সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তনুর লাশ উদ্ধারের স্থান পরিদর্শনে সিআইডির ডিআইজি

full_1580884104_1460287165নিউজ ডেস্ক:
পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডির উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মাহবুব মোহসিন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর লাশ উদ্ধারের স্থান পরিদর্শন করেছেন। তনু গত ২০ মার্চ খুন হন। ওই দিন রাত সাড়ে ১০টায় কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরে পাওয়ার হাউসের অদূরে কালভার্টের পাশে একটি ঝোপ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

আজ রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাহবুব মোহসিনের নেতৃত্বে সিআইডির একটি দল কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাস এলাকায় আসেন। এরপর তারা ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডার ও জিওসি মেজর জেনারেল মো. এনায়েত উল্লাহ, স্টেশন কমান্ডার, তনুর বাবা-মা ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।

এ ছাড়া তনু যে বাসায় টিউশনি করতেন, সেখানেও ডিআইজি যান। বেলা সোয়া তিনটায় তারা কুমিল্লা সিআইডি দপ্তরে ফিরে আসেন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত ডিআইজি আলাউদ্দিন আল আজাদ, সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার ও তদন্ত সহায়ক দলের প্রধান আবদুল কাহার আকন্দ, সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার নাজমুল করিম খান ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক গাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম।

এসময় গণমাধ্যমকর্মীরা ডিআইজির সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি কোনো ধরনের মন্তব্য করতে রাজি হননি।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার নাজমুল করিম খান বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে ব্যাপারে সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে। ডিআইজি স্যার আসা মানে এ মামলাকে আরও বেশি গুরুত্ব দেওয়া। সবার সহযোগিতা নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই। দুপুরে সেনানিবাসে প্রবেশ করে ঘটনাস্থল পরিদর্শন, তনুর টিউশনির স্থান পরিদর্শন, জিওসি, স্টেশন কমান্ডার, তনুর বাবা ইয়ার হোসেন, মা আনোয়ারা বেগম, দুই ভাই নাজমুল হোসেন ও আনোয়ার হোসেন রুবেল, চাচাতো বোন লাইজু জাহানসহ অন্যদের সঙ্গে স্যার (ডিআইজি) কথা বলেছেন। আমরা চেষ্টা করছি এ ঘটনার কিনারা করতে।’

এদিকে তনুর লাশের প্রথম ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকসহ দুই চিকিৎসককে বিকেলে সিআইডি কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গত ২১ মার্চ তনুর প্রথম ময়নাতদন্ত করেন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের কনিষ্ঠ প্রভাষক শারমিন সুলতানা।

বিকেল সাড়ে চারটার দিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে এবং ওই বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক কামদা প্রসাদ সাহাকে কুমিল্লা সিআইডি কার্যালয়ে ডেকে নেওয়া হয়। সেখানে তাদের মাহবুব মোহসিনসহ অন্যরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: