সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ১০ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে এক মাসে ৩১ ডাকাতি, গ্রেপ্তার ৭

12273স্টাফ রিপোর্টার::
সিলেট মহানগরে বেড়েই চলছে ডাকাতির ঘটনা। প্রতিরাতেই নগরী বা জেলার কোথাও না কোথাও ঘটছে ডাকাতি। মূল্যবান মালামাল লুট হওয়া ছাড়াও ডাকাতদের হামলায় আহত হচ্ছেন অনেকেই। গত এক মাসে সিলেটে অন্তত ৩১টি ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। এদিকে ডাকাত ধরতে পুলিশ ব্যর্থ হওয়ায় বিভিন্ন এলাকায় স্থানীয় লোকজন মাঠে নেমেছেন। রাত জেগে তারা এলাকা পাহারা দিচ্ছেন। এর সুফলও পাচ্ছেন তারা।

গত সোমবার ভোররাতে সিলেট শহরতলির জাঙ্গাইলে জনতার গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে এক ডাকাত। এছাড়া পাহারা বসিয়ে ৭ ডাকাতকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। গতকাল পুলিশ তাদেরকে ৩ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করছে। এর আগে শাহপরান থানার ওসি শাহজালাল মুন্সি সিলেটের অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (৩য় আদালত) উম্মে সরাবন তহুরার আদালতে ৭ ডাকাতকে হাজির করে তাদের বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান। আদালত শুনানী শেষে তাদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডের ডাকাতরা হচ্ছে- হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার শালদিঘি গ্রামের বাবুল (২০), সুনাম মিয়া (২৮), একই জেলার সদর উপজেলার রামনগর গ্রামের আব্বাস (৩৫), দরিয়াপুর গ্রামের কুদরত আলী (৩৫), সুনামগঞ্জ জেলার সদর থানার গুদিগঞ্জ গ্রামের শাহ আলম (২১), সিলেটের শাহপরাণ থানার ইসলামপুর কলোনির খায়রুল (৩৭) ও কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার কালিপুর পশ্চিমকান্দার শাহ আলম (২০)।

জানা গেছে, গত সোমবার ভোররাতে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার রুকনপুর গ্রামে ডাকাতদল প্রবেশ করলে টহল পুলিশ ধাওয়া করে। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে ডাকাতরা একটি পাইপগান, কার্তুজ ও একটি কুড়াল ফেলে পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর। একইদিন ভোররাতে নগরীর জালালাবাদ থানার জাঙ্গাইল গ্রামে একদল ডাকাত প্রবেশ করে।

সেখানে এসময় জনতা ধাওয়া করে জয়নাল নামের এক ডাকাতকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত জয়নাল সিলেট সদর উপজেলার হাটখোলা ইউনিয়নের আলতা মিয়ার ছেলে বলে জানিয়েছেন জালালাবাদ থানার ওসি আখতার হোসেন।

এ ঘটনায় থানার এসআই মোঃ আক্তারুজ্জামান পাঠান বাদি হয়ে অজ্ঞাতনাম ৮০/১০০ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সোমবার ভোররাতে শাহপরাণ থানা খাদিমপাড়া ইউনিয়নের কল্লোগ্রামে তেরা মিয়ার বাড়িতে একদল ডাকাত হানা দেয়। ডাকাতি শেষে পালানোর সময় স্থানীয় জনতা ঘেরাও দিয়ে ৭ ডাকাতকে আটক করে গণধোলাই দেয়। পরে পুলিশ এসে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। আটক ডাকাতদের কাছ থেকে লুন্ঠিত স্বর্নালঙ্কার, নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনসেটসহ মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শাহপরাণ থানার ওসি শাহজালাল মুন্সি। গতকাল মঙ্গলবার ভোর রাতে নিহারীপাড়া ডি ব্লকের ৪১ নং বাসায় এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: