশাখে সুতি শাড়ি বেছে নেওয়া ভালো। একরঙা সুতি শাড়িতে চিকন পাড় ভালো লাগে। যেহেতু গরম তাই হাফহাতা বা স্লিভলেস ব্লাউজ পরতে পারেন। আবার শাড়ির সাথে মিল রেখে বাটিকের ব্লাউজ পরতে পারেন। এই দিনে শাড়ি বাঙালী স্টাইলে পরলেই ভালো লাগবে।

অনেকেই শাড়ির বদলে গরমের জন্য সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া পরতে পছন্দ করে। বাচ্চাদের বৈশাখী সাজ হিসেবে পড়াতে পারেন পাতলা সুতির শাড়ি বা সেলওয়ার-কামিজ।

গয়না
শাড়ির সঙ্গে গয়না না হলে কি চলে? সেক্ষেত্রে মাটির গয়না বেছে নেয়া ভালো। মাটির মালা হতে হবে লম্বা। আবার কাঠ, রূপা, মুক্তা বা তামার মালা পরতে পারেন। ভারি গয়না পরতে না চাইলে ফুলের মালা বেছে নিন।

চুড়ি
বাঙালি নারীর হাত ভর্তি চুড়ি তো থাকতেই হবে! গয়না না পরলেও দুহাত ভর্তি চুড়ি সাজ পূর্ণ করে দেয়। শাড়ির পাড়ের সঙ্গে মিলিয়ে রেশমি চুড়ি পরতে পারেন। মাটির বা কাঠের চুড়িও কিন্তু বেশ মানিয়ে যায়। পোশাকের রঙের প্রাধান্য যেটাই থাকুক না কেন, হাতে থাকা চাই রেশমি চুড়ি।

মেকআপ
বৈশাখী সাজ করার ক্ষেত্রে মেকআপের জন্য বেছে নিতে পারেন হাল্কা বেইজের কিছু। তবে তা অবশ্যই স্বাভাবিক মানের হওয়া চাই। প্রচণ্ড গরম আর রোদের তাপে মেকআপ নষ্ট হবার ভয় থাকে। তাই বেছে নিতে পারেন অয়েল ফ্রি বা ওয়াটার প্রুফ মেকআপ। মেকআপ করার আগে মুখে বরফ টুকরা ঘষে নিন এতে মেকআপ ত্বকের ভেতরে যাবেনা আর ঘাম কম হবে।

চোখে লাগাতে পারেন হাল্কা আই শ্যাডো আর মাশকারা। এক্ষেত্রে কাজল, আই লাইনার বা মাশকারা অবশ্যই ওয়াটার প্রুফ হতে হবে। যাদের কাজল ছড়িয়ে যায় তারা কাজল দেওয়ার পর তার ওপর হাল্কা একটু পাউডার দিয়ে নেবেন। তাতে আর কাজল ছড়ানোর ভয় থাকবে না। ঠোঁটে দিতে পারেন লাল কিংবা অন্য হালকা রঙের লিপস্টিক। কপালে ছোট বা বড় লাল টিপই বেশি মানাবে।

চুলের সাজ
বৈশাখী সাজ এর জন্য চুলে করতে পারেন খোঁপা বা বেণী। শাড়ি বা সালওয়ার কামিজ যাই পরুন না কেন, চুলে করতে পারেন খোঁপা বা বেণী। বেশি বড় খোঁপা করলে মাথা ভারি হয়ে যায়, বেশি সময় থাকাও যায় না। তাই খোঁপাতে একটি ফুল গুঁজে নিলে দেখতে ভালো লাগে। যাদের চুল ছোট তারা ভালো করে আঁচড়ে ক্লিপ লাগিয়ে নিন।

যারা চুল ছেড়ে রাখতে চান তারা একপাশে চুল নিয়ে অন্য পাশে একটি ফুল আটকিয়ে নিন। এতে মাথা হাল্কাও থাকবে আবার বৈশাখের আমেজটাও থাকবে। ফুল আটকাতে না চাইলে পরে নিবেন ফুলের মুকুট।

তবে যেহেতু বাঙালির উৎসব তাই ফুল থাকতেই হবে। উৎসবের আগে তেল মাসাজ করে শ্যাম্পু করে নিন। কারণ চুলের যত্নটাও জরুরি। কোনো প্যাক ব্যবহার করতে পারেন এতে রোদে চুলের বেশি ক্ষতি হবেনা।

ব্যাগ ও জুতা
শাড়ির সঙ্গে ম্যাচিং করে ব্যাগ নির্বাচন করুন। কালো আর লাল রঙের ব্যাগ মানিয়ে যায় সব রঙের শাড়ির সঙ্গে। মাঝারি সাইজের ব্যাগ ব্যবহার করুন। গরমের জন্য টুকটাক প্রয়োজনীয় জিনিস ব্যাগে রাখবেন; ছোটপানির বোতল, হাল্কা মেকআপ, রুমাল এইসব। তবে ব্যাগ যেন বেশি ভারি না হয়।

জুতা অনেকেই হিল পরে হাঁটতে পারেন না, আর এই উৎসবে হাঁটতে তো হয়ই। তাই স্লিপার পরাই ভালো।

যেহেতু পহেলা বৈশাখ বছরে একবারই পাওয়া যায় তাই এর পূর্ণ প্রস্তুতি নিন। এখন থেকেই গুছিয়ে রাখুন সব আর নিজস্ব স্টাইলে হয়ে উঠুন অসাধারণ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: